কেমন আছে ছোট আঙারিয়া ? বাম আমলের সন্ত্রাসের স্মৃতি আজও টাটকা তাদের মনে

কেমন আছে ছোট আঙারিয়া ? বাম আমলের সন্ত্রাসের স্মৃতি আজও টাটকা তাদের মনে
Photo: News 18

বাম আমলে নৃশংস হত‍্যা দেখেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের কেশপুর, ছোট আঙারিয়া। সেই সব দিনগুলির কথা আজও তারা ভোলেনি।

  • Share this:

    কেশপুর(পশ্চিম মেদিনীপুর): বাম আমলে নৃশংস হত‍্যা দেখেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের কেশপুর, ছোট আঙারিয়া। সেই সব দিনগুলির কথা আজও তারা ভোলেনি।

    বাম আমলে এই দুই জায়গাই বার বার রক্তাক্ত হয়েছে। উঠে এসেছে শিরোনামে। ছোট আঙারিয়া আজও ভুলতে পারে না ১৭ বছর আগের সেই দিনটার কথা।

    অভিযোগ, ঘরছাড়া তৃণমূল কর্মীরা ছোট আঙারিয়ায় ঘরে ফিরতেই, শুরু হয়েছিল সিপিএমের তাণ্ডব। গুলি করে, কুপিয়ে খুন করা হয়েছিল পাঁচজনকে। জ্বালিয়ে দেওয়া হয়েছিল ঘর-বাড়ি।


    সেই স্মৃতির কথা মনে পড়লেই আজও আতঙ্কে কেঁপে ওঠেন এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা বক্তার মণ্ডল ৷ সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন,  ‘গড়বেতায় থাকতাম, দেখা করতে এসেছিলাম। আমি কোনওক্রমে বেঁচে যাই। যাঁরা বাড়িতে ছিল তাঁদের সবাইকে মেরে দিল। বাড়িটা পুড়িয়ে দিল ৷’

    ছোট আঙারিয়ার এই ঘটনার বছর দেড়েক পরে সন্ত্রাসের থাবা নেমে এসেছিল পশ্চিম মেদিনীপুরের কেশপুরের কাছে দক্ষিণ পিয়াশালায়। এখানেও ঘরে ফেরা তৃণমূল কর্মীদের উপর হামলা চালানোর অভিযোগ ওঠে সিপিএমের বিরুদ্ধে। গুলি করে খুন করা হয় সাতজনকে।

    ২০১১ সালের ১৮ মে, পশ্চিম মেদিনীপুরেরই বেনাচাপড়ার দাসেরবাধে উদ্ধার হয় বস্তাভর্তি কঙ্কাল। অভিযোগ ওঠে, দক্ষিণ পিয়াশালায় যাঁদের খুন করা হয়েছিল, তাঁদের দেহ পুঁতে দেওয়া হয়েছিল এই বেনাচাপড়ায়।

    ২০১১ সালের ১৮ মে, পশ্চিম মেদিনীপুরের গড়বেতায় এই দাসেরবাধ এলাকা থেকেই উদ্ধার হয়েছিল নরকঙ্কালগুলি। যার জেরে তোলপাড় হয় রাজ‍্য রাজনীতি।

    এই সব ঘটনার পরে কেটে গিয়েছে অনেকগুলি বছর। ফের দোরে পঞ্চায়েত ভোট। গড়বেতা, কেশপুর, ছোটআঙারিয়া চায়, সন্ত্রাসের সেই দিনগুলি যাতে আর না ফেরে।

    First published: