দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

দিনে দুপুরে বিধ্বংসী আগুনে পুড়ে ছারখার কালনার পুরবিতান শিশু উদ্যান

দিনে দুপুরে বিধ্বংসী আগুনে পুড়ে ছারখার কালনার পুরবিতান শিশু উদ্যান

সব মিলিয়ে অন্তত পনেরো লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছে।

  • Share this:

Saradindu Ghosh

#কালনা: দিন দুপুরে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ছারখার হয়ে গেল পূর্ব বর্ধমানের মন্দির শহর কালনার পুরবিতান পার্ক। বহু লক্ষ টাকা ব্যয় করে এই শিশু উদ্যান তৈরি করেছিল কালনা পৌরসভা। বৃহস্পতিবার বেলা বারোটা নাগাদ দাউ দাউ করে জ্বলতে শুরু করে শিশু উদ্যানের বিভিন্ন অংশ। এলাকার বাসিন্দারা ও দমকলের দু’টি ইঞ্জিনের চেষ্টায় ঘন্টাখানেক পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। কিভাবে এই আগুন লাগল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে পুরসভা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

চার বছর আগে কালনা শহরের বিদ্যাবাগীশ পাড়ায় এই শিশু উদ্যান গড়ে তোলা হয়েছিল। করোনা পরিস্থিতির কারণে ন’মাস আগে এই শিশু উদ্যান বন্ধ রাখা হয়। করোনার সংক্রমণ এড়াতে এখনও তা তালা বন্ধ অবস্থায় ছিল। বৃহস্পতিবার বেলা বারোটা নাগাদ কালনা পৌরসভার এই শিশু উদ্যান পুরবিতানের অফিস ঘর ও তার আশপাশ এলাকায় আগুন জ্বলতে দেখা যায়। আগুনের শিখা বহু উঁচু পর্যন্ত বিস্তৃত ছিল। বিশাল ধোঁয়ার কুণ্ডলী দেখে অনেক দূর থেকেও বাসিন্দারা সেখানে ছুটে আসেন। সঙ্গে সঙ্গে দমকলে খবর দেওয়া হয়।

কিছুক্ষণের মধ্যেই দমকলের দু’টি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে আসে। তবে যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে একটি ইঞ্জিন চালু করতে সমস্যা হয়। অন্য একটি ইঞ্জিন আগুন নেভানোর কাজ শুরু করে। আগুনে এই শিশু উদ্যানের ট্রয় ট্রেনের বেশিরভাগটাই নষ্ট হয়ে গিয়েছে। অফিস ঘরও ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সব মিলিয়ে অন্তত পনেরো লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছে।

অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে যান কালনা পৌরসভার চেয়ারম্যান দেবপ্রসাদ বাগ। তিনি বলেন, কিভাবে আগুন লাগলো তা নিয়ে দন্দ্বে রয়েছি আমরাও। আগুন লাগলো নাকি লাগানো হলো তা বুঝে ওঠা যাচ্ছে না। আবার অনুমানের উপর ভিত্তি করে কিছু বলাও ঠিক নয়। তবে শর্টসার্কিট থেকে যে এই আগুন লাগেনি সে ব্যাপারে আমরা নিশ্চিত। কারণ বিদ্যুৎ ব্যবস্থা ছিন্ন করা ছিল। পার্কটি তালা বন্ধ থাকায় সেখানে সাধারণের যাতায়াত ছিল না। দু’জন কর্মী নিয়মিত এই পার্কে পরিচর্যার কাজ করেন। এই দিনও বেলা এগারোটা পর্যন্ত কাজ করেছিলেন তাঁরা। তবে অতি দ্রুত এই শিশু উদ্যান আগের অবস্থায় ফিরিয়ে দেওয়া হবে বলে জানান পৌর প্রধান।

Published by: Simli Raha
First published: January 8, 2021, 8:02 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर