হোম /খবর /দক্ষিণবঙ্গ /
দাম্পত্য কলহে হস্তক্ষেপ, রাগে গায়ে পেট্রল ঠেলে শাশুড়িকে পুড়িয়ে মারল জামাই

সাংঘাতিক! দাম্পত্য কলহে হস্তক্ষেপ, রাগে গায়ে পেট্রল ঠেলে শাশুড়িকে পুড়িয়ে মারল জামাই

রাগে অগ্নিশর্মা হয়ে মাসি শাশুড়ির গায়ে পেট্রোল ঢেলে তাকে পুড়িয়ে মারল জামাই! দগ্ধ হয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি মৃত মহিলার স্বামীও।

  • Last Updated :
  • Share this:

#বর্ধমান: বউয়ের সঙ্গে সাংসারিক টানাপোড়েন নিয়ে বচসা চলছিল। তাতে নাক গলিয়েছিল স্ত্রীর মাসিমা ও মেশোমশাই। তাতেই রাগে অগ্নিশর্মা হয়ে মাসি শাশুড়ির গায়ে পেট্রোল ঢেলে তাকে পুড়িয়ে মারল জামাই! দগ্ধ হয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি মৃত মহিলার স্বামীও। পূর্ব বর্ধমান জেলার ভাতারের বাসুদা গ্রামে এই ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার কথা শুনে তাজ্জব সকলেই। অভিযুক্তের কঠোর সাজা হোক চাইছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

জামাই কৃষ্ণ মালিকের বাড়ি হুগলি জেলার পান্ডুয়ায়। আট বছর আগে পূর্ব বর্ধমান জেলার ভাতারের কুমারুন গ্রামে গঙ্গা মালিকের সঙ্গে তার বিয়ে হয়েছিল। তাদের সাত বছরের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে।গঙ্গা মালিকের অভিযোগ, গত শুক্রবার তাকে তার স্বামী মারধর করে এবং বাড়ী থেকে বের করে দেয়। সে পান্ডুয়া থেকে ভাতারের তার মাসির বাড়ি বাসুদা গ্রামে চলে আসে।এরপর তার স্বামী  কৃষ্ণ মালিক সোমবার বাসুদা গ্রামে তার মাসি শাশুড়ির বাড়ি আসে। সেখানে তার মাসি শাশুড়ি জ্যোৎস্না মাল ও শ্বশুর অজিত মালের সঙ্গে বচসা হয়। সেখানে কৃষ্ণ তাদের পুড়িয়ে মারার হুমকিও দেয় বলে অভিযোগ।

কৃষ্ণবচসার পর তার বোনের বাড়ি ভাতারের খুরুল গ্রামে চলে যায়। অভিযোগ, রাত এগারোটা নাগাদ সে ফিরে এসে ঘরে ঘুমিয়ে থাকা তার মাসি শাশুড়ি জ্যোৎস্না মাল ও অজিত মালের গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। ঘটনাস্থলেই তার শাশুড়ি জ্যোৎস্না মাল মারা যান। অজিত বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে  মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন।ঘটনার খবর পেয়ে ভাতার থানার পুলিশ তদন্তে নামে। নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে  কৃষ্ণ মালিককে মেমারির হাসপুকুর মোড় থেকে গ্রেপ্তার করে।

Saradindu Ghosh

Published by:Elina Datta
First published:

Tags: Murder