Home /News /south-bengal /
West Bengal News: মর্নিং ওয়াক থেকে ফিরেই নিজের মাথায় বন্দুক তাক যুবকের! তারপর...হাড়হিম কাণ্ড তারকেশ্বরে

West Bengal News: মর্নিং ওয়াক থেকে ফিরেই নিজের মাথায় বন্দুক তাক যুবকের! তারপর...হাড়হিম কাণ্ড তারকেশ্বরে

প্রতীকী চিত্র

প্রতীকী চিত্র

West Bengal News: দোনলা বন্দুকটি উদ্ধার করেছে পুলিশ। দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে।

  • Share this:

    #তারকেশ্বর: নিজের মাথায় গুলি করে আত্মহত্যা যুবকের (West Bengal News)। ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে তারকেশ্বর থানার মোজপুর গ্রামে। মৃত যুবকের নাম শান্তনু ঘোষ (৪৩ )। তাঁর পরিবারে স্ত্রী ও তিন বছরের একটি কন্যা সন্তান আছে বলে জানা গেছে। ঘটনাস্থলে তারকেশ্বর থানার পুলিশ। দোনলা বন্দুকটি উদ্ধার করেছে পুলিশ। দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে।

    পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, বুধবার সকালে প্রাতঃভ্রমণ সেরে বাড়ি ফেরার পর নিজের লাইসেন্স প্রাপ্ত দোনালা বন্দুক দিয়ে নিজের মাথায় গুলি করে ওই যুবক। প্রতিবেশীরা গুলির আওয়াজ শুনে তার বাড়িতে গিয়ে দেখে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে দেহ। যুবকের আত্মীয়রা পুলিশে খবর দেয়।

    পরিবার সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, একটি এটিএমের ক্যাশ গাড়ির বন্দুক ধারী গার্ড হিসাবে কর্মরত ছিলেন শান্তনু। করোনা পরিস্থিতিতে কাজ হারান ওই যুবক। তার পর থেকেই মানসিক অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলেন। তবে যুবক নিজেই নিজেকে গুলি করেছে নাকি এর পিছনে অন্য কোন কারণ আছে, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

    আরও পড়ুন: উত্তর প্রদেশ পুলিশের কাছে এল ভয়ংকর ইমেল, গোটা দিল্লিজুড়ে জারি হাই অ্যালার্ট!

    অপরদিকে, যুবতীর রহস্যজনক মৃত্যুকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল জগদ্দল থানার শ্যামনগর গুড়দহ মাতৃপল্লীতে। মৃতার নাম রিয়া মুখোপাধ্যায় (২৬)। মঙ্গলবার রাতে নৈহাটি থানার জি আর পি শ্যামনগর স্টেশন সংলগ্ন ২৫ ও ২৬ নম্বর রেলগেটের মধ্য থেকে রিয়ার মৃতদেহ উদ্ধার করে। যুবতীর হাতে ছিল মোবাইল ও কানে হেডফোন গোঁজা ছিল। অভিযোগ, মৃতার প্রেমিকই ওঁর সন্ধান দেয় বাড়ির লোককে। এতেই সন্দেহ দানা বেঁধেছে। ট্রেনের ধাক্কায় মৃত্যু হলে মোবাইল ফোন ছিটকে অন্যত্র পড়ত। এক্ষেত্রে মোবাইল ফোন মৃতার হাতেই ছিল।

    আরও পড়ুন: গরম থেকে রেহাই দিতে আসছে বৃষ্টি? বাংলার জন্য জরুরি পূর্বাভাস! কতটা বদলাবে পরিস্থিতি?

    স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মাতৃপল্লীর বাসিন্দা রিয়ার সঙ্গে প্রণয়ের সম্পর্ক ছিল গুড়দহ শালবাগান এলাকার বাসিন্দা অসীম হাওলদার ওরফে বুটুর। অভিযোগ, বুটুর অন্যত্র বিয়ে ঠিক হয়ে গেলেও রিয়ার সঙ্গে মেলামেশা করত। মৃতার দিদির অভিযোগ, বোনকে মেরে রেললাইনে ফেলে দিয়েছে বুটু। অভিযুক্তের ফাঁসির দাবি করেছেন মৃতার পরিবার ও প্রতিবেশীরা। রাতেই জগদ্দল থানা ও নৈহাটি জি আর পি থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন মৃতার পরিবার। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে জগদ্দল থানার পুলিশ মৃতার প্রেমিক অসীম ওরফে বুটুকে গ্রেফতার করেছে।

    Published by:Suman Biswas
    First published:

    Tags: Suicide, West Bengal news

    পরবর্তী খবর