ট্যুইটারে নন্দীগ্রামের 'অন্ধকার অধ্যায়' স্মরণ তৃণমূল নেত্রীর, ভূমি আন্দোলনের শহিদদের শ্রদ্ধাজ্ঞাপন

ট্যুইটারে নন্দীগ্রামের 'অন্ধকার অধ্যায়' স্মরণ তৃণমূল নেত্রীর, ভূমি আন্দোলনের শহিদদের শ্রদ্ধাজ্ঞাপন

ছবি ফাইল চিত্র

২০০৭ এ ১৪ মার্চ। আজ থেকে ঠিক ১৪ বছর আগে বাম জমানায় পূর্ব মেদিনীপুরের এক অখ্যাত গ্রাম উঠে এসেছিল সংবাদ শিরোনামে। ভূমি উচ্ছেদ আন্দোলনে কেঁপে উঠেছিল বাংলার রাজনীতি।

  • Share this:

    #কলকাতা : ২০০৭ এ ১৪ মার্চ। আজ থেকে ঠিক ১৪ বছর আগে বাম জমানায় পূর্ব মেদিনীপুরের এক অখ্যাত গ্রাম উঠে এসেছিল সংবাদ শিরোনামে। ভূমি উচ্ছেদ আন্দোলনে কেঁপে উঠেছিল বাংলার রাজনীতি। যে ভিতের ওপর দাঁড়িয়েই এক ঐতিহাসিক পালাবদল ঘটে গিয়েছিল ঠিক দু'বছর পরে। তিরিশ বছরের বাম শাসনের অবসান ঘটিয়ে বাংলার মসনদে এসেছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেস। আজ সেই নন্দীগ্রাম আন্দোলনের কথা স্মরণ করে ট্যুইটারে পোস্ট দিলেন মমতা।

    মমতা আরও লেখেন, "প্রতিবছর এই দিনটিকে কৃষাণ দিবস হিসেবে পালন করি আমরা। কৃষাণ রত্ন পুরস্কারও দেওয়া হয় আমাদের পক্ষ থেকে। কৃষকরা আমাদের গর্ব। তাঁদের সর্বাঙ্গীন বিকাশে আমরা কাজ করে চলেছি। আমার নন্দীগ্রামের ভাই-বোনদের উৎসাহে, সেখানকার মানুষদের শ্রদ্ধা জানাতেই সেখান থেকে লড়াইয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমি। আগামীদিনে নন্দীগ্রামের শহিদ পরিবারগুলিকে সঙ্গে নিয়েই বাংলা বিরোধী শক্তির সঙ্গে লড়বো।"

    তাঁর পোস্টে মুখ্যমন্ত্রী বার্তা দেন নন্দীগ্রাম আন্দোলনের শহীদ পরিবার ও সেদিনের সেই আন্দোলনের পুরোভাগে থাকা মানুষদের উদ্যেশ্যে। তিনি লেখেন, "২০০৭ এর আজকের দিনে নন্দীগ্রামে পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছিলেন নিরীহ গ্রামবাসীরা। অনেকের লাশ পাওয়া যায়নি সেদিন। রাজ্যের ইতিহাসের একটি অন্ধকার অধ্যায় ছিল সেইদিন। নন্দীগ্রামের মাটিতে সেদিন যাঁরা প্রাণ হারিয়েছেন তাঁদের সকলকে শ্রদ্ধা জানাই।"

    এবারের নির্বাচনে তৃণমূলের ইশতেহার প্রকাশের কথা ছিল গত ১১ মার্চ। কিন্তু দলনেত্রীর পায়ে চোট পাওয়া ভেস্তে দিয়েছিল সব পরিকল্পনা। শেষপর্যন্ত ঠিক হয়েছিল রবিবারই সেই ইশতেহার প্রকাশ করা হবে। কারণ নন্দীগ্রাম জমি আন্দোলনের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত আছে ১৪ মার্চের স্মৃতি। আর এই নন্দীগ্রামকেই এবারর নির্বাচনে পাখির চোখ করে ময়দানে নেমেছেন তৃণমূলনেত্রী। তবে শেষ পর্যন্ত শনিবার রাতে দলীয় তরফে জানানো হয় প্রযুক্তিগত কারণে এইদিন তৃণমূলের ইশতেহার প্রকাশ মুলতুবি রাখা হচ্ছে। যদিও নন্দীগ্রাম দিবস উপলক্ষে পথে নামবেন তৃণমূল নেত্রী-সহ দলের নেতা, কর্মী, সমর্থকরা। পায়ে চোট পাওয়ায় মমতা রাজপথে হাঁটতে পারবেন না ঠিকই। তবে হাজরা মোড়ে হুইলচেয়ারে হাজির থাকবেন তিনি।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published:

    লেটেস্ট খবর