corona virus btn
corona virus btn
Loading

গ্রামবাসীদের মারে পা ভেঙে যাওয়া পুলিশ অফিসারের ফোনে খোঁজ নিলেন মুখ্যমন্ত্রী

গ্রামবাসীদের মারে পা ভেঙে যাওয়া পুলিশ অফিসারের ফোনে খোঁজ নিলেন মুখ্যমন্ত্রী

গ্রামবাসীদের হামলায় জামুড়িয়া থানার ওসি সুব্রত ঘোষ-সহ বেশ কয়েকজন পুলিশ কর্মী জখম হন। ডান পায়ে গুরুতর চোট পান জামুড়িয়া থানার ওসি

  • Share this:

#আসানসোল: জামুড়িয়া থানার ওসির সঙ্গে ফোনে কথা বললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর শারীরিক অবস্থার খোঁজখবর নেন মুখ্যমন্ত্রী । সেইসঙ্গে সাবধানে থাকার পরামর্শও দেন । আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের  পুলিশ কমিশনারের  মাধ্যমে ফোনে কথা বলেন রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান। সম্প্রতি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারকে কেন্দ্র করে  উত্তপ্ত হয়েছিল আসানসোলের জামুড়িয়া থানার অন্তর্গত চুরুলিয়া। গ্রামবাসীদের হামলায় জামুড়িয়া থানার ওসি সুব্রত ঘোষ-সহ বেশ কয়েকজন পুলিশ কর্মী জখম হন। ডান পায়ে গুরুতর চোট পান জামুড়িয়া থানার ওসি।

প্রসঙ্গত কোয়ারেনটাইন  কেন্দ্রে থাকা ৬ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, মঙ্গলবার পশ্চিম বর্ধমানের চুরুলিয়ায় এমনই ‘গুজব’ ছড়ায়। পুলিশ জানায়, গুজবের জেরে ‘জনতা-তাণ্ডব’-এ পশ্চিম বর্ধমানের জামুড়িয়া থানার অফিসার-ইন-চার্জ  সুব্রত ঘোষের ডান পা ভেঙে যায় । আক্রান্ত হন আরও বেশ কয়েকজন পুলিশ। গ্রামে যথেচ্ছ গুলি ও বোমাও  চলেছে বলে দাবি করে পুলিশ।আসানসোল-দুর্গাপুরের পুলিশ কমিশনার সুকেশ  জৈন বলেন, 'ওসি-র ডান পায়ের হাড় ভেঙেছে। তাঁর পায়ে অস্ত্রোপচার হয়েছে। এখন অবস্থা স্থিতিশীল'।

সোমবার পশ্চিম বর্ধমানের চুরুলিয়ার ‘কোয়ারেন্টিন কেন্দ্র’ যুব আবাসে থাকা ৬ জনকে স্বাস্থ্যপরীক্ষার জন্য আসানসোল জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়। মঙ্গলবার সকালে ওই কোয়ারেন্টিন কেন্দ্রে থাকা বাকিদের জন্য গাড়িতে করে খাবার দিতে যাচ্ছিলেন চুরুলিয়া পুলিশ আউটপোস্টের সাব-ইনস্পেক্টর কার্তিক ভুঁই-সহ ৫ জন। কেন্দ্রের কাছে যেতেই কয়েকশো  গ্রামবাসী গাড়ি লক্ষ্য করে পাথর ছুঁড়তে শুরু করেন। গাছের গুড়ি ফেলে রাস্তা অবরুদ্ধ করে রাখা হয়। খবর পেয়ে জামুড়িয়া থানার  ওসি  সুব্রত ঘোষ সাতটি গাড়িতে ২৫ জন পুলিশকর্মীকে নিয়ে গ্রামে গেলে তাঁদেরও পথ আটকায় জনতা। এরপর আচমকা  পুলিশকর্মীদের ওপর  রড, লাঠি হাতে চড়াও হয় । বেধড়ক মারধর করে উত্তেজিত জনতা। লাগোয়া মাঠে টানা বোমা-গুলি চলছিল বলেও খবর। ক্ষিপ্ত জনতার বেপরোয়া হামলার মুখে পড়েন পুলিশকর্মীরা। আর এতেই থানার ওসি সুব্রতবাবুর পা ভেঙে যায়। রক্তাক্ত অবস্থায় পুলিশকর্মীদের স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পুলিশ সূত্রের খবর , পুলিশ কমিশনারের  মোবাইলে ফোন করে জখম ওসি সুব্রত ঘোষের  সঙ্গে টানা প্রায় দশ মিনিট সরাসরি কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গুরুতর আহত ওসি কে বলেন , ' সাবধানে থাকবেন । পায়ের নিচে বালিশ রাখবেন। নিজের যত্ন নেবেন। বেশি চিন্তা করবেন না।। করোনা সংক্রমণ এড়িয়ে চলবেন। কেবিনে বেশি লোকজন ঢুকতে দেবেন না। আমাদের সরকার আপনাদের সবার পাশে আছে'। মুখ্যমন্ত্রী চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে চলার কথাও বলেন ওসিকে । আহত পুলিশ অফিসারের সঙ্গে কথা বলার পাশাপাশি জেলার প্রশাসনিক কর্তাদের আহত পুলিশ কর্মীদের চিকিৎসার ব্যাপারে নজর দেওয়ার নির্দেশও  দেন মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি  জেলা পুলিশ , প্রশাসনের কর্তাদের কাছে থেকে  সেদিনের ঘটনার বিস্তারিত তথ্যও এদিন ফোনে জানেন মুখ্যমন্ত্রী।

VENKATESWAR LAHIRI 

First published: April 17, 2020, 7:35 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर