Mamata Banerjee: 'বুলু কি এসেছে মিটিংয়ে, একবার দেখা করে যা' বলাগড়ে পুরনো বান্ধবীকে খুঁজলেন মমতা

Mamata Banerjee: 'বুলু কি এসেছে মিটিংয়ে, একবার দেখা করে যা' বলাগড়ে পুরনো বান্ধবীকে খুঁজলেন মমতা

বান্ধবীর জব্য় অপেক্ষা মমতার, হুগলির বলাগড়ের সভায়৷

মু্খ্যমন্ত্রী ভেবেছিলেন মঞ্চের সামনে ভিড়ের মধ্যেই হয়তো তাঁর বান্ধবী থাকতে পারেন৷ বান্ধবী যাতে মঞ্চে পৌঁছতে পারেন, সেই ব্যবস্থাও করে দিতে বলেন তিনি৷

  • Share this:

    #বলাগড়: তিনি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী৷ হাজারো ব্যস্ততা, নির্বাচনের জন্য রাজ্যের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ছুটে বেড়াচ্ছেন৷ প্রতিনিদই তাঁকে ঘিরে চেনা- অচেনা হাজারো মুখ৷ তবু এত কিছুর মধ্যেই হুগলির বলাগড়ে জনসভা করতে গিয়ে নিজের পুরনো এক বান্ধবীর খোঁজ করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তৃণমূলনেত্রীর আশা ছিল, কয়েক দশকের পুরনো বান্ধবী হয়তো জনসভায় তাঁকে দেখতে আসতে পারেন৷ শেষ পর্যন্ত অবশ্য খোঁজ করলেও জনসভায় খোঁজ মেলেনি সেই বান্ধবীর৷ যা বুঝতে পেরে মুখ্যমন্ত্রী বললেন, 'না আসুক, আমার কথাটা তো শুনছে৷'

    এ দিন বলাগড়ের তৃণমূল প্রার্থী মনোরঞ্জন ব্যাপারীর সমর্থনে জনসভা করতে যান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ বক্তব্যের একেবারে শেষ দিকে তিনি গুপ্তিপাড়ার রথযাত্রার প্রসঙ্গ তোলেন৷ মমতা বলেন, 'গুপ্তিপাড়া রথযাত্রা হয়৷ মাহেশের রথকে স্মরণ করে জগন্নাথদেবকে প্রণাম জানাই৷' গুপ্তিপাড়ার কথা বলতেই বুলু নামে নিজের পুরনো বান্ধবীর কথা মনে পড়ে যায় মুখ্যমন্ত্রীর৷ রাজনৈতিক প্রসঙ্গ ছেড়ে মমতা বলেন, 'আমার সঙ্গে ছোটবেলায় কাজ করত একটি ছোট্ট মেয়ে, বুলু৷ এখানে ওর বিয়ে হয়েছে গুপ্তিপাড়ায়৷ বুলু কি এসছে মিটিংয়ে? আয় একবার দেখা করে যা৷ আমরা যখন ছাত্র রাজনীতি করতাম তখন ও খুব আসত৷' পুরনো কথা মনে পড়ায় হেসেও ফেলেন মমতা৷ কয়েক মুহূর্তের জন্য অন্য মেজাজে পাওয়া যায় তৃণমূলনেত্রীকে৷

    মু্খ্যমন্ত্রী ভেবেছিলেন মঞ্চের সামনে ভিড়ের মধ্যেই হয়তো তাঁর বান্ধবী থাকতে পারেন৷ বান্ধবী যাতে মঞ্চে পৌঁছতে পারেন, সেই ব্যবস্থাও করে দিতে বলেন মুখ্যমন্ত্রী৷ কিন্তু তাঁর দুর্ভাগ্য সভায় তাঁর বান্ধবী আসেননি৷ মমতা ফের প্রশ্ন করেন, 'বুলু এসছে কি?' বান্ধবী সভায় নেই বুঝতে কিছুটা হতাশ হয়েই মমতা বলেন, 'না আসুক, আমার কথা তো শুনছে৷' এর পরেই অবশ্য রাজনীতির প্রসঙ্গে ফিরে যান মুখ্যমন্ত্রী৷

    রাজনৈতিক সভা, সমাবেশে বার বারই মুখ্যমন্ত্রী দাবি করেন, সাধারণ জীবনযাপন করতেই ভালবাসেন তিনি৷ মুখ্যমন্ত্রী হলেও পাড়া প্রতিবেশীদের কাছে তিনি পাশের বাড়ির মেয়ে, দিদি হয়েই থাকতে পছন্দ করেন৷ সভা সমাবেশে বক্তব্য রাখতে গিয়েও নিজের জীবনের নানা অভিজ্ঞতা গল্পের আকারে সাধারণ মানুষের সঙ্গে ভাগ করে নেন তিনি৷ নিজের রাজনৈতিক জীবনের প্রাক্তন সহকর্মী, বন্ধু এমন পাড়া প্রতিবেশীদের কথাও বহুবার শোনা গিয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর মুখে৷ রাজ্যপাট সামলানো, ভোট বৈতরণীতে দলকে পার করানোর মতো গুরুদায়িত্বের মধ্যেও তাঁদের অনেককেই যে তিনি এখনও মনে রেখেছেন, এ দিন তা ফের একবার বুঝিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী৷ বুলু নামে মুখ্যমন্ত্রীর সেই বন্ধুও হয়তো ভাবতে পারেননি, একদা বন্ধু বর্তমানে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হয়ে যাওয়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এত বছর পরেও তাঁকে মনে রেখেছেন৷ মুখ্যমন্ত্রীর এ দিনের কথা শুনে থাকলে তিনিও হয়তো মনে মনে ভাবছেন, সত্যি যদি পুরনো বন্ধুর সঙ্গে একবার দেখা হত!

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    লেটেস্ট খবর