Mamata in Singur: 'কথা বলেছি আমি, শিল্প হবেই!' শূন্য সিঙ্গুরে স্বপ্নফেরি মমতার

Mamata in Singur: 'কথা বলেছি আমি, শিল্প হবেই!' শূন্য সিঙ্গুরে স্বপ্নফেরি মমতার

সিঙ্গুরে শিল্প-প্রতিশ্রুতি

নন্দীগ্রামের ভোট প্রচার সেরে সেই সিঙ্গুরেই এদিন পৌঁছে গেলেন মমতা। আর সিঙ্গুরে দাঁড়িয়েই তিনি বললেন, 'আমার সঙ্গে কথা হয়েছে। সিঙ্গুরে শিল্প হবেই। অনেক কর্মসংস্থান হবে।'

  • Share this:

    #সিঙ্গুর: নন্দীগ্রামে প্রার্থী হয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর বিপরীতে আবার লড়ছেন এক সময়ের তাঁর অন্যতম সেনাপতি শুভেন্দু অধিকারী। ফলে সবার নজর নন্দীগ্রামে। কিন্তু তৃণমূলের রাজ্যে ক্ষমতা দখলের ক্ষেত্রে নন্দীগ্রামের যেমন ভূমিকা রয়েছে, তেমনই বাংলায় জোড়াফুল ফুটতে সিঙ্গুরের জমির অবদান কম কিছু নয়। শিল্প আর কৃষিজমির সেই লড়াই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে মুখ্যমন্ত্রীর চেয়ারে রাজনীতিতে জোড়াফুলকে জমি দিয়েছে সিঙ্গুর। আর নন্দীগ্রামের ভোট প্রচার সেরে সেই সিঙ্গুরেই এদিন পৌঁছে গেলেন মমতা। আর সিঙ্গুরে দাঁড়িয়েই তিনি বললেন, 'আমার সঙ্গে কথা হয়েছে। সিঙ্গুরে শিল্প হবেই। অনেক কর্মসংস্থান হবে।'

    সিঙ্গুরে এ বার মুখোমুখি জমি আন্দোলনের প্রথম সারিতে থাকা দুই মুখের মধ্যে। এক দিকে বেচারাম মান্না আর অন্যদিকে মাস্টারমশাই রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায়। অর্থাৎ, সিঙ্গুরের ভোটে যে শিল্প ইস্যু উঠে আসবেই, তা বলাই বাহুল্য। আর সেই কারণেই সিঙ্গুরে দাঁড়িয়ে মমতা এদিন বলেন, 'আমি কথা দিচ্ছি, আগামী দিনে সিঙ্গুরে শিল্পাঞ্চল গড়ে উঠবে। আগে অ্যাগ্রো ইন্ডাস্ট্রি হবে। তারপর এখানে বড় শিল্প হবে। আমার কথা হয়েছে।'

    সিঙ্গুর তাঁর কাছে কতটা গুরুত্বপূর্ণ, তা বোঝাতেই মমতা এদিন বলেন, 'সিঙ্গুরের জন্য ১৫০০ কোটি টাকা খরচ করেছি। এখানকার জমিকে চাষযোগ্য করার জন্য অনেক কিছু করেছি। সিঙ্গুরের সেই আন্দোলন এখন পাঠক্রমেও জায়গা পেয়েছে।' বিরোধী বারবার সিঙ্গুরের শিল্প-বন্ধ্যা নিয়ে বিদ্ধ করেছেন মমতাকে। কিন্তু এদিন মমতা তার জবাব দিয়ে বলেন, 'তৃণমূল সরকারে এসে অগুণতি উন্নয়নমূলক কর্মসূচী নিয়েছ। আমি ১১ একর জমি সিঙ্গুরে রেখেছি। সেখানে কৃষিভিত্তিক শিল্প গড়ে তোলা হবে। চিন্তা করবেন না, সেখানে স্থানীয় মানুষদের অনেকেরই কর্মসংস্থান হবে। সিঙ্গুরে বারুইপাড়া পানীয় জল প্রকল্প তৈরি হয়েছে। বিভিন্ন রাস্তা তৈরি হয়েছে।'

    সিঙ্গুরের সভায় এদিন জমি আন্দোলনের প্রসঙ্গ এনে তৃণমূল নেত্রী বলেন, 'এখানকার সাধারণ মানুষ তাঁর আন্দোলনের সাহায্যে এগিয়ে এসেছিলেন। আর যারা সেই আন্দোলনের বিরোধী ছিলেন, আজ তাঁরাই বিজেপির পতাকার তলায় আশ্রয় নিয়েছে। বিজেপির প্রার্থীরা তো সব ধার করা। হয় সিপিএমের হার্মাদ, নাহলে আমাদের কয়েকটা গদ্দার। পুরানো বিজেপিরা কেঁদে কেঁদে মরছে। বেইমান, গদ্দারদের নিয়ে নাকি সরকার গড়বে বিজেপি! ধার চাহিয়া আর লজ্জা দেবেন না।'

    Published by:Suman Biswas
    First published: