Home /News /south-bengal /
Mamata Banerjee: 'জমির মিউটেশনে ২ হাজার', প্রশাসনিক বৈঠকে সাক্ষী নিয়ে দালাল চক্র ফাঁস মমতার

Mamata Banerjee: 'জমির মিউটেশনে ২ হাজার', প্রশাসনিক বৈঠকে সাক্ষী নিয়ে দালাল চক্র ফাঁস মমতার

সরকারি অফিসে দালাল চক্র ফাঁস করলেন মমতা৷ ফাইল ছবি

সরকারি অফিসে দালাল চক্র ফাঁস করলেন মমতা৷ ফাইল ছবি

পুরুলিয়ার প্রশাসনিক বৈঠকে শুরুর দিকেই মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন, পুরুলিয়া জেলার আদিবাসী সমাজের বহু মানুষ জমির মিউটেশন করতে গিয়েও পারছেন না৷

  • Share this:

#পুরুলিয়া: এতদিন প্রশাসনিক বৈঠকে সরকারি কাজে নানা অভিযোগ নিয়ে সরাসরি আধিকারিকদের সতর্ক করতেন৷ এবার সরকারি কাজ করাতে গিয়ে হয়রানির শিকার হওয়া ভুক্তভোগীদের নিয়ে সরাসরি প্রশাসনিক বৈঠকে হাজির হলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ রীতিমতো ভুক্তভোগীদের নাম ধরে ধরে কত টাকা ঘুষ চাওয়া হচ্ছে তা ফাঁস করে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী৷ এ দিন পুুরুিলয়ার প্রশাসনিক বৈঠকেই জমির মিউটেশন করাতে গিয়ে মানুষের হয়রানির অভিযোগে সরব হন মুখ্যমন্ত্রী৷

পুরুলিয়ার প্রশাসনিক বৈঠকে শুরুর দিকেই মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন, পুরুলিয়া জেলার আদিবাসী সমাজের বহু মানুষ জমির মিউটেশন করতে গিয়েও পারছেন না৷ পুরুলিয়ার বলরামপুর ব্লকের বিএলআরও অফিসের দালাল চক্র নিয়ে প্রথমে সরব হন মুখ্যমন্ত্রী৷ জমির মিউটেশন করাতে গিয়ে যাঁদের কাছে ঘুষ চাওয়া হয়েছে, সেরকম বেশ কয়েকটি আদিবাসী পরিবারের সদস্যরা সেই সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন৷

আরও পড়ুন: একশো দিনের কর্মীদের জন্য তৎপর রাজ্য, বড় নির্দেশ দিলেন মুখ্যসচিব

বলরামপুরের আইসি-কে দাঁড় করিয়ে মুখ্যমন্ত্রী প্রশ্ন করেন, 'বলরামপুরের বিএলআরও অফিস চেনেন? অফিসের উল্টো দিকে দুটো দোকান আছে৷ করালি কিঙ্কর এবং প্রিয়াঙ্কা ভ্যারাইটিস৷ বিএলআরও অফিসে জমির মিউটেশন করাতে গেলেই ওই দুটো দোকানে পাঠিয়ে দেওয়া হয়৷ পড়াশোনা না জানা মানুষকে বলছে জমির মিউটেশনের কাজে রেট চালু হয়েছে৷ ১৫০০ থেকে ২০০০, ১০০০ থেকে ২০০০৷ জমির মাপ দেখে তিরিশ হাজার পর্যন্ত হয়েছে৷' অবিলম্বে অভিযোগের তদন্ত করে রিপোর্ট দেওয়ার জন্য আইসি-কে নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী৷

আরও পড়ুন: হাই-মাদ্রাসা পরীক্ষার ফলপ্রকাশ, জেনে নিন কীভাবে, কোথায় দেখবেন result

ক্ষোভের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'যাঁরা পড়াশোনা জানে তাঁরা করে নিচ্ছে৷ কিন্তু এখন কৃষক বন্ধু প্রকল্পের সুবিধা পেেত আদিবাসী সম্প্রদায়ের অনেকেই জমির মিউটেশন করাতে চাইছেন৷ কিন্তু তাঁরা গেলেই টাকা চাওয়া হচ্ছে৷'

বলরামপুরের পর হুদার বিএলআরও অফিস নিয়েও অভিযোগ করেন মমতা৷ রাজেন হেমব্রম নামে একজন ভুক্তভোগীকে দাঁড় করিয়ে মমতা হাতের নথি দেখে বলেন, জমির মিউটেশন করাতে গেলে ওই ব্যক্তির থেকে প্রতি পাতা পিছু একশো টাকা করে চেয়েছে দালাল৷ মাধব মাহাতো এবং যাদব মাহাতো নামে দুই ভাইয়ের থেকেও মিউটেশন করতে মোটা টাকা চাওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেন মুখ্যমন্ত্রী৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Mamata Banerjee, Purulia

পরবর্তী খবর