Assembly Election 2021: লোকসভা নির্বাচনে গড়বেতায় পিছিয়ে ছিল দল, আজ মানুষের উচ্ছ্বাস দেখে প্রত্যয়ী মমতা

Assembly Election 2021: লোকসভা নির্বাচনে গড়বেতায় পিছিয়ে ছিল দল, আজ মানুষের উচ্ছ্বাস দেখে প্রত্যয়ী মমতা

সুশান্ত ঘোষের গড়ে মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সভায় ভিড় দেখে উচ্ছ্বসিত তৃণমূল শিবির।

সুশান্ত ঘোষের গড়ে মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সভায় ভিড় দেখে উচ্ছ্বসিত তৃণমূল শিবির।

  • Share this:

#গড়বেতা: সুশান্ত ঘোষের গড়ে মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সভায় ভিড় দেখে উচ্ছ্বসিত তৃণমূল শিবির। গড়বেতা বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক আশিষ চক্রবর্তীকে সরিয়ে এ বার এই কেন্দ্রে বিধায়ক হিসাবে টিকিট দেওয়া হয়েছে মেদিনীপুর জেলা সভাধিপতি উত্তরা সিং হাজরাকে। প্রার্থী পদ হিসেবে উত্তরা সিং হাজরাকে বেছে নেওয়া, এই কেন্দ্রে তৃণমূলকে সুবিধা দেবে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

লোকসভা ভোটের ফলের হিসেবে ঝাড়গ্রাম আসনের মধ্যে থাকা গড়বেতা আসনে শাসক দল পিছিয়ে ছিল সাত হাজারের কাছাকাছি ভোটে। গড়বেতা আসনে বিজেপি পেয়েছিল ৯১৩২৮ ভোট। তৃণমূল পায় ৮৪৫১৮ ভোট। সিপিএম গড়বেতা আসনে ভোট পায় ১০৩৪৩ ভোট। প্রাপ্ত ভোটের হিসেবে সিপিএম অনেকটাই পিছিয়ে ছিল। গড়বেতার বাম নেতা সুশান্ত ঘোষের ওপরেই নির্ভর করে একাধিক নির্বাচনে জঙ্গলমহলে ভাল ফল করে সিপিএম। যদিও এই গড়বেতা আসন থেকে নয়, পাশের শালবনী আসন থেকে জোট প্রার্থী করেছে বাম নেতা সুশান্ত ঘোষকে। এই শালবনী আসন যা ২০১১ ও ২০১৬ বিধানসভা ভোটে জিতিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসকে৷ ২০১৯ লোকসভা ভোটে শালবনী বিধানসভা আসনেও প্রায় ৮ হাজার ভোটের লিড দিয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস। এই বিধানসভা আসনে বিজেপির প্রাপ্ত ভোট ১ লক্ষ ০৩ হাজার ৭০৬ ভোট। এই আসনে তৃণমূল কংগ্রেস পায় ১ লক্ষ ১২ হাজার ৪৩১ ভোট। এই আসনে বামেদের প্রাপ্ত ভোট সেখানে ১১,০২৪ ভোট। এখানেই চলতি বিধানসভা ভোটে লড়াই করবেন সুশান্ত ঘোষ। ফলে বিধানসভা ভোটে তৃণমূল মনে করছে তারা সুবিধা পাবে।

এ দিন মমতা বন্দোপাধ্যায় গড়বেতার সভা থেকে আক্রমণ শানিয়েছেন বামেদের। তিনি বলেন, "সিপিএম অনেক দেখেছি। সুশান্ত ঘোষ, তপন ঘোষকে দেখেছি। ওই পচা সিপিএম এখন পচা বিজেপি হয়েছে। ওদের একটা ভোটও দেবেন না। জোচ্চুরি দলকে জব্দ করতে হলে আমাদের ভোট দেবেন।" ফলে জঙ্গলমহলের এই আসনে বিজেপিকে আক্রমণ শানানোর পাশাপাশি সিপিএম'কেও কড়া ভাষায় আক্রমণ করেছেন মমতা বন্দোপাধ্যায়।

রাজনৈতিক মহলের মতে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার কেশপুর-গড়বেতার মতো জায়গায় দীর্ঘ দিন ধরে যাতায়াত মমতা বন্দোপাধ্যায়ের। কেশপুর, গড়বেতার মতো জায়গায় রাজনৈতিক সন্ত্রাস দীর্ঘ দিন ধরে দেখেছেন। এই দুই বিধানসভা এলাকায় দীর্ঘ দিন ধরে যাতায়াত করেছেন। ফলে এই জায়গাকে হাতের তালুর মতো চেনেন। এখানেই মমতা বন্দোপাধ্যায় তাই এলাকায় শান্তি ফিরেছে এই ইস্যুকে সামনে রেখে লড়াই করছেন। এ দিন মমতা বলেন, "উত্তরা জেলা পরিষদের সভাধিপতি। আপনারা ওঁকে দীর্ঘদিন ধরে চেনেন। ওঁ অনেক কাজ করেছে। আমরা আগামীদিনে আরও অনেক কাজ করব এখানে।"

তবে এ দিন ফের মমতা বন্দোপাধ্যায় স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন, "এই ভোট দিল্লির নয়। এটা বাংলার ভোট। আপনারা যদি চান আমি থাকি। তাহলে এরা আমার প্রার্থী ওঁদের ভোট দিন। তাহলেই আমি জিতব।" এ দিন গড়বেতা বিধানসভা এলাকার উন্নয়ন নিয়েও কথা বলেছেন তিনি। এই বিধানসভা এলাকায় আলু চাষিদের উন্নয়ন, পর্যটনে গনগনি'কে তুলে আনা সবটাই ভোট প্রচারের সভায় আরও একবার মনে করিয়ে দিয়েছেন মমতা। তবে এ দিনও মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সভায় নজর কেড়েছে মহিলা ভোটারদের উপস্থিতি।

ABIR GHOSHAL

Published by:Shubhagata Dey
First published: