Home /News /south-bengal /
Mamata Banerjee: 'বিয়ের জন্য তাড়াহুড়ো করো না', বর্ধমানের সভা থেকে চমক মুখ্যমন্ত্রীর! তুমুল আক্রমণ বিজেপিকে

Mamata Banerjee: 'বিয়ের জন্য তাড়াহুড়ো করো না', বর্ধমানের সভা থেকে চমক মুখ্যমন্ত্রীর! তুমুল আক্রমণ বিজেপিকে

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা

Mamata Banerjee: বর্ধমানে দাঁড়িয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ''স্বাস্থ্যসাথী কার্ড যারা নেবে না, পুলিশকে আমি বলছি এফআইআর করতে। সঙ্গে সঙ্গে হেলথ ডিপার্টমেন্টকে জানতে হবে।''

  • Share this:

#কলকাতা: সোমবার থেকে তিন দিনের সফরে পূর্ব বর্ধমান,পশ্চিম বর্ধমানে সফরে গেলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। এই সফরে প্রশাসনিক বৈঠকের পাশাপাশি রাজনৈতিক কর্মসূচিও রয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর। সোমবার পূর্ব বর্ধমানের বর্ধমান শহর লাগোয়া গোদা বালির মাঠে সরকারি অনুষ্ঠানে যোগ দেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখান থেকেই বিজেপিকে যেমন আক্রমণ শানান তিনি, তেমনই রাজ্য সরকারের নানা সুযোগ সুবিধার কথাও তুলে ধরেন তিনি।

এদিন বর্ধমানে দাঁড়িয়ে তিনি বলেন, ''স্বাস্থ্যসাথী কার্ড যারা নেবে না, পুলিশকে আমি বলছি এফআইআর করতে। সঙ্গে সঙ্গে হেলথ ডিপার্টমেন্টকে জানতে হবে।'' এরপরই মুখ্যমন্ত্রীর সংযোজন, ''বিয়ের জন্য তাড়াহুড়ো করো না। মা'কে বলো এই সরকার বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ করে দিয়েছে। কর্মসংস্থান মেলার মধ্যে দিয়ে ৩০ হাজার চাকরি রেডি আছে। আমার এখন লক্ষ্য আছে, চাকরি রেডি আছে। আমরা বিজেপির মতো নয়। বিজেপি বলছে চার বছর ট্রেনিং নিয়ে চার বছর চাকরি! তা দিয়ে সারাজীবন চলবে তো? চার বছর এর জন্য নয়, ওই চাকরিটা ৬০ বছরের জন্য দিতে হবে। আমরা দাবি করছি। পারলে ওটা ৬৫ দিতে হবে।''

আরও পড়ুন: রাতে এল ফোন, সকালেই দিল্লি পৌঁছানোর নির্দেশ! সুকান্তকে নিয়ে বিজেপিতে শোরগোল

এরপরই বিজেপিকে আক্রমণ শানাতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ''বিজেপির লোকেরা ১০০ দিনের টাকা বন্ধ করে দিয়েছে। ৬ মাস ধরে টাকা দিচ্ছে না। ১০০ দিনের টাকা দাও, নয়তো বিজেপি বিদায় নাও। বাংলার বাড়ি, বাংলার সড়কের টাকাও আটকে দিয়েছে। আমি একটা প্রতিনিধি দল পাঠিয়েছিলাম। দেখি কী হয়, না হলে আমাকে দিল্লি যেতে হবে সমস্যার সমাধান করতে।''

আরও পড়ুন: হরিদেবপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট শিশুর মৃত্যু, গর্জে উঠলেন ফিরহাদ! দিলেন হুঁশিয়ারিও

বিজেপির দাবি ভোঁতা করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সংযোজন, ''গুজরাতের নামে থাকতে পারে, তাহলে বাংলার নামে থাকতে আপত্তি থাকে। কেন বাংলার নাম দেওয়া হয়েছে, তাই বাংলার বাড়ির টাকা দেবে না, বাংলার সড়কের টাকা দেবে না। বাংলা নাম চলবে। দেশের নামও চলবে। যে সত্যি কথা বলবে তার বিরুদ্ধে ইডি, সিবিআইয়ের ভয় দেখাবে। এইভাবে দেশ চলে? আজও দেখলাম মহারাষ্ট্রের এক নেতার সব সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে দিয়েছে। খোঁজ নিয়ে দেখুন কত ব্যবসায়ী দেশ ছেড়ে চলে গিয়েছেন। এত ভয়ে ভয়ে কেন মানুষ থাকবে?''

Published by:Suman Biswas
First published:

Tags: Bardhaman, Mamata Banerjee, Mamata Rally

পরবর্তী খবর