Mamata Banerjee: 'রাতের বাংলায় অনেক কিছু হতে পারে, এক মাস সতর্ক থাকার সময়!'

মমতার নিশানায় মোদি-শাহরা

বলেন, 'রাতে টহল দাও, কেউ হাল ছেড়ো না। জিতব আমরাই। আমার মা-বোনেরাও সজাগ থাকুন। গদ্দাররা পুলিশের পোশাক কিনে এনে হুমকি দেওয়াচ্ছে। এটা রুখে দিতে হবে।'

  • Share this:

    #পুরশুড়া: ভোটপ্রচারে বেরিয়ে বারবার তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিযোগ করছেন, বিজেপি বহিরাগত গুণ্ডা ঢোকাচ্ছে। রবিবার প্রথমে খানাকুল ও পরে পাশকুড়া থেকেও একই অভিযোগ করলেন মমতা। বলেন, 'রাতে টহল দাও, কেউ হাল ছেড়ো না। জিতব আমরাই। আমার মা-বোনেরাও সজাগ থাকুন। গদ্দাররা পুলিশের পোশাক কিনে এনে হুমকি দেওয়াচ্ছে। এটা রুখে দিতে হবে।'

    এদিনও তৃণমূল কর্মীদের উদ্দেশে আরও সতর্ক হওয়ার বার্তা দিয়ে তিনি বলেন, 'যতক্ষণ ভোট বাক্স সিল না হচ্ছে, কেউ নিজের জায়গা ছেড়ে যাবেন না।' একই সঙ্গে তাঁর বার্তা, 'সাহস না থাকলে তৃণমূলের এজেন্ট হবেন না। ন্যাকা কান্না কাঁদলে হবে না। এই লড়াই বাংলাকে বাঁচানোর লড়াই।'

    প্রথম দু'দফার ভোটের পরই বিজেপি নেতারা দাবি করে আসছেন, ৬০ আসনের মধ্যে ৫০ আসন পাবেনই তাঁরা। এদিন অবশ্য বিজেপির সেই দাবি ফুৎকারে উড়িয়ে দিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী। বলেন, 'আগে তো ৫০টা আসনে জেতো, তারপর ২৯৪-এর কথা বোলো।' প্রধানমন্ত্রী শনিবার বাংলায় এসে দাবি করেন, বিজেপির জয় নিশ্চিত, তাই সরকারি অফিসারদের উচিত এখন থেকেই কাজ শুরু করে দেওয়া। একই সঙ্গে বিজেপির মুখ্যমন্ত্রীর শপথে তিনি আসবেন বলেও তিনি জানিয়েছেন। এদিন সেই প্রসঙ্গেই মমতা তীব্র আক্রমণ শানিয়ে বলেন, 'আগে দিল্লি সামলান। আমার রাজ্য সরকারকে নির্দেশিকা দেওয়ার অধিকার আপনার নেই।'

    নরেন্দ্র মোদি, অমিত শাহকে একযোগে আক্রমণ শানিয়েও মমতা বলেন, 'নরেন্দ্র মোদি, অমিত শাহ রোজ এখানে এসে মিথ্যা কথা বলে যাচ্ছে। দিল্লিতে ৬ বছর থেকেও বাংলার জন্যে একটা কাজও করেনি। কৃষকদের নাকি টাকা পাঠাবে, আমরা তো কৃষকদের লিস্ট পাঠিয়ে দিয়েছি। ওরা আসলে ভালো নাটক করতে পারে। আগে খুন করবে তারপর চোখের জল ফেলবে। বাংলাদেশ গেল, দাঙ্গা বাধালো। রোজ অমিত শাহ পুলিশ অফিসার চেঞ্জ করেছে। আলিপুরদুয়ার, চন্দননগর বদল করল। এরা বদল হল কেন? এরা দেখতে খারাপ? এরা চলতে পারেনা? এরা বাংলার গর্ব। ৫০ আসন পাবেনা তোমরা।'

    Published by:Suman Biswas
    First published: