Mamata Banerjee in Digha: করোনা থেকে উঠেই দুর্যোগ মোকাবিলায় জেলাশাসক, শরীরের যত্ন নিতে বললেন মমতা

পূর্ব মেদিনীপুরের জেলাশাসক পূর্ণেন্দু মাজী (বাঁ দিকে)৷

দিঘায় (Digha) প্রশাসনিক বৈঠকের শেষ দিকে মুখ্যমন্ত্রী (Mamata Banerjee) পূর্ব মেদিনীপুরের জেলাশাসকের উদ্দেশে বলেন, 'কী পূর্ণেন্দু, তোমার শরীর ভাল আছে তো?

  • Share this:

#দিঘা: ইয়াসের মোকাবিলার প্রস্তুতিতে সামনে থেকে গোটা প্রশাসনকে নেতৃত্ব দিয়েছেন৷ প্রায় তিরিশ ঘণ্টা নবান্নে থেকে নিশ্চিত করেছেন, যাতে প্রস্তুতিতে কোনও ফাঁক না থাকে৷ শুক্রবার দিঘায় ইয়াসের জেরে ক্ষয়ক্ষতি নিয়ে পর্যালোচনা বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী বুঝিয়ে দিলেন, প্রয়োজনে কঠোর হলেও সরকারি কর্মী, আধিকারিকদের ভাল মন্দেরও খবর নিতে ভোলেন না তিনি৷

এ রাজ্যে ইয়াসের জেরে সবথেকে বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে পূর্ব মেদিনীপুরের৷ দুর্যোগ মোকাবিলায় প্রতিটি জেলার ক্ষেত্রেই জেলাশাসকদের ভূমিকা ছিল সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ৷ কিন্তু পূর্ব মেদিনীপুরের জেলাশাসক পূর্ণেন্দু মাজী কিছু দিন আগেউ করোনা আক্রান্ত হন৷ আপাতত তিনি সুস্থ৷ কিন্তু সদ্য সুস্থ হয়ে ওঠায় পুরোদস্তুর মাঠে নেমে কাজের তদারকি করা সম্ভব হয়নি তাঁর পক্ষে৷ তবে দুর্যোগের প্রস্তুতিতে বাড়ি থেকেই নিজের যাবতীয় দায়িত্ব পালন করেছেন পূর্ণেন্দুবাবু৷ উপকূলবর্তী এবং নিচু এলাকাগুলি থেকে মানুষকে নিরাপদ সরানো থেকে শুরু করে ত্রাণ সামগ্রী মজুত করা, সবকিছুরই তদারকি করেছেন তিনি৷ ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়ার আগের দিন দিঘায় এসেও প্রস্তুতি খতিয়ে দেখেন তিনি৷

ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়ার আগের দিন নবান্ন থেকেও পূর্ব মেদিনীপুরের জেলাশাসকের কথা আলাদা করে উল্লেখ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী৷ এ দিনও দিঘায় মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসনিক বৈঠকে ভার্চুয়ালি উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসনের আধিকারিক এবং কর্তারা৷ বৈঠকের শেষ দিকে মুখ্যমন্ত্রী পূর্ব মেদিনীপুরের জেলাশাসকের উদ্দেশে বলেন, 'কী পূর্ণেন্দু, তোমার শরীর ভাল আছে তো? নিজেকে অবহেলা করো না৷ তোমার যে রোগটা হয়েছে সেটা অবহেলা করার মতো নয়৷' পূর্ণেন্দুবাবুকে আশ্বস্ত করে মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, 'কেউ কিছু মনে করবে না৷ সবাই জানে তুমি অসুস্থ আছো৷' পূর্ণেন্দুবাবুও মুখ্যমন্ত্রীকে জানান, তিনি ভাল আছেন৷

এ দিন তিনটি প্রশাসনিক বৈঠকেই ত্রাণ বণ্টনে কোনও রকম বঞ্চনা যাতে না হয়, সে বিষয়ে কড়া নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ পাশাপাশি দিঘার বৈঠকে সেচ দফতরেরও কড়া সমালোচনা শোনা গিয়েছে তাঁর গলায়৷ একই সঙ্গে অবশ্য ঘূর্ণিঝড়ের প্রস্তুতিতে ভাল কাজ করার জন্য পূর্ব মেদিনীপুর, উত্তর ও দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার জেলা প্রশাসন এবং সরকারি কর্মী, আধিকারিকদের প্রশংসাও করেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ তিনি বলেন, সরকারি কর্মী, আধিকারিকরা সতর্ক থাকার কারণেই প্রাণঘাতী আকার নিতে পারেনি ঘূর্ণিঝড় এবং তার জেরে তৈরি হওয়া প্রাকৃতিক দুর্যোগ৷

Sujit Bhoumik

Published by:Debamoy Ghosh
First published: