কাজ না করলে ভোট চাইব কোন মুখে, মেমারিতে সবার সামনে কাকে একথা বললেন মমতাবালা?

শুক্রবার মেমারির পারিজাত নগরে মতুয়া মহাসংঘের অনুষ্ঠানে এসেছিলেন মমতাবালা ঠাকুর।

শুক্রবার মেমারির পারিজাত নগরে মতুয়া মহাসংঘের অনুষ্ঠানে এসেছিলেন মমতাবালা ঠাকুর।

  • Share this:

#মেমারি: কাজ না হওয়ার উদাহরণ তুলে ধরে মঞ্চে সর্বসমক্ষে মেমারির বিধায়ক নার্গিস বেগমকে ভৎসনা করলেন তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাক্তন সাংসদ মমতাবালা ঠাকুর। বৃহস্পতিবার পূর্ব বর্ধমানের মেমারিতে এমন ঘটনা ঘটলো। মঞ্চে মেমারির বিধায়ক নার্গিস বেগমকে দাঁড় করিয়ে মমতাবালা বলেন, আপনি কাজ করছেন না তার দায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘাড়ে চাপছে। সরকার ঘর দিচ্ছে অথচ যাদের প্রয়োজন তাদের কাছে তা পৌঁছে দেওয়া যাচ্ছে না। পরিষেবা না দিতে পারলে কোন মুখে বাসিন্দাদের কাছে গিয়ে ভোট চাইব?

শুক্রবার মতুয়া মহাসভার অনুষ্ঠানে এসে এলাকার উন্নয়ন না হওয়ায় প্রশ্নের মুখে পড়েন বনগাঁর প্রাক্তন তৃণমুল সাংসদ মমতাবালা ঠাকুর।মেমারিতে এসে এলাকাবাসীর প্রশ্নের মুখে পড়েন তিনি। মেমারির পারিজাত নগরে মতুয়া মহা সংঘের বাৎসরিক অনুষ্ঠানে এলে এলাকাবাসীরা রাস্তা, শৌচালয়, অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবা,সরকরি প্রকল্পে ঘর তৈরি না হওয়া নিয়ে অভিযোগ করেন।এলাকার উন্নয়নের কাজ না হওয়ায় এলাকাবাসীর সামনে মেমারির বিধায়িকা নার্গিস বেগমকে কাঠগড়ায় তোলেন মমতাবালা। এরপরই তিনি স্থানীয় পঞ্চায়েত সমিতির দায়িত্বপ্রাপ্তদের জেলা পরিষদের মাধ্যমে দ্রুত এলাকার উন্নয়নের কাজ শেষ করার অনুরোধ জানান মমতাবালা কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন এলাকায় কি কি কাজ হয়নি তার তালিকা আমি নিয়ে যাচ্ছি কাজ যাতে হয় তা নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় ভূমিকা তিনি নেবেন বলে আশ্বাস দেন। তবে মেমারির বিধায়ক নার্গিস বেগম এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে চান নি।

শুক্রবার মেমারির পারিজাত নগরে মতুয়া মহাসংঘের অনুষ্ঠানে এসেছিলেন মমতাবালা ঠাকুর।অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মেমারি বিধায়ক নার্গিস বেগম সহ একাধিক তৃণমূল নেতানেত্রী।অনুষ্ঠান মঞ্চে বক্তব্য রাখার সময়ই এলাকার মানুষ রাস্তা না হওয়া থেকে শুরু করে সরকারি ঘর না পাওয়া, শৌচালয় নির্মাণ না হওয়ার অভিযোগ জানান।

মমতাবালা সরাসরি বিধায়িকাকে কাজ না করার জন্য ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আপনাকে বলা সত্ত্বেও আপনি এলাকার মানুষের পাশে না দাঁড়ালে আমরা ভোট চাইবো কি করে। এতে তৃণমূল কংগ্রেসেরই ক্ষতি।পাল্টা প্রতিক্রিয়ায় বিজেপির জেলা নেতা শ্যামল রায়ের দাবি, এলাকার বিধায়ক মানুষকে বঞ্চিত করেছেন। নির্বাচনে জিতে আমরা এলাকার উন্নয়ন করবো।

নাগরিকত্ব আইন নিয়ে ঠাকুর নগরে অমিত শার বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে মমতাবালা বলেন, সারা ভারতে সব কিছু চালু। তাহলে করোনা টীকাকরণের জন্য বাধা হচ্ছে কেন।পেপারস তো সব রেডি আছে। আসলে ভোট বৈতরণী পার হবার জন্য মানুষকে ভাঁওতা দিচ্ছে।যদিও অভিযোগ অস্বীকার করে বিজেপির দাবি তৃণমূল টীকাকরণের সঙ্গে রাজনীতি করছে।তারা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে কথা বলছে।

Saradindu Ghosh

Published by:Debalina Datta
First published: