বিজেপি জানে ওঁদের আমিই হারাতে পারি: মমতা

বিজেপি জানে ওঁদের আমিই হারাতে পারি: মমতা
Photo : News18
  • Share this:

#সিউড়ি: পদ্মশিবিরের হয়ে ভোটের প্রচারে রাজ্যে একের পর এক হেভিওয়েট নেতা ৷ মোদি থেকে রাজনাথ সিং, যোগী থেকে অমিত শাহ রাজ্যে প্রচারে একের পর এক নেতা ৷ বিজেপির প্রচারের এমন আয়োজন দেখে তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কটাক্ষ, হারাতঙ্ক রোগে ভুগছেন মোদি ৷ রোজ বাংলায় এসে কুৎসা করছে ৷ ওঁরা যত আসবে আমার ভোট তত বাড়বে ৷ ওঁরা জানে ওঁদের আমিই হারাতে পারি ৷’

রাজ্যে এসে কেন্দ্রীয় সরকারের সাহায্য নিয়ে গলা ফাটাচ্ছেন মোদি। কিন্তু, তা নিয়ে সিউড়ির জনসভা থেকে পাল্টা তোপ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। কন্যাশ্রীকে নকল করেই বেটি বাঁচাও, বেটি পড়াও প্রকল্প কেন্দ্রীয় সরকারের। কিন্তু, তাতে মোদি সরকারের সাফল্যই নেই। সিউড়ির জনসভায় দাবি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। মোদি সরকার ঠিকমতো নকলও করতে শেখেনি বলেও খোঁচা দিয়েছেন মমতা ৷

গতকাল বোলপুরে উন্নয়ন নিয়ে মমতাকে তোপ মোদির। চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যে সিউড়ির জনসভা থেকে মোদিকে পালটা চ্যালেঞ্জ ছুড়লেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ‘মোদিবাবু আপনি দেখতে পান না ৷ শ্মশান বানাবেন বলছেন, আপনারা তো লোককে মেরে সোজা শ্মশানে পাঠান ৷’

ধর্ম বিভাজনের ইস্যু তুলে ফের বিজেপিকে তোপ মমতার ৷ বলেন, ‘৫ বছর কোনও কাজ করেনি বিজেপি ৷ ৫ বছরে রাম মন্দির করতে পারেনি ৷ বিজেপির হিন্দুত্ব মানি না ৷ উন্নয়ন কেন হয়নি, তার জবাব দিন ৷ ভোট এলে হিন্দু-মুসলমানে ভাগাভাগি ৷’

দেউচা পাঁচামির কোল ব্লকের মউ সাক্ষর নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে তিন বছর ধরে টালবাহানার অভিযোগ মমতার। তাঁর দাবি, ফোন করলেও সাড়া দেন না প্রধানমন্ত্রী। কাজ কেন এগোচ্ছে না তা নিয়ে সিউড়ির জনসভা থেকে কৈফিয়তও দাবি করেছেন।

First published: 05:26:04 PM Apr 25, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर