corona virus btn
corona virus btn
Loading

বিয়েবাড়িতে চুরি হয়েছিল মোবাইল ফোন, ৪ মাস পর ঘটলো অবাক ঘটনা !

বিয়েবাড়িতে চুরি হয়েছিল মোবাইল ফোন, ৪ মাস পর ঘটলো অবাক ঘটনা !

৪ মাস পর সেই বিয়ে বাড়িতে হারিয়ে যাওয়া সাধের মোবাইল ফোনটি নাকি উদ্ধার করেছে পুলিশ

  • Share this:

#বর্ধমান: সপরিবারে বিয়ের অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন পূর্ব বর্ধমানের কালনার মৌ হালদার। সেখানে সবাই যখন আলাপ আলোচনা আড্ডায় মাতোয়ারা তখন মৌদেবীর কিশোর ছেলে মায়ের কাছ থেকে চেয়ে নিয়েছিল অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোনটি। একটু ফাঁকায় বসে একমনে তাতে গেম খেলছিল সে। সেই সুযোগ হাতছাড়া করতে চায়নি নজর রাখা এক দুষ্কৃতী। সেই কিশোরের হাত থেকে ছোঁ মেরে মোবাইল ফোনটি নিয়ে চম্পট দেয় সে। শুকনো মুখে সে কথা মাকে জানাতে দেরি করেনি ওই কিশোর। কিন্তু কে নিল সেই ফোন, তার পরিচয় কী, কেনইবা সে সামলে রাখতে পারেনি ফোনটি - সে সব প্রশ্নের কোনও উত্তরই দিতে পারেনি সেই ছোট্ট ছেলেটি। তার জন্য মায়ের হাতে মার পর্যন্ত খেতে হয় তাকে। এরপর নিয়মরক্ষার মতো কালনা থানায় গিয়ে লিখিত অভিযোগ করেছিলেন মৌ দেবনাথ। যেমন হয়। ধীরে ধীরে সেই মোবাইল ফোন হারানোর কথা ভুলেই গিয়েছিলেন মহিলা। কিন্তু চার মাস পর ঘটলো অবাক কান্ড। থানায় দিয়ে আসা অন্য মোবাইল নম্বরে ফোন এল পুলিশ অফিস থেকে। ৪ মাস পর সেই বিয়ে বাড়িতে হারিয়ে যাওয়া সাধের মোবাইল ফোনটি নাকি উদ্ধার করেছে পুলিশ। সেই ফোন ফেরত দিতেই যোগাযোগ করেছিল পুলিশ। বৃহস্পতিবার বর্ধমানে পুলিশ অফিসে গিয়ে জেলা পুলিশ সুপারের হাত থেকে সেই ফোন পেলেন মৌদেবী। এমনটা যে ঘটবে তা তিনি ভাবতেই পারেননি।

এদিন এমনই একশো জনের হাতে হারানো মোবাইল ফোন তুলে দিল পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ। কেউ পরীক্ষা দিতে গিয়ে মোবাইল ফোন হারিয়ে এসেছিলেন। আবার কারও ফোন অসাবধানের কারনে চুরি হয়েছিল। এরকমই জেলার বিভিন্ন থানা এলাকায় একশোটি স্মার্টফোন উদ্ধার করে ফিরিয়ে দিল পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ। পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায় জানান, এই উদ্ধার হওয়া মোবাইলের মধ্যে ২০১৮ সালে চুরি যাওয়া বা হারিয়ে যাওয়া মোবাইল সেটও রয়েছে। মাস তিনেক আগে একইভাবে ৫৮টি মোবাইল ফিরিয়েছে পুলিশ। তিনি বলেন, প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে বেশিরভাগ ফোন উদ্ধার সম্ভব হয়েছে। আবার এখনও নাগাল পাওয়া যায়নি এমন ফোনও রয়েছে। সেগুলি উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। তবে মোবাইল ফোন সঙ্গে থাকলে তা যাতে না বেহাত হয় সে ব্যাপারে সদা সজাগ থাকার পরামর্শও দিচ্ছেন পুলিশ আধিকারিকরা।

Saradindu Ghosh

First published: February 28, 2020, 9:59 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर