একদা বামদুর্গ আরামবাগ বদলেছে আগেই, বহু রাজনৈতিক উত্থানপতনের সাক্ষী এই কেন্দ্র

একদা বামদুর্গ আরামবাগ বদলেছে আগেই, বহু রাজনৈতিক উত্থানপতনের সাক্ষী এই কেন্দ্র
  • Share this:

#আরামবাগ: একাধিক রাজনৈতিক উত্থানপতনের সাক্ষী এই কেন্দ্র। একদা বামদুর্গ আরামবাগ এখন সবুজ-গড়। সেই আরামবাগেই ভোট আগামিকাল। কিন্তু, প্রতিবার ভোটেই রক্ত ঝরেছে আরামবাগে। চেনা গণ্ডি ছাড়িয়ে কি এবার ভিন্নখাতে বইবে রাজনীতির গতি ?

আরামবাগ আর অনিল বসু যেন মিলেমিশে একাকার। এমনটাই মিথ ছিল হুগলি জেলার এই লোকসভা কেন্দ্রে। সাংসদ হিসেবে রেকর্ড ভোটে জয়। দোর্দণ্ডপ্রতাপ সিপিএম নেতা। তাঁর হাঁকডাকে যেন বাঘে-গরুতে একঘাটে জল খায়। এসব বিশেষণই উঠে আসত বারবার। কিন্তু, রাজ্যে পরিবর্তনের পর বেশিদিন আর টিকে থাকতে পারেনি সেই বামদুর্গ।

২০১৪-য় বামপ্রার্থী শক্তিমোহন মালিককে হারিয়ে আরামবাগে জোড়াফুল ফোটান অপরূপা পোদ্দার ৷ এরপরই, একটু একটু করে লালদুর্গের পতন শুরু হয় । গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে একচ্ছত্রভাবে জয় ছিনিয়ে নিয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস ৷ কেন্দ্রের ৭ বিধানসভাই তৃণমূলের দখলে ৷ গ্রাম পঞ্চায়েত, পঞ্চায়েত সমিতি ও জেলা পরিষদ আসন জোড়াফুলের দখলে ৷

২০১৪ সালে ৩ লক্ষেরও বেশি ভোটে জয় অপরূপা পোদ্দারের। শনিবারই, তাঁর হয়ে চন্দ্রকোণায় পদযাত্রা করেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ ভোট শতাংশের হিসেবে বাম ও বিজেপির মিলিত শক্তির থেকে অনেকটা এগিয়ে অপরূপা। নিশ্চিত আসন। তবে কাঁটাও রয়েছে

১৯৯৮-এ কুখ্যাত কেশপুর লাইন। তার জের পড়েছিল পশ্চিম মেদিনীপুর লাগোয়া আরামবাগেও। সন্ত্রাস ছড়িয়েছিল হুগলির গোঘাট, খানাকুল বা পুরশুড়াতেও। ভোট আর সন্ত্রাস যেন মিলেমিশে একাকার এই আরামবাগে। রক্তাক্ত হওয়ার সেই অভ্যাস ছেড়ে কি বেরোতে পারবে আরামবাগ ?

একনজরে আরামবাগ লোকসভা কেন্দ্র ৷ এই কেন্দ্রে মাইক্রো অবজারভার থাকবেন ৪১১ জন ৷ ভিডিও ক্যামেরা থাকবে ৫০ টি ৷ ২২৭ টি সিসিটিভি মারফত নজর রাখা হবে ৷ ২১৪টি বুথে চলবে ওয়েব কাস্টিং ৷ মোট ৯৫৩ রকমের কমিশনের পর্যবেক্ষণের আওতায় থাকবে পঞ্চম দফার ভোট ৷

First published: 07:37:43 PM May 05, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर