corona virus btn
corona virus btn
Loading

এখনও চলছে লকগেট মেরামতির কাজ, জল শূন্য দুর্গাপুর ব্যারাজ

এখনও চলছে লকগেট মেরামতির কাজ, জল শূন্য দুর্গাপুর ব্যারাজ
Photo: Durgapur Barrage

জল শূন্য দুর্গাপুর ব্যারাজ ! এখনও চলছে লকগেট মেরামতির কাজ ৷

  • Share this:

#দুর্গাপুর: জল শূন্য দুর্গাপুর ব্যারাজ ! এখনও চলছে লকগেট মেরামতির কাজ ৷ এর জন্য বন্ধ দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চলের জল সরবরাহ ৷ দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানার পাশাপাশি জল পাচ্ছে না ডিভিসির তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রও ৷ বন্ধ দুর্গাপুরে পানীয় জল পরিষেবাও ৷

শুক্রবার ভোর পাঁচটা। আচমকাই দুর্গাপুর ব্যারাজের এক নম্বর লকগেট থেকে হু হু করে জল বেরিয়ে যেতে দেখেন ডিভিসি-র কর্মীরা। সমস্যা যে কোথায় তা ধরতেই কেটে যায় বেশ কিছুক্ষণ। অবশেষে বোঝা যায় এক নম্বর লকগেটটি যে চ্যানেলের উপর ছিল তা সরে গিয়েছে ৷ গেটের নীচের দিকের অংশ চ্যানেল থেকে সরে যেতেই বেরিয়ে যাচ্ছে জল ৷

পরিস্থিতির গুরুত্ব আন্দাজ করে মেরামতিতে নামে ডিভিসি কর্তৃপক্ষ। প্রথমে কপিকলের সাহায্যে চেন ও কেবলের মাধ্যমে গেটটিকে সোজা করার চেষ্টা করা হয় ৷ কিন্তু গার্ডওয়াল সেই চাপ সহ্য করতে না পারায় তা বাতিল করতে হয়। এরপর, ক্রেনের সাহায্য নেন ডিভিসি-র ইঞ্জিনিয়াররা।ক্রেনের মাধ্যমে লকগেটটি সোজা করার চেষ্টা করা হয় ৷ কিন্তু, তাও ব্যর্থ হয়। শেষপর্যন্ত কলকাতা থেকে সেচ দফতরের একটি বিশেষ দল রওনা দেয়।  এমন পরিস্থিতি নিয়ে কেন্দ্রকে বিঁধেছেন রাজ্যের সেচমন্ত্রী। তবে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় জারি মেরামতি।

অন্যান্য বছর এই সময়ে সাধারণত ২১১ ফুট জল থাকে দুর্গাপুর বাঁধে। কিন্তু, লকগেট বেঁকে যাওয়ায় তার পরিমাণ খানিকটা কমেছে। এই পরিস্থিতি চলতে থাকলে জলসঙ্কট হতে পারে দুর্গাপুর ও আশপাশের এলাকায়।

দুর্গাপুরে জলসঙ্কটের আশঙ্কা

- শিল্পাঞ্চলে জলের সমস্যা দেখা দিতে পারে - আশপাশের এলাকায় সেচের জলের সমস্যা তৈরি হতে পারে - এছাড়াও, এলাকায় সার্বিক ভাবে জলের সমস্যা দেখা দিতে পারে

নিম্ন দামোদরে প্লাবনের আশঙ্কা নেই বলে জানিয়েছে ডিভিসি কর্তৃপক্ষ। তবে, আগাম সাবধানতা হিসেবে মাইথন জলাধার থেকে জল ছাড়তে নিষেধ করা হয়েছে। কিন্তু, বাঁধের একেবারে শেষ অংশে এমন বিপত্তি আশঙ্কা জিইয়ে রাখল।

First published: November 25, 2017, 1:39 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर