corona virus btn
corona virus btn
Loading

আপাতত লকডাউন থাকছে না বর্ধমানে, বৃহস্পতিবার থেকে খুলবে দোকান বাজার

আপাতত লকডাউন থাকছে না বর্ধমানে, বৃহস্পতিবার থেকে খুলবে দোকান বাজার

বুধবার বিকেলে জেলা প্রশাসন এক বৈঠকে পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে।

  • Share this:

#‌বর্ধমান:‌ আপাতত লকডাউনের মেয়াদ বাড়ছে না পূর্ব বর্ধমান জেলার পুর শহরগুলিতে। করোনার সংক্রমণ ব্যাপকভাবে বেড়ে যাওয়ায় গত বুধবার থেকে বর্ধমান শহরে লকডাউন চলছিল। মঙ্গলবার সেই মেয়াদ শেষ হয়। বুধবার রাজ্যের নির্দেশে লকডাউন পালন করা হয়েছে। অন্যদিকে করোনার সংক্রমণ উদ্বেগজনক ভাবে বেড়ে যাওয়ায় রবিবার থেকে মঙ্গলবার পর্যন্ত একটানা লকডাউনের নির্দেশ জারি হয় কালনা, কাটোয়া, মেমারি পৌরসভা এলাকা ও শহর লাগোয়া দশটি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়। ওই এলাকাগুলিতেও বুধবার দিনভর লকডাউন চলেছে।

বুধবার বিকেলে জেলা প্রশাসন এক বৈঠকে পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে। ভিডিও কনফারেন্সে জেলার বিভিন্ন প্রান্তের পরিস্থিতি খতিয়ে দেখা হয়। জেলাশাসক বিজয় ভারতীয় নেতৃত্বে ওই বৈঠকে জেলা স্বাস্থ্য দফতরের পদস্থ আধিকারিকরা ও জেলা প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট আধিকারিকরা সকলেই উপস্থিত ছিলেন। সেই বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে বুধবারের পর আপাতত আর এই লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো হচ্ছে না। অর্থাৎ বৃহস্পতিবার থেকে জেলার দোকান বাজার খুলবে। পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে আগামী সপ্তাহে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জেলা প্রশাসন জানিয়েছে। লকডাউনের মেয়াদ না বাড়লেও রাজ্যের ঘোষিত দিনগুলিতে পুরোপুরি লকডাউন চলবে। সেই সঙ্গে কন্টেইনমেন্ট জোনগুলিতেও কড়াকড়ি লকডাউন পালিত হবে।

করোনার সংক্রমণ ব্যাপকভাবে বেড়ে যাওয়ায় ও তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে মৃত্যুর সংখ্যা বাড়তে থাকায় জেলা প্রশাসন সোমবার রাতেই বর্ধমান শহরে মাইকিং করে মঙ্গলবার সবজি বাজারও বন্ধ রাখার নির্দেশ জারি করে। ব্যাঙ্কও বন্ধ করে দেওয়া হয়। কোনও সবজি বাজার বসতে দেওয়া হয়নি। মুদিখানা দোকানও বন্ধ করে দেওয়া হয়।

বর্ধমান শহরের পাশাপাশি কালনা, কাটোয়া, মেমারি শহরেও কড়াকড়ি লকডাউন করতে প্রশাসনিক তৎপরতা লক্ষ্য করা গিয়েছিল। তবে বাসিন্দাদের প্রশ্ন, হঠাৎ করে পরিস্থিতির কি এমন উন্নতি ঘটলো যে লকডাউন থেকে পুরোপুরি সরে এল জেলা প্রশাসন? পরিস্থিতি যদি এতটাই উন্নতি ঘটে থাকে তবে মঙ্গলবার এত কড়াকড়ি লকডাউন করা হলো কেন? তাঁদের প্রশ্ন, কোন পরিসংখ্যান দেখে লকডাউন তুলে নিল জেলা প্রশাসন। সেভাবে যখন পরীক্ষাই হচ্ছে না তখন সংক্রমণ বাড়ল না কমল। তা কিসের ভিত্তিতে নির্ধারণ করলো জেলা প্রশাসন? সব মিলিয়ে প্রশাসনের এই পদক্ষেপ নিয়ে প্রশ্ন তুলতে ছাড়ছেন না জেলার বাসিন্দারা।

Saradindu Ghosh

Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: July 29, 2020, 8:56 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर