Home /News /south-bengal /
গ্রামে নেই পোস্ট অফিস, ঘুরপথে চিঠি-গুরুত্বপূ্র্ণ নথি পেতে হিমশিম বাসিন্দারা

গ্রামে নেই পোস্ট অফিস, ঘুরপথে চিঠি-গুরুত্বপূ্র্ণ নথি পেতে হিমশিম বাসিন্দারা

Representational Image

Representational Image

গ্রাম পশ্চিমবঙ্গে। অথচ ডাকঘর ঝাড়খণ্ডে। সমস্ত চিঠিপত্র নিয়মমাফিক প্রথমে চলে যায় দেওঘর।

  • Share this:

    #বর্ধমান: গ্রাম পশ্চিমবঙ্গে। অথচ ডাকঘর ঝাড়খণ্ডে। সমস্ত চিঠিপত্র নিয়মমাফিক প্রথমে চলে যায় দেওঘর। সেখান থেকে ঘুরে ঝাড়খণ্ডের মিহিজামে এসে জমা হয়। এমনই অদ্ভূতুড়ে ঠিকানায় চরম বিপাকে পড়েছেন আসানসোলের সীমান্তবর্তী দুটি গ্রামের কয়েকশো মানুষ।

    হিন্দুস্থান কেবলস ডাকঘরের সঙ্গে তাঁদের যুক্ত করা হোক। না হলে দুটি গ্রামের জন্য নতুন পোস্ট অফিস তৈরি করে দেওয়া হোক। এমনই দাবি করেছেন স্থানীয়রা ৷

    পশ্চিম বর্ধমানের সালানপুর ব্লকের আল্লাডি গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত ডোমদহা ও ধাঙ্গুরি গ্রাম। ঠিকানা পশ্চিমবঙ্গ। অথচ ডাকঘর বলছে ঝাড়খণ্ড। ডাকঘরের হিসেবে ভোটার কার্ড বা অন্যান্য নথিতে ঝাড়খণ্ডের পিন নম্বর থাকছে ৮১৫৩৫৪। যদিও আধার কার্ডে পিন নম্বর নতুন গড়ে ওঠা হিন্দুস্থান কেবলস পোস্ট অফিসের নম্বর, অর্থাৎ ৭১৩৩৩৫ । ৩০-৪০ বছর ধরে চলা এই সমস্যার সমাধান হয়নি আজও।

    সময়ে খবর মেলে না। পৌঁছয় না চাকরির কলও। সমস্যা আধার কার্ড তৈরি নিয়েও। তড়িঘড়ি আধার তৈরির জন্য রূপনারায়ণপুরে হিন্দুস্থান কেবলস পোস্ট অফিসকেই দেখানো হয়েছে। আধার কার্ড তৈরি হলেও নথিতে থেকে যাচ্ছে ভুল।

    ১০০ দিনের কাজে টাকা দিতে সমস্যা। ঠিকানা ভুল থাকায় সমস্যা ব্যাঙ্কে টাকা দেওয়ার ক্ষেত্রেও। অনলাইনে ফর্ম ফিলাপ করলে নথির বিবরণ নেয় না সিস্টেম। মেধা থাকলেও চাকরিতে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে অদ্ভূতুড়ে এই ঠিকানা।

    সব জেনেও ভুল সংশোধনের উদ্যোগ নেই প্রশাসনের। অভিযোগ এলাকাবাসীর। আগে গ্রামে ডাকঘর ছিল না। কাছের পোস্ট অফিস বলতে ঝাড়খণ্ড। সেখান থেকেই শুরু সমস্যার। এলাকাবাসীর দাবি, হিন্দুস্থান কেবলস ডাকঘরের সঙ্গে তাঁদের যুক্ত করা হোক। না হলে দুটি গ্রামের জন্য নতুন পোস্ট অফিস তৈরি করে দেওয়া হোক।

    First published:

    Tags: Asansol, Hindustan Cables, Post office

    পরবর্তী খবর