পুরনো খবরের কাগজের মতো ব্যবহৃত প্লাস্টিক প্যাকেটও এ বার বিক্রি করা যাবে

পুরনো খবরের কাগজের মতো ব্যবহৃত প্লাস্টিক প্যাকেটও এ বার বিক্রি করা যাবে
প্লাস্টিক প্যাকেট

হাওড়ার একটি অনুষ্ঠানে এসে রাজ্য পরিবেশ দফতরের সদস্য সচিব রাজেশ কুমার জানান, শহরবাসী সকালে খবরের কাগজ পড়ার পর সেই কাগজ সযত্নে রেখে দেন৷

  • Share this:

Debasish Chakraborty

#হাওড়া: পুরোনো খবরের কাগজের মতো এবার পুরোন ব্যবহৃত প্লাস্টিক প্যাকেট বেচতে পারবেন কলকাতা ও পার্শ্ববর্তী এলাকার বাসিন্দারা৷ রাজ্য দূষণ পর্ষদ নিয়ন্ত্রণ ও রাজ্য সকারএই অভিনব ব্যবস্থা করতে চলছে৷

হাওড়ার একটি অনুষ্ঠানে এসে রাজ্য পরিবেশ দফতরের সদস্য সচিব রাজেশ কুমার জানান, শহরবাসী সকালে খবরের কাগজ পড়ার পর সেই কাগজ সযত্নে রেখে দেন৷ কারণ সেই কাগজ বিক্রি করে কিছু টাকা পাওয়ার আসায়۔৷ কিন্তু প্যাকেট দুধ ও দই কিনে সেই প্লাস্টিকের প্যাকেট যত্রতত্র ফেলে দেন۔৷ সেই পেকেট থেকেই পরিবেশে ছড়াচ্ছে দূষণ۔৷ প্লাস্টিক প্যাকেটের ফলে জমছে আবর্জনা৷ সেখান থেকে শহরে জল জমার সমস্যা বাড়ছে۔৷ এই সমস্যা গুলি থেকে মুক্তি পেতেই এই অভিনব ভাবনা۔৷

তাঁর দাবি, কলকাতা শহরেই প্রতিদিন প্রায় দুই লক্ষ প্লাস্টিক প্যাকেটে দুধ ও দই বিক্রি হয় এবং তার ৭৫ শতাংশ প্যাকেটে ডাস্টবিনে বা নর্দমাতে ফেলা হয়৷۔ শুধু কলকাতা শহরেই প্রতিদিন ২ লক্ষ প্যাকেট ব্যবহৃত হয়৷ এছাড়া শহরতলি অঞ্চলগুলিতে পরিমান আরও বেশি৷۔ প্রাথমিক ভাবে কলকাতায় এই প্রকল্প চালু করা হবে ধীরে ধীরে৷ কলকাতার পাশের জেলাগুলিতেও۔ এই প্রকল্প চালু করতে সাহায্যের হাত বাড়াচ্ছেন বিভিন্ন প্যাকেজড ফুড কোম্পানির৷

তাই আজ থেকেই ব্যবহৃত প্লাস্টিক প্যাকেট বাইরে না-ফেলে জমাতে শুরু করতে পারেন৷ নিজের বাড়িতেই۔ ব্যবহৃত প্যাকেটগুলি বিক্রির তিন রকম দাম পাওয়া যাবে৷ প্রথমত, প্যাকেট ধুয়ে বিক্রি করলে এক দাম ও না-ধুয়ে বিক্রি করলে আরেক দাম৷ ۔দ্বিতীয়ত, প্যাকেট ব্যবহারের সময় সেটিকে কী ভাবে কাটা হচ্ছে, যদি সামান্য কাটা হয় তার জন্য এক দাম আবার সিল করা প্যাকেটের দেখানো অংশে কাটা হলে তার জন্য মিলবে অনেক বেশি দাম৷

অনুষ্ঠানে উপস্থিত রাজ্য দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের চেয়ারম্যান কল্যাণ রুদ্র রাজ্য সরকারের এই প্রকল্পকে সাধুবাদ জানান৷۔ কল্যাণ জানান, এই বছর রাজ্য দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদ দূষণ নিয়ন্ত্রণে দেশের সেরা পুরস্কার পেলেও হাওড়ার ঘুসুড়ি, বালি ও লিলুয়ার বর্তমান বায়ুদূষণের হাল নিয়ে যথেষ্ট দুশ্চিন্তার৷

আজ হাওড়া পুরসভা، রাজ্য দূষণ পর্ষদ ও রাজ্য পরিবেশ দফতরের পরিচালনায় ও বেশ কয়েকটি এলপিজি গ্যাস সরবরাহের সাহায্যে রাস্তার ধরে খাদ্য সরবরাহ ব্যবসায়ীদের হাতে তুলে দেওয়া হয় গ্যাস কানেকশন অনুমতিপত্র৷۔ মূলত রাস্তার ধরে যে সব হোটেল ও ফাস্টফুড দোকান রয়েছে বেশিরভাগ জায়গায় কয়লা জ্বালিয়ে রান্না করা হয়৷۔ কয়লার ধোঁয়া বাতাসে সব থেকে বেশি দূষণ ছড়াচ্ছে۔৷ তার থেকে মুক্তি পেতেই এই প্রকল্প চালু করা হয়েছে৷ আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই বাড়ি বাড়ি থেকে প্লাস্টিকের প্যাকেট কেনা বেচার কাজ শুরু করবে রাজ্য সরকার, জানালেন পরিবেশ দফতর সদস্য সচিব রাজেশ কুমার৷ ۔

First published: 08:46:26 PM Dec 04, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर