উত্তরে ঝেঁপে বৃষ্টি, শুকনো দক্ষিণ, বৃষ্টির ঘাটতিতে প্রভাব সব্জি বাজারে

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jul 16, 2019 04:29 PM IST
উত্তরে ঝেঁপে বৃষ্টি, শুকনো দক্ষিণ, বৃষ্টির ঘাটতিতে প্রভাব সব্জি বাজারে
Photo: News 18 Bangla
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jul 16, 2019 04:29 PM IST

#কলকাতা: উত্তরের অঝোর বৃষ্টিতে উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর থেকে কমেছে লঙ্কার আমদানি। ফলে দাম বেড়েছে লঙ্কার। উত্তর চব্বিশ পরগনার বনগাঁ, হেলেঞ্চা, গোপালনগর-সহ বিভিন্ন বাজারে প্রতি কিলো লঙ্কা বিকোচ্ছে একশো আশি টাকায়। ক'দিন আগেও এক কিলো লঙ্কার দাম িছল তিরিশ থেকে চল্লিশ টাকা। শুধু লঙ্কা নয়। বৃষ্টি কম হওয়ায় কমছে সবজির ফলন। সিঙ্গুর-সহ হুগলির বিভিন্ন বাজারে দামি টমেটো, ঝিঙে,বেগুন, পটল-সহ বিভিন্ন সব্জি। প্রতি সব্জির দাম কিলো প্রতি তিরিশ থেকে চল্লিশ টাকা বেড়েছে। জলের অভাবে শুকিয়ে যাওয়ায় চাহিদা কমেছে শাকের। বাজারে পড়ে নষ্ট হচ্ছে শাক।

বাজার আগুন নদিয়াতেও। কৃষ্ণনগর বাজারে সব্জিতে হাত দিলেই লাগছে ছেঁকা। শুধু কাঁচালঙ্কা নয়, দাম বেড়েছে পটল, পেঁপে, বেগুন, উচ্ছে, ফুলকপি, কাঁকরোল, কুমড়োর। আষাঢ়ের প্রথমে বর্ষার ধান রোয়ার কাজ শুরু হয়। এবার আষাঢ় শেষ হতে চলল। তবু দেখা নেই বর্ষার। জমি শুকিয়ে কাঠ। পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটাল মহকুমায় কৃষকদের একমাত্র ভরসা এখন সেচের জল। মাঠে পাম্প চালিয়ে মাটির তলা থেকে জল তুলে চলছে চাষ। যেখানে সেচের সুবিধা নেই, সেখানে বন্ধ চাষ। আয় কমার আশঙ্কায় কৃষকরা।

সব্জির বাজার চড়া বারুইপুরেও। বৃষ্টি না হওয়ায় শুকিয়ে যাচ্ছে গাছ। বারুইপুরের পেয়ারার ফলনেও ধাক্কা। জল না পেয়ে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে পেয়ারা। সব মিলিয়ে ক্রেতা-বিক্রেতা, সকলেই দিশেহারা।খাতায়-কলমে বর্ষা এলেও, বৃষ্টির দেখা নেই সেভাবে। দক্ষিণবঙ্গে জুড়ে এখন বৃষ্টির জন্য হাহাকার। বৃষ্টির অভাবে হেঁশেল এখন আগুন।

First published: 04:28:42 PM Jul 16, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर