corona virus btn
corona virus btn
Loading

বিকেল নামলেই বাস অমিল, সমস্যায় দুই বর্ধমান জেলার বাসিন্দারা

বিকেল নামলেই বাস অমিল, সমস্যায় দুই বর্ধমান জেলার বাসিন্দারা

পূর্ব বর্ধমান জেলায় অনেক বেসরকারি বাসই পথে নামেনি। অনেক রুটে আগে তুলনায় অনেক কম বাস চলছে।

  • Share this:

#বর্ধমান: সন্ধ্যা নামার আগেই রাস্তা থেকে উধাও হয়ে যাচ্ছে আসানসোল-বর্ধমান রুটের বেসরকারি বাস। তার ফলে সমস্যায় পড়ছেন দুই বর্ধমান জেলার বাসিন্দারা। আনলক ওয়ানের তিন সপ্তাহ পরও পূর্ব বর্ধমান জেলায় অনেক বেসরকারি বাসই পথে নামেনি। অনেক রুটে আগে তুলনায় অনেক কম বাস চলছে। ফলে রাস্তায় রোদ বৃষ্টি মাথায় নিয়ে দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষার পর নিরুপায় হয়েই ভিড় বাসে উঠতে বাধ্য হচ্ছেন যাত্রীরা। দুই জেলার বাসিন্দারাই বলছেন, আসানসোল, দুর্গাপুর, বর্ধমান রুটে বেসরকারি বাস এমনিতেই কম থাকে। করোনা আবহে সেই সংখ্যা আরও অনেকটাই কমে গিয়েছে। তার ফলেই চরম সমস্যার মধ্যে পড়তে হচ্ছে পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান জেলার বাসিন্দাদের।

চিকিৎসার প্রয়োজনে প্রতিদিনই বহু পুরুষ মহিলা আসানসোল দুর্গাপুর মহকুমা থেকে পূর্ব বর্ধমানের সদর শহর বর্ধমানে আসছেন। ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকায় বাসই যাতায়াতের এখন অন্যতম মাধ্যম। কিন্তু প্রয়োজনীয় সংখ্যক বাস না থাকায় সমস্যায় পড়তে হচ্ছে বাসিন্দাদের। তাঁরা বলছেন, চিকিৎসা করাতে অনেক সময় লেগে যায়। সন্ধ্যার মধ্যে সে কাজ না মেটানো গেলে বাড়ি ফেরার বাস পাওয়াই মুশকিল হয়ে দাঁড়াচ্ছে। এমনিতেই বিকেলের পর বর্ধমান থেকে আসানসোল, বরাকর, চিত্তরঞ্জন যাওয়ার বাস মেলেনা। তার ওপর এই এখন লকডাউনের পর সেই বাসের সংখ্যা আরও কমে গিয়েছে। তারই জেরে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে বাসিন্দাদের।

বাস মালিকরা বলছেন, বর্ধমান আসানসোল,বর্ধমান বরাবর বা বর্ধমান চিত্তরঞ্জন দূরপাল্লার রুট। এই রুটে একবার বাস চালানো মানে প্রচুর টাকার জ্বালানি তেল লাগে। তাই বাস ভর্তি না হলে মোটা টাকা লোকসানের আশঙ্কা থেকেই যায়। সরকারি বাস চলাচলের পর থেকেই এই রুটে বেসরকারি বাসের আয় একেবারেই কমে গিয়েছে। অনেক যাত্রী ধর্মতলা করুণাময়ী থেকে আসানসোল দুর্গাপুরের রুটের বাসে যাতায়াত করছেন। সরকারি বাস ঘনঘন চলায় বেসরকারি বাসে উঠতে চাইছেন না অনেকেই। সেই কারণেই এই রুটে বেসরকারি বাস চালানোয় আগ্রহ হারাচ্ছেন মালিকরা। তাঁরা বলছেন, এখন যাত্রীদের সমস্যা হচ্ছে ঠিকই। কিন্তু লোকাল ট্রেন চলাচল শুরু হয়ে গেলে তখন আর বাসে যাত্রী মিলবে না। অনেকেই তখন আসানসোল, দুর্গাপুর, রাণীগঞ্জ থেকে ট্রেনে বর্ধমান যাতায়াত করবেন।

Saradindu Ghosh

Published by: Ananya Chakraborty
First published: June 24, 2020, 8:03 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर