৬ মাসের জন্য ছুটিতে বীরভূমের জেলা পরিষদ সভাধিপতি, দুর্নীতির অভিযোগে ব্যবস্থা, নাকি নিজেই ছুটি চেয়েছেন?

৬ মাসের জন্য ছুটিতে বীরভূমের জেলা পরিষদ সভাধিপতি, দুর্নীতির অভিযোগে ব্যবস্থা, নাকি নিজেই ছুটি চেয়েছেন?

এমনটা সচরাচর ঘটেনা। সেটাই যখন ঘটল, তখন বিতর্ক তো হবেই। ৬ মাসের জন্য ছুটি চেয়ে আবেদন করেছেন বীরভূমে জেলা পরিষদের সভাধিপতি বিকাশ রায়চৌধুরী।

  • Share this:

SUPRATIM DAS

#বীরভূম: ৬ মাসের জন্য ছুটিতে বীরভূমের জেলা পরিষদ সভাধিপতি বিকাশ রায়চৌধুরী। দুর্নীতির অভিযোগ ওঠায় ব্যবস্থা নাকি নিজেই ছুটি চেয়েছেন? জল্পনায় জল ঢালতে উদ্যোগী হলেন তৃণমূল শীর্ষনেতৃত্ব। বীরভূমে দলের পর্যবেক্ষক ফিরহাদ হাকিমের দাবি, জেলা সভাধিপতির বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলার অবকাশ নেই। তাই ব্যবস্থা নেওয়ার প্রশ্নও আসছে না।

এমনটা সচরাচর ঘটেনা। সেটাই যখন ঘটল, তখন বিতর্ক তো হবেই। ৬ মাসের জন্য ছুটি চেয়ে আবেদন করেছেন বীরভূমে জেলা পরিষদের সভাধিপতি বিকাশ রায়চৌধুরী। এর আগে খয়রাশোলের পর্যবেক্ষক পদ থেকে বিকাশকে সরিয়ে দেয় দল। দলীয় নেতৃত্বের সঙ্গে তাঁর দুরত্ব বাড়ানো নিয়েও জল্পনা চলছিল। তাই খোদ জেলা সভাধিপতি এত লম্বা ছুটি চাওয়ায় স্বভাবতই প্রশ্ন ওঠে, এটা কী পদ থেকে সরানোর প্রথম ধাপ?

এই জল্পনায় জল ঢালতে এগিয়ে আসতে হয় তৃণমূল শীর্ষনেতৃত্বকে। দিদিকে বলোয় জেলা সভাধিপতির বিরুদ্ধে গুচ্ছ গুচ্ছ অভিযোগ জমা পড়েছে। তাঁর প্রেক্ষিতেই কী এই ব্যবস্থা? সোমবার দিনভর জল্পনার মধ্যে সংশয় বাড়ান তৃণমূল জেলা সভাপতিও ৷

সোমবার বোলপুরের কর্মী সম্মেলনে হাজির ছিলেন না বিকাশ রায়চৌধুরী। জেলার মানুষ ও দলীয় কর্মীদের একাংশের অভিযোগ, ইদানিং আর আগের মতো সক্রিয় নন জেলা পরিষদের সভাধিপতি। তাই বহু উন্নয়নমূলক প্রকল্পেক কাজ আটকে রয়েছে। এই সূত্র ধরেই তৃণমূল নেতৃত্বকে নিশানা করে বিজেপি।

মঙ্গলবার বিকাশের জায়গায় দায়িত্ব সামলেছেন সহকারী সভাধিপতি নন্দেশ্বর মণ্ডল। তবে তৃণমূল নেতৃত্ব বুঝিয়ে দিল, এটা নেহাতই সাময়িক। ছুটি শেষ হলে আবারও পদে ফিরবেন বিকাশ রায়চৌধুরী।

First published: 07:34:31 PM Dec 03, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर