লক্ষ্মীপুজো রাত পোহালেই, মৃত্‍‌শিল্পীরা চূড়ান্ত ব্যস্ত

লক্ষ্মীপুজো রাত পোহালেই, মৃত্‍‌শিল্পীরা চূড়ান্ত ব্যস্ত
কোজাগরী লক্ষ্মী পুজো

মাঝে আর মাত্র একদিন। বাজারে পৌঁছে গিয়েছে লক্ষ্মীর মূর্তি। রয়েছে পটে আঁকা লক্ষ্মীও।

  • Share this:

#উলুবেড়িয়া: মাঝে আর মাত্র একদিন। বাজারে পৌঁছে গিয়েছে লক্ষ্মীর মূর্তি। রয়েছে পটে আঁকা লক্ষ্মীও। কোজাগরী লক্ষ্মীপুজোর আগে চরম ব্যস্ত রায়গঞ্জের সুভাষগঞ্জের পটুয়াপাড়া। নাওয়া-খাওয়া ভুলেছেন উলুবেড়িয়ার চেঙ্গাইল, বাউড়িয়ার মৃৎশিল্পীরা।

বছরভর মাটির হাঁড়ি, সরা, গ্লাস, ফুলের টব তৈরি করেই সংসার-যাপন রায়গঞ্জ সুভাষগঞ্জের মৃৎশিল্পীদের। লক্ষ্মীপুজোর আগে পট বদল। তখন পটে লক্ষ্মী আঁকতে ব্যস্ততা বাড়ে। বংশ পরম্পারায় চলছে এই পটে আঁকা।

মাটি, জ্বালানি, রং-এর দাম বাড়লেও পটের দাম বাড়েনি। তবে দাম বেড়েছে মাটির মূর্তির। এখন দিনরাত এক করে খেটে চলেছেন উলুবেড়িয়ার চেঙ্গাইল, বাউরিয়ার মৃৎশিল্পীরা। ঘরে-ঘরে এখানে লক্ষ্মীর বসত। বাড়তি লক্ষ্মীলাভের আশায় কোজাগরী লক্ষ্মীপুজোর দিকেই তাঁরা তাকিয়ে থাকেন বছরভর। হাওড়া, কলকাতা ছাড়াও বিভিন্ন জেলাতেও বিক্রি হয় এখানকার তৈরি লক্ষ্মী প্রতিমা।

লক্ষ্মী কিনতে গিয়ে পকেটে ছেঁকা লাগলেও, খামতি রাখতে নারাজ ক্রেতারা। বাজারে বাজারে পৌঁছে যাচ্ছে প্রতিমা, মাটির সরা, পট। এখন শুধু গৃহস্থের ঘরে যাওয়ার অপেক্ষা।

First published: 03:30:47 PM Oct 12, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर