• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • Sitaram Yechury: 'ছেলেকে বিদায় জানিয়ে এলাম', পুত্রশোকে ভারাক্রান্ত সীতারাম ইয়েচুরির টুইট

Sitaram Yechury: 'ছেলেকে বিদায় জানিয়ে এলাম', পুত্রশোকে ভারাক্রান্ত সীতারাম ইয়েচুরির টুইট

'ছেলেকে বিদায় জানিয়ে এলাম', পুত্রশোকে ভারাক্রান্ত সীতারাম ইয়েচুরির টুইট

'ছেলেকে বিদায় জানিয়ে এলাম', পুত্রশোকে ভারাক্রান্ত সীতারাম ইয়েচুরির টুইট

ছেলের মৃত্যুর খবর নিজেই টুইট করে জানান সীতারাম ইয়েচুরি। ছেলের শেষকৃত্য সম্পন্ন করে এসে শোকাতুর মন নিয়ে এসে ফের টুইট করলেন তিনি।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: করোনা (Corona) আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে সিপিআইএম (CPIM) সাধারণ সম্পাদক (General Secretary) সীতারাম ইয়েচুরির (Sitaram Yechury) বড় ছেলে আশিস ইয়েচুরি (Ashish Yechury)। ছেলের মৃত্যুর খবর নিজেই টুইট করে জানান সীতারাম ইয়েচুরি। ছেলের শেষকৃত্য সম্পন্ন করে এসে শোকাতুর মন নিয়ে এসে ফের টুইট করলেন তিনি।

    বর্ষীয়ান সিপিআইএম সাধারণ সম্পাদক টুইট করলেন, "আমার ছেলে আশিসকে বিদায় জানিয়ে এলাম আজ দুপুরে। আমাদের দুঃখ যারা ভাগ করে নিয়েছেন তাঁদের ধন্যবাদ জানাই। এই অন্ধকার সময়ের সম্মুখীন হতে যারা আমাদের শক্তি দিয়েছে তাদের ধন্যবাদ। আমি জানি এই শোক শুধু আমার একার নয়। এই মহামারীতে অসংখ্য মানুষের প্রাণ যাচ্ছে।"

    করোনা আক্রান্ত হয়ে গুড়গাঁওয়ের মেদান্ত হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন আশিস ইয়েচুরি। সেখানেই বৃহস্পতিবার ভোরে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল মাত্র ৩৫। আশিস পেশায় সাংবাদিক ছিলেন। গত কয়েকদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন এবং করোনার উপসর্গ দেখা যায়। ক্রমশ শারীরিক অবস্থা জটিল হতে থাকে তাঁর। তাই শেষরক্ষা হল না। অকালে এই মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চলে যেতে হল তাঁকে।

    সীতারাম ইয়েচুরি প্রথম টুইটে লেখেন, "অত্যন্ত বেদনার সঙ্গে জানাচ্ছি, আমার বড় ছেলেকে হারালাম।" সন্তানের মৃত্যু সংবাদ জানানোর পাশাপাশি, যে সমস্ত চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, সাফাইকর্মী-সহ যাঁরা যাঁরা ছেলের চিকিৎসায় সাহায্য করেছেন, যথাসম্ভব আশার আলো দেখিয়েছিলেন আশিসকে ফিরিয়ে আনার, তাঁদের সকলকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি।

    ছেলের মৃত্যুর খবর বাবা দিচ্ছেন, এই পরিস্থিতি দেখে সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই শোক প্রকাশ করেছেন। রাজনৈতিক মহলেও নরেন্দ্র মোদি এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ আরও অনেকে এই ঘটনায় সমবেদনা জানান।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: