নোটবন্দির মধ্যেই রাতারাতি লাখপতি, অ্যাকাউন্টধারীর অজান্তেই মোটা টাকার লেনদেন

নোটবন্দির মধ্যেই রাতারাতি লাখপতি শ্যামনগরের কাউগাছি দর্জিপাড়ার বেশ কয়েকটি পরিবার। স্থানীয় পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের শাখায়, জনধন যোজনার জিরো ব্যালান্স অ্যাকাউন্টে টাকা জমা করতে গিয়ে প্রথমে ধরা পড়ে বিষয়টি।

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jan 07, 2017 03:27 PM IST
নোটবন্দির মধ্যেই রাতারাতি লাখপতি, অ্যাকাউন্টধারীর অজান্তেই মোটা টাকার লেনদেন
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jan 07, 2017 03:27 PM IST

#শ্যামনগর: নোটবন্দির মধ্যেই রাতারাতি লাখপতি শ্যামনগরের কাউগাছি দর্জিপাড়ার বেশ কয়েকটি পরিবার। স্থানীয় পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের শাখায়, জনধন যোজনার জিরো ব্যালান্স অ্যাকাউন্টে টাকা জমা করতে গিয়ে প্রথমে ধরা পড়ে বিষয়টি। অভিযোগ, অ্যাকাউন্টধারীদের অজান্তেই অ্যাকাউন্ট থেকে মোটা টাকার লেনদেন হয়েছে। অভিযোগ সামনে আসতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। যাঁর নামে অ্যাকাউন্ট, তাঁর অনুমতি ছাড়াই কীভাবে এই লেনদেন তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

গ্রাহকরা ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের কাছে তারা গেলে ব্যাঙ্ক ম্যানেজার জানান, যে এজেন্ট এই কাজটি করেছে তাদের কাছে যেতে বলা হয় । ব্যাঙ্ক ম্যানেজার অমিত কুমার জানান তাদের বিষয়টি কতৃপক্ষকে জানিয়েছেন এবং এজেন্ট সমীর সিনারায় কে বরখাস্ত করা হয়েছে।

ব্যাঙ্ক অডিটর অজয় মুখার্জী গ্রাহকদের বলেন যে সব গ্রাহকদের এই অ্যাকাউন্টে হয়েছে প্রয়োজনে তারা অ্যাকাউন্ট পাল্টাতে পারে। কিন্তু গ্রাহক দের বক্তব্য তাদের অ্যাকাউন্টে হাজার হাজার টাকা লেনদেন হওয়ায় তারা সরকারি আর্থিক সাহায্য থেকে বঞ্চিত হতে পারে। গ্রাহকরা যদিও বিষয়টি জগদ্দল থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে।

জিরো ব্যালেন্স অ্যাকাউন্টে হাজার হাজার টাকা কে তুলল আর কে ফেলল উত্তর পাচ্ছে না গরীব গ্রাহকরা। গ্রাহকদের একটাই প্রশ্ন জনধন প্রকল্পের কেন্দ্রিয় আর্থিক সুবিধা থেকে তারা বঞ্চিত হবে না তো?

ব্যাঙ্ক কতৃপক্ষ আর এজেন্টের এই দোলাচলে দিশেহারা দর্জি পাড়ার  জনধন প্রকল্পের গ্রাহক এসমা খাতুন ,শেখ ইলীয়াস আলিরা।

First published: 03:27:14 PM Jan 07, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर