দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

বন্ধ লোকাল ট্রেন, রোজ ১২০ কিলোমিটার সাইকেল চালিয়ে নদিয়া থেকে কলকাতায় মিষ্টি বেচছেন তরুণ!

বন্ধ লোকাল ট্রেন, রোজ ১২০ কিলোমিটার সাইকেল চালিয়ে নদিয়া থেকে কলকাতায় মিষ্টি বেচছেন তরুণ!

স্থানীয় এক মিষ্টির দোকান থেকে মিষ্টি নিয়ে রাত তিনটেয় বেরিয়ে পড়েন ইমরান। এক একটি সরপুরিয়া ৫ টাকা। বাজারের তুলনায় দাম বেশ কমই।

  • Share this:

#নদিয়া: ১৯ বছরের ইমরান শেখ। নদিয়া থেকে রোজ ১২০ কিমি পথ সাইকেল চালিয়ে কলকাতায় আসেন তিনি। লকডাউনের পর থেকে দু'চাকাই এখন ইমরানের বাহন, সর্বক্ষণের সঙ্গী। লোকাল ট্রেন বন্ধ বিগত ৭ মাস। তাই জীবিকার টানে ইমরানের সম্বল এখন সাইকেল। মিষ্টি বিক্রি করতে কলকাতায় আসেন ইমরান। সারা দিন সাত থেকে আট ঘণ্টা চলে যায় সফর করতেই।

নদিয়ার মিষ্টি বিখ্যাত। বিশেষ করে সরপুরিয়া। আগে নিয়ম করে রোজ ভোরে মিষ্টি নিয়ে কলকাতায় চলে আসতেন ইমরান। দেশজুড়ে লকডাউন শুরু হতেই সব বন্ধ। আনলক পর্বে একটু একটু করে স্বাভাবিক হতে শুরু করল জনজীবন। কিন্তু লোকাল ট্রেন চালু হল না। ব্যবসায় তো ফিরতে হবে। তাই সাইকেলকে ভরসা করেই ইমরান বেরিয়ে পড়লেন রুজি-রুটির টানে।

স্থানীয় এক মিষ্টির দোকান থেকে মিষ্টি নিয়ে রাত তিনটেয় বেরিয়ে পড়েন ইমরান। এক একটি সরপুরিয়া ৫ টাকা। বাজারের তুলনায় দাম বেশ কমই। কলকাতায় আসার পথে রাস্তার দু'ধারের বেশ কিছু গ্রামেও বিক্রিবাটা হয়। কলকাতা পৌঁছতে সকাল ৭টা হয়ে যায়। খবর বলছে যে ব্যবসার শুরুতে দিনে ৩০০টি মিষ্টি বিক্রি হত। এখন হয় ৭০০টা। দিন দিন চাহিদা বাড়ছে ইমরানের খদ্দেরদের। এখন সরপুরিয়া ছাড়াও ইমরান বিক্রি করেন রসগোল্লা, গোলাপজাম, ল্যাংচা। পছন্দের বৈচিত্র্য বুঝে শুকনো মিষ্টিও রাখেন তিনি।

ইমরানের মা-বাবা ক্ষেতে কাজ করেন। আর ইমরান মিষ্টি বেচে সাহায্য করেন বাবা-মাকে। ইমরানের মতো অনেকেরই জীবন পালটে গিয়েছে লকডাউনের পরে। মাসের পর মাস বন্ধ থাকা লোকাল ট্রেন বদলে দিয়েছে ওঁদের জীবনের রোজনামচা। তবে অনিশ্চিত জীবনের কাছে হার মানেননি ইমরানরা, ঠিক বেছে নিয়েছেন নিজেদের রাস্তা।

প্রসঙ্গত, স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় ৫০ শতাংশ কম যাত্রী নিয়ে, করোনাসংক্রান্ত যাবতীয় বিধিনিষেধ মেনে পশ্চিমবঙ্গে লোকাল ট্রেন চালু করার পরিকল্পনা রেলকর্তাদের। একটি লোকাল ট্রেনে ১২০০ যাত্রীর বদলে তোলা হতে পারে ৬০০ যাত্রীকে। ট্রেনে দাঁড়িয়ে যেতে পারবেন না কোনও যাত্রী। সব স্টেশনে না-ও দাঁড়াতে পারে ট্রেন। সোমবার বৈঠকের পর যৌথ সাংবাদিক বৈঠক করে এমনটাই জানিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ ও রাজ্য সরকার। তাঁরা জানান, প্রাথমিক ভাবে ১০ থেকে ২০ শতাংশ লোকাল ট্রেন চালানো হবে। পরে সেই সংখ্যা বাড়িয়ে ২৫ শতাংশ করার পরিকল্পনা রয়েছে।

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: November 4, 2020, 12:02 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर