Kolkata Police: দুর্ঘটনাই শাপে বর হল, পরিবারকে ফিরে পেলেন স্মৃতি হারানো সন্ধ্যা

পরিবারকে ফিরে পেলেন সন্ধ্যাদেবী৷

দুর্ঘটনায় আহত মহিলাকে শুধু সুস্থ করাই নয়, দু' বছর ধরে হারিয়ে যাওয়া পরিবারকে খুঁজে দিল কলকাতা পুলিশ | (Kolkata Police)

  • Share this:

#কলকাতা: সব দুর্ঘটনাই যে মানুষের জীবনে অন্ধকার নেমে আসে তা নয়, কখনও কখনও দুর্ঘটনার জেরে মানুষজীবনে আলো ফিরে পায় | কলকাতার একটি ঘটনা সেটাই প্রমাণ করল | দুর্ঘটনায় আহত মহিলাকে শুধু সুস্থ করাই নয়, দু' বছর ধরে হারিয়ে যাওয়া পরিবারকে খুঁজে দিল কলকাতা পুলিশ |

ঘটনার সূত্রপাত এই মাসের গোড়ায়। টালিগঞ্জ রোডের ঝালদার মাঠ এলাকায় গাড়ির ধাক্কায় আহত হন বছর পঞ্চান্নর মানসিক ভারসাম্যহীন মহিলা | তিনি শুধু নিজের নামটুকুই বলতে পেরেছিলেন৷ ওই মহিলা জানান, তাঁর নাম সন্ধ্যা চক্রবর্তী। দুর্ঘটনার জেরে মাথায় ক্ষত নিয়ে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করে চারু মার্কেট থানার পুলিশ। গ্রেফতার করা হয় গাড়ির চালককেও , বাজেয়াপ্ত করা হয় ঘাতক গাড়িটিকে।

এই পর্যন্ত সব কিছুই ঠিক ছিল | এরপর শুরু হয় আসল সমস্যা | সন্ধ্যাদেবীর চিকিৎসায় সুস্থ হয়ে উঠলেও তাঁর পরিবারের কোনও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না | সন্ধ্যাদেবীর ছবি পাঠিয়ে দেওয়া হয় রাজ্যের বিভিন্ন থানায়, সেই ছবি দেখে এগিয়ে আসেন নদিয়ার একটি পরিবার | সন্ধ্যাদেবীর দাদা যোগাযোগ করেন পুলিশের সঙ্গে | সন্ধ্য দেবীর দাদা জানান, দু' বছর আগে নদিয়ার ধানতলা এলাকায় তাঁর বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়ে যান সন্ধ্যাদেবী। কিন্তু সন্ধ্যাদেবী তাঁর দাদাকেও চিনতে পারছিলেন না | পরে ধানতলা থানার সঙ্গে যোগাযোগ করেন চারু মার্কেট থানার ওসি ইন্সপেক্টর সুভাষ অধিকারী। সেখান থেকেই জানা যায়, দু' বছর আগে ধানতলা থানায় এরকম একটি নিখোঁজ ডায়রি হয় | এর পর বিভিন্ন ভাবে খোঁজ খবর করার পর পুলিশ জানতে পারে, ওই ব্যক্তিই সন্ধ্যাদেবীর দাদা | হাসপাতাল থেকে সন্ধ্যাদেবীকে তাঁর পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেওয়া হয়।

চারু মার্কেট থানার সাব-ইন্সপেক্টর ড্যাফোডিল তামাং এবং অন্যান্য মহিলা সাব-ইন্সপেক্টররা সন্ধ্যাদেবীকে নিয়ে পৌঁছে যান ধানতলার বাড়িতে | হারিয়ে যাওয়া আত্মীয়া পরিজনকে ফিরে পেয়ে কিছুটা স্মৃতিশক্তি ফিরে পান সন্ধ্যাদেবী | আনন্দে অভিভূত সন্ধ্যাদেবীর পরিবারের সদস্যরা কলকাতা পুলিশকে আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন | তাঁরা বলেন, দু' বছর আগে বাড়ি থেকে বেরিয়ে আর ফেরেননি সন্ধ্যাদেবী, অনেক জায়গায় খোঁজাখুঁজি করলেও তাঁর কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি | সন্ধ্যাদেবীর দাদার দাবি, 'বোনকে কোনওদিন ফিরে পাবো ভাবতেই পারিনি |'

Published by:Debamoy Ghosh
First published: