বিধানসভা ভোটের আগে বীরভূমের রাজনীতিতে সচল অনেক অঙ্ক, জমে উঠছে হিসেবনিকেশ

বাবা তৃণমূল ছেলে বিজেপি ।তাহলে কি সময়ের অপেক্ষা।রাজনৈতিক রং বদলের।

বাবা তৃণমূল ছেলে বিজেপি ।তাহলে কি সময়ের অপেক্ষা।রাজনৈতিক রং বদলের।

  • Share this:

    #নলহাটি: তৃণমূলের ব্লক সভাপতি ও বিজেপি নেতা মুকুল রায়কে দেখা গিয়েছিল বীরভূমে একসঙ্গে কয়েকদিন আগে ।সেই ড্যামেজ কন্ট্রোল করতে এবার আসরে নামলেন নলহাটি ২ নাম্বার ব্লক তৃণমূলের ব্লক সভাপতি বিভাস অধিকারি৷  শেষমেষ সাংবাদিক সম্মেলন করে তাকে ঘোষণা করতে হলো তিনি বর্তমানে তৃণমূলে আছেন তৃণমূল থাকবেন বিজেপির সাথে কোন যোগ নেই তার।

    গত অগাষ্ট মাসের ৩০ তারিখ বীরভূমে তৃণমূল ব্লক সভাপতির 'আশ্রমে' বিজেপি নেতা মুকুল রায় এসেছিলেন ও আশ্রমের অতিথিশালার বন্ধ কামরায় একান্তে বেশ কিছুক্ষন দুজনে সময় কথা বলেন। সেই নিয়ে জোর জল্পনা বীরভূমের রাজনৈতিক মহলে ছড়িয়ে পড়ে। এমন কি তৃণমূলের বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের কাছেও কথা শুনতে হয়েছে ব্লক সভাপতি কে। আচমকাই নলহাটি দুনম্বর ব্লকের তৃণমূল সভাপতি বিভাস অধিকারি প্রতিষ্ঠিত আশ্রমে চলে আসেন মুকুল রায়। নলহাটি দুন্বর ব্লকের নবহিমায়েতপুরে অনুকুল চন্দ্রের ওই আশ্রমটি প্রতিষ্ঠা করেন বিভাসবাবু। শুধু তাই নয় সেদিন আশ্রমে উপস্থিত ছিলেন সিউড়ি ১ নাম্বার ব্লকের পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষ করম খানও।

    খোদ অনুব্রত মণ্ডলের গড়ে মুকুল রায় কেন? সেই নিয়ে নানা বিতর্ক ওঠে।। আজকের সাংবাদিক সম্মেলনে শেষে বিভাস অধিকারি দাবি করেন তিনি বিজেপিতে যাচ্ছেন সেটা ভুল খবর বিজেপির চক্রান্ত তিনি তৃণমূলে আছেন ও থাকবেন, ধর্মীয় জায়গাতে যে কেউ আসতে পারেন। আজকের সাংবাদিক সম্মেলনে  উপস্থিত ছিলেন তৃণমূলের বীরভূম জেলার সাধারণ সম্পাদক ত্রিদিব ভট্টাচার্য ।বীরভূম জেলার তৃনমূলের জেলা কমেটির সদস্য মহম্মদ গিয়াস উদ্দিন তাকে নিয়ে আবার রাজনৈতিক বিতর্ক দেখা দিল কারণ তার ছেলে মোঃ রফিউদ্দিন কয়েকদিন আগেই বিজেপি তে যোগদান করেন রফিউদ্দিন নলহাটি থানার সিভিক ভলান্টিয়ার তাকে নলহাটি থানার ওসি সাসপেন্ড ও করেন। প্রশ্ন এখানেই বাবা তৃণমূল ছেলে বিজেপি ।তাহলে কি সময়ের অপেক্ষা।রাজনৈতিক রং বদলের।

    Akshoy Dhibar

    Published by:Debalina Datta
    First published: