গুজবের জেরে আক্রান্ত পুলিশ, থানায় আগুন লাগাল এলাকাবাসী

গুজবের জেরে আক্রান্ত পুলিশ, থানায় আগুন লাগাল এলাকাবাসী

ফের গুজবের জেরে উত্তেজনা ছড়াল এলাকায় ৷ আইনের দুই রক্ষককে বেআইনি কাজের দায়ে গ্রেফতার করার অপরাধে আক্রান্ত খোদ পুলিশ।

  • Share this:

#কিষাণগঞ্জ: ফের গুজবের জেরে উত্তেজনা ছড়াল এলাকায় ৷ আইনের দুই রক্ষককে বেআইনি কাজের দায়ে গ্রেফতার করার অপরাধে আক্রান্ত খোদ পুলিশ। বিহারের পোঠিয়ে এলাকায় কর্তব্যরত দুই চৌকিদারকে মদ্যপান করার অপরাধে গ্রেফতার করে পোঠিয়া থানার পুলিশ । গ্রেফতার হওয়া দুই জনের মধ্যে রাজু হাজদা নামে এক চৌকিদারকে পুলিশ লকাপে পিটিয়ে মেরে ফেলেছে-এই গুজব ছড়িয়ে পড়তেই থানার উপর চড়াও হয় স্থানীয়রা । উত্তেজিত জনতা থানা ভাঙচুর করার পাশাপাশি তাতে আগুনও ধরিয়ে দেয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশকে শুন্যে কয়েক রাউন্ড গুলি চালাতে হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এই ঘটনায় বাংলা-বিহার সীমান্তজুড়ে চরম উত্তেজনা তৈরী হয়েছে।

পুলিশসূত্রে জানা গিয়েছে, শুক্রবার মাঝরাতে ওই এলাকার রাজু হাঁসদা ও দিলীপদাস নামে দুই চৌকিদারকে মদ্যপ অবস্থায় গ্রেফতার করে পুলিশ । ধৃতদের থানায় নিয়ে আসার পর কোনওক্রমে সেখান থেকে পালিয়ে যায় রাজু হাঁসদা। পুলিশ তারা করে তাকে ধরে ফেলার পরে লক-আপে তাকে বেধড়ক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। এরপর এলাকায় গুজব ছড়ায় যে লক আপে রাজু মৃত্যুর হয়েছে ৷  পুলিশ তার মৃতদেহ গুম করে দিয়েছে। এরপরেই উত্তেজিত এলাকাবাসী  লাঠি, বাঁশ নিয়ে দুপুর ২ টো নাগাদ থানায় হামলা চালায়। থানা ভাঙচুরের পাশাপাশি ক্ষুব্ধ জনতা থানায় আগুন লাগিয়ে দেয়। প্রথমে পরিস্থিতি নিুয়ন্ত্রণে আমার চেষ্টা করেন পুলিশকর্মীরা ৷ পরে ব্যর্থ হয়ে এলাকা ছেড়ে পালাতে বাধ্য হয়েছে তারা ৷ গোটা ঘটনা নিয়ে বিহারের পুলিশ ও প্রশাসন এখন কোন মন্তব্য করেনি। এলাকায় চরম উত্তেজনা রয়েছে।

এই ঘটনার জেড়ে পোঠিয়া দিয়ে যাতায়াতকারী ট্রেনগুলিকে অন্য পথে ঘুরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

উত্তর দিনাজপুরের পুলিশ সুপার অমিত কুমার ভরত রাঠোর জানিয়েছেন, এই ঘটনার জেরে সর্তকতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে বিহার সীমান্তে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। এবং বিহার সীমান্ত সংলগ্ন থানাগুলিতে চরম সর্তকতা জারি করা হয়েছে।

First published: 08:48:09 PM Feb 11, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर