• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • করোনা আবহে আজ প্রতিমা নিরঞ্জন, কার্তিক পুজোকে ঘিরে উৎসব মুখর পূর্বস্থলী

করোনা আবহে আজ প্রতিমা নিরঞ্জন, কার্তিক পুজোকে ঘিরে উৎসব মুখর পূর্বস্থলী

কাটোয়ার মতোই কার্তিক পুজোর মেতে উঠেছে পূর্ব বর্ধমানের পূর্বস্থলী। করোনা আবহে বাজেট কম হলেও এলাকার বাসিন্দাদের এই উৎসবকে ঘিরে উৎসাহের কোনও খামতি নেই।

কাটোয়ার মতোই কার্তিক পুজোর মেতে উঠেছে পূর্ব বর্ধমানের পূর্বস্থলী। করোনা আবহে বাজেট কম হলেও এলাকার বাসিন্দাদের এই উৎসবকে ঘিরে উৎসাহের কোনও খামতি নেই।

কাটোয়ার মতোই কার্তিক পুজোর মেতে উঠেছে পূর্ব বর্ধমানের পূর্বস্থলী। করোনা আবহে বাজেট কম হলেও এলাকার বাসিন্দাদের এই উৎসবকে ঘিরে উৎসাহের কোনও খামতি নেই।

  • Share this:

#কাটোয়া: কাটোয়ার মতোই কার্তিক পুজোর মেতে উঠেছে পূর্ব বর্ধমানের পূর্বস্থলী। করোনা আবহে বাজেট কম হলেও এলাকার বাসিন্দাদের এই উৎসবকে ঘিরে উৎসাহের কোনও খামতি নেই। সোমবার দিনভর চলেছে মন্ডপ প্রতিমা দর্শন।আজ ভাসান উপলক্ষেও ভালো ভিড় হবে বলেই মনে করছেন উদ্যোক্তারা। তবে ভিড় নিয়ন্ত্রণ ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে তৎপর প্রশাসন। পূর্বস্থলী শহর জুড়ে প্রচুর পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। কার্তিক লড়াই বন্ধ রাখার পাশাপাশি ভাষণে আড়ম্বর না করার জন্য পুজো কমিটিগুলির কাছে আবেদন রেখেছে পুলিশ।

দীর্ঘদিন ধরেই পূর্বস্থলীতে বারোয়ারি কার্তিক পুজো অনুষ্ঠিত হয়ে আসলেও ইদানিং তার জৌলুস বেড়েছে অনেকটাই। এলাকায় এলাকায় গত কয়েক বছর ধরেই চলছে থিমের পুজো। বাহারি আলোকসজ্জা, বিশাল মন্ডপ ও প্রতিমা দেখতে শুধু পূর্বস্থলীর বাসিন্দারা নয়, আশপাশের এলাকা এবং পাশের জেলা নদীয়া থেকে প্রচুর দর্শনার্থী এই শহরে ভিড় করেন। এবার করোনা পরিস্থিতির কারণে পুজোর জৌলুস কম করার আবেদন জানিয়েছিল পুলিশ প্রশাসন।

করোনা আবহে বাজেট কম হলেও পুজো দেখতে দর্শনার্থীদের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। শহরের ধাড়াপাড়া, কৈবর্তপাড়া থেকে শুরু করে চুপি বাঘনাপাড়ায় বহু মানুষ ভিড় করেছিলেন।পূর্বস্থলী রেল বাজার এলাকার বেশ কয়েকটি পুজো হয়।তার মধ্যে বজরংবালী, শিব পার্বতী,সন্তোষী মাতা, নটরাজ, শ্মশানকালী সহ নামি পুজো মন্ডপগুলিতে এবারে দর্শনার্থীদের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো।

তবে দর্শকদের মন্ডপের ভেতরে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। বাইরে থেকে প্রতিমা, মন্ডপ দেখেছেন তাঁরা। প্রতিটি পুজো মণ্ডপে ছিল হ্যান্ড স্যানিটাইজার। মাস্কে মুখ ঢাকতে হয়েছে সব দর্শককে। সামাজিক দূরত্ব যাতে বজায় থাকে তা নিশ্চিত করতে বাড়তি স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করেছিল পুজো কমিটিগুলি।

পূর্বস্থলীর কার্তিক পুজোর অন্যতম আকর্ষণ সেখানকার মেলা। পুজো উপলক্ষে অনেক মন্ডপের পাশেই মেলা বসে। তবে এবার সেভাবে মেলা বসতে দেয়নি অনেক পুজো কমিটি। তিন দিনের এই উৎসব শান্তিপূর্ণ রাখতে পূর্বস্থলীতে প্রচুর সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। আশপাশে থানা থেকে পুলিশ কর্মী অফিসার নিয়োগ করা হয়েছে। আজ ভাসান পর্ব শান্তিপূর্ণ রাখতে তৎপর পুলিশ প্রশাসন।

Saradindu Ghosh

Published by:Shubhagata Dey
First published: