বিনা চিকিৎসায় রোগী মৃত্যুর অভিযোগকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা তৈরি হল কান্দি মহকুমা হাসপাতালে

বিনা চিকিৎসায় রোগী মৃত্যুর অভিযোগকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা তৈরি হল কান্দি মহকুমা হাসপাতালে

ভরতপুর থানার অন্তর্গত আলু গ্রামের বাসিন্দা কেয়ামত মোল্লা (৬১) শনিবার দুপুরে শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে কান্দি মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হন

  • Share this:

#মুর্শিদাবাদ: শনিবার বিকেলে মুর্শিদাবাদ জেলার কান্দি মহকুমা হাসপাতালে বিনা চিকিৎসায় রোগী মৃত্যুর অভিযোগকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা তৈরি হল। ভরতপুর থানার অন্তর্গত আলু গ্রামের বাসিন্দা কেয়ামত মোল্লা (৬১) শনিবার দুপুরে শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে কান্দি মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হন।

পরিবারের অভিযোগ কান্দি মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও কোন চিকিৎসাই করা হয়নি তাঁর৷ এবং পরে তাঁর মৃত্যু হয়। ঘটনার জেরে উত্তেজনা ছড়ায় কান্দি মহকুমা হাসপাতালে । খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় কান্দি থানার পুলিশ৷ হাজির হন কান্দি মহকুমা শাসক রবি আগরওয়াল। অভিযোগ, ‘কেয়ামত মোল্লার অবস্থার অবনতি হলে পরিবারের লোক বারেবারে চিকিৎসককে ডাকলেও তিনি আসেননি। এর পরেই মৃত্যু হয় ওই রুগি। আরও অভিযোগ, মারা গেলেও চিকিৎসক দেখা করতে আসেননি।

এই কারণেই এদিন ক্ষোভে ফেটে পড়ে রোগীর আত্মীয়রা। এমার্জেন্সি ওয়ার্ডে গিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। কান্দি থানা থেকে বিশাল পুলিশবাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। মৃত রোগীর আত্মীয় সাবের আলী বলেন, ‘যন্ত্রণায় রোগী ছটফট করছে, চিকিৎসকদেরকে বারেবারে ডাকা হলেও কেউ একবার দেখে যায়নি। মৃত্যুর পরও কোন চিকিৎসক আসেননি। চিকিৎসার গাফিলতিতে আমাদের পরিবারের মানুষ মারা গেলেন। কর্তব্যরত চিকিৎসক উপযুক্ত শাস্তি পাই এটা আমরা চাইছি। হাসপাতাল সুপার মহেন্দ্র মান্ডি বলেন, ‘কিভাবে রোগীর মৃত্যু হল তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। চিকিৎসক কেন যাননি সেটাও দেখা হচ্ছে। অবহেলা থাকলে অবশ্যই শাস্তি হবে।’

Pranab Kumar Banerjee

First published: March 7, 2020, 11:44 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर