কোন বাঙালি পদে মাতলেন নাড্ডা! দ্বিতীয় বার চেয়ে খেলেন বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি

কোন বাঙালি পদে মাতলেন নাড্ডা! দ্বিতীয় বার চেয়ে খেলেন বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি

একটি বাঙালি পদে মুগ্ধ নাড্ডা

খুশি মনে, তৃপ্তি করে সব কিছুই খেয়েছেন নাড্ডা। খেতে বসে গল্পের ছলে বলেছেন, বিহারী খাবার বরাবরের পছন্দ। তবে এবার বাঙালি খাবারের স্বাদে ও গন্ধে মাত বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি।

  • Share this:

#উত্তর ২৪ পরগণা: মাটির থালার ওপর সাজানো পদ্ম পাতা। মাটির ছোট পাত্রে সার দিয়ে সাজানো পোস্তর বড়া, করোলা ভাজা, এঁচোড়ের তরকারি, গুড়ের পায়েস, সবজি ডাল সহ আরও অনেক কিছু। নানা পদের সমাহারে লক্ষ্মীবারের দুপুরে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডাকে মধ্যাহ্নভোজে স্বাগত জানিয়েছিল নৈহাটি গৌরীপুরের যাদব পরিবার।

খুশি মনে, তৃপ্তি করে সব কিছুই খেয়েছেন নাড্ডা। খেতে বসে গল্পের ছলে বলেছেন, বিহারী খাবার বরাবরের পছন্দ। তবে এবার বাঙালি খাবারের স্বাদে ও গন্ধে মাত বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। বাঙালির একেবারে নিজস্ব পোস্তর বড়া থেকে গুড়ের পায়েস সব কিছুই খেয়েছেন। তবে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির মন জয় করে নিয়েছে মিষ্টি দই। যাদব পরিবারের সদস্য সোনু কুমারী বলছিলেন, "মিষ্টি দই ওনার এতো ভালো লেগেছে যে, দ্বিতীয় বার দই চেয়ে খেয়েছেন। সেটাও পরম তৃপ্তি করে।"

বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির সঙ্গে ছয় ফুট বাই ছয় ফুটের ছোট্ট ঘরে পাত পেড়ে ভোজে বসে ছিলেন স্থানীয় হুকুমচাঁদ জুট মিলের ঠিকা কর্মী ও নৈহাটির গৌরীপুরের বিজেপি বুথ সভাপতি গৃহকর্তা দেবনাথ যাদব। ছিলেন কৈলাশ বিজয়বর্গী,  দিলীপ ঘোষ, অর্জুন সিংয়ের মত বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব।

পেশায় জুটমিল কর্মী দেবনাথ যাদবকে পাশে বসিয়ে মধ্যাহ্নভোজন সারার ফাঁকে টুকটাক কথা বলেছেন। ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের শ্রমিকদের সমস্যার খোঁজ নিয়েছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। দেবনাথ যাদব বলছিলেন, ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের বন্ধ কল কারখানার বিষয়ে মৌখিকভাবে জানানো হয়েছে তাঁকে। যাদব পরিবারের মুখে স্থানীয় শিল্পাঞ্চলের সমস্যা শুনে জেপি নাড্ডা সহমত পোষন করেছেন বলেও দাবি যাদব পরিবারের সদস‍্যদের।

শিয়রে রাজ‍্যের বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে পাত পেড়ে জুট মিল শ্রমিকের ঘরে খেতে বসা আর ধুঁকতে থাকা  ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের বন্ধ কল-কারখানার সমস্যা শুনে খোদ জেপি নাড্ডার আশ্বাস দেওয়া। দিনের শেষে এতেই দিল খুশ নৈহাটির গৌরীপুরের যাদব পরিবারের।

PARADIP GHOSH

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published: