Jitendra Tiwari on Babul Supriyo: বাবুলের মতো মানুষকে রাজনীতিতে প্রয়োজন, বলছেন একদা শত্রু জিতেন্দ্র

সিদ্ধান্ত বদলান বাবুল, চাইছেন জিতেন্দ্র৷

তৃণমূলে থাকাকালীন একাধিকবার বিজেপি সাংসদ বাবুলকে হেনস্থার অভিযোগ ওঠে জিতেন্দ্রর বিরুদ্ধে (Jitendra Tiwari on Babul Supriyo)।

  • Share this:

#কলকাতা:  রাজনীতিতে কিছুদিন আগে পর্যন্ত বিপরীত মেরুতে ছিলেন দু' জনে৷ এমন কি, জিতেন্দ্র তিওয়ারির বিজেপি-তে যোগদানের সিদ্ধান্তও প্রথমে মেনে নিতে পারেননি বাবুল সুপ্রিয়৷ দলের চাপে অবশ্য বাধ্য হয়েই মুখে কুলুপ এঁটেছিলেন৷ যদিও বাবুলের সঙ্গে অতীত তিক্ততা ভুলে বিজেপি নেতা জিতেন্দ্র বলছেন, তিনি চান না রাজনীতি থেকে সরে যান আসানসোলের সাংসদ৷

আসানসোলের প্রাক্তন মেয়র ও পাণ্ডবেশ্বরের প্রাক্তন বিধায়ক জিতেন্দ্র তিওয়ারির  বিজেপিতে যোগদানের বিষয়ে যিনি অন্তরায় হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন সেই  বাবুল সুপ্রিয়র সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট আসানসোলের জন্য ভাল খবর নয় বলেই মত জিতেন্দ্র তিওয়ারির। রাজনীতিতে বাবুল সুপ্রিয়র মতো মানুষের থাকা প্রয়োজন বলে মনে করেন তিনি।

প্রসঙ্গত, তৃণমূল নেতা হিসেবে জিতেন্দ্র বারবারই বিগত দিনে বাবুল সুপ্রিয়র বিরুদ্ধে নানা বক্তব্য সামনে এনে বিতর্কে জড়িয়েছেন। তৃণমূলে থাকাকালীন একাধিকবার বিজেপি সাংসদ বাবুলকে হেনস্থার  অভিযোগ ওঠে জিতেন্দ্রর বিরুদ্ধে। বাবুলও পাল্টা জিতেন্দ্রর বিরুদ্ধে নানান অভিযোগের বোমা ফাটিয়েছেন। শেষমেষ জিতেন্দ্রর বিজেপিতে যোগদানের পর বাবুলের 'শত্রু' থেকে' বন্ধু' হয়ে ওঠেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি।

সেই আসানসোলের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়র রাজনীতিতে 'অনীহা' ও 'আলবিদা' বিষয়ক পোস্টে হতাশ জিতেন্দ্র তিওয়ারি। তিনি বলেন, 'আমরা মনে প্রাণে চাইব উনি যেন রাজনীতি থেকে সন্ন্যাস না নেন। ব্যক্তিগতভাবে আমার কোনও দিনই উনি অপছন্দের মানুষ ছিলেন না বাবুল সুপ্রিয়। রাজনৈতিক বাধ্যবাধকতা থেকেই ওঁর সঙ্গে আমার মতবিরোধ ছিল।'

বলা বাহুল্য, কয়েকদিন আগেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা থেকে ছেঁটে ফেলা হয় বাবুলকে৷ এর পর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর বেশ কয়েকটি পোস্টে বাবুল রাজনীতি ছাড়ছেন বলে জল্পনা ছড়ায়৷ শেষ পর্যন্ত সোশ্যাল মিডিয়াতেই রাজনীতিকে 'আলবিদা' জানালেন বাবুল।

VENKATESWAR  LAHIRI

Published by:Debamoy Ghosh
First published: