শুভেন্দু 'বন্দনায়' জিতেন্দ্রর ছায়াসঙ্গীরা! 'দাদার অনুগামী' পরিচয় তৃণমূল নেতা অভিজিৎ-অমিতের

শুভেন্দু 'বন্দনায়' জিতেন্দ্রর ছায়াসঙ্গীরা! 'দাদার অনুগামী' পরিচয় তৃণমূল নেতা অভিজিৎ-অমিতের

আসানসোলের বিদায়ী মেয়র তথা পুরনিগমের প্রশাসক বোর্ডের চেয়ারম্যান জিতেন্দ্র তিওয়ারির ছায়াসঙ্গী হিসেবে পরিচিত আসানসোল পুরনিগমের তৃণমূলের বিদায়ী দুই কাউন্সিলরের ফেসবুক পোস্ট ঘিরে জোর জল্পনা।

আসানসোলের বিদায়ী মেয়র তথা পুরনিগমের প্রশাসক বোর্ডের চেয়ারম্যান জিতেন্দ্র তিওয়ারির ছায়াসঙ্গী হিসেবে পরিচিত আসানসোল পুরনিগমের তৃণমূলের বিদায়ী দুই কাউন্সিলরের ফেসবুক পোস্ট ঘিরে জোর জল্পনা।

  • Share this:

#আসানসোল: শুভেন্দু 'বন্দনায়' এবার জিতেন্দ্র ঘনিষ্ঠ দুই তৃণমূল নেতা। আসানসোলের বিদায়ী মেয়র তথা পুরনিগমের প্রশাসক বোর্ডের চেয়ারম্যান জিতেন্দ্র তিওয়ারির ছায়াসঙ্গী হিসেবে পরিচিত আসানসোল পুরনিগমের তৃণমূলের বিদায়ী দুই কাউন্সিলরের ফেসবুক পোস্ট ঘিরে জোর জল্পনা। ফেসবুক পোস্টে কুলটি বিধানসভা এলাকার তৃণমূল বিধায়ক উজ্জ্বল চট্টোপাধ্যায়ের বিরোধী গোষ্ঠীর দুই তরুণ তৃণমূল নেতা একজন অভিজিৎ আচার্য, অন্যজন অমিত তুলসিয়ান।

অভিজিৎ আচার্য  শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে ছবি দিয়ে শুভেন্দুকে পশ্চিমবঙ্গের জননেতা বলে উল্লেখ করে পোস্ট করেন। অমিত তুলসিয়ান, শুভেন্দু অধিকারীর সাম্প্রতিক একটি অরাজনৈতিক মঞ্চের বক্তব্য পোস্ট করে শুভেন্দুকে বাংলার জনসেবক বলে উল্লেখ করেন। জিতেন্দ্র তিওয়ারি কী তাহলে শুভেন্দুর পথেই হাঁটবেন? দলীয় বৈঠক এড়ানোর পর 'বেসুরো' জিতেন্দ্র এবং তাঁর অনুগামীদের নিয়ে  রাজনৈতিক মহলে জল্পনা আরও বাড়ল। নিজেদের ঘনিষ্ঠ মহলে দুই বিদায়ী কাউন্সিলর সাফ জানিয়েছেন, 'আমরা জিতেন্দ্র দাদার অনুগামী। দাদার পথই  আমার পথ'।

পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে একটি চিঠি লিখেছিলেন আসানসোলের পুর প্রশাসক জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷ সেই চিঠিতে তিনি অভিযোগ করেন, রাজ্যের আপত্তিতেই কেন্দ্রীয় প্রকল্পের প্রায় সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা পাওয়া থেকে বঞ্চিত হয়েছে আসানসোল পুরনিগম৷ রাজনৈতিক কারণেই স্মার্ট সিটির তালিকা থেকে বাদ পড়তে হয়েছে আসানসোলকে৷ রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বঞ্চনার মারাত্মক অভিযোগ তোলেন তিনি৷ গোপন সেই  চিঠি News18 Bangla-য় ফাঁস হতেই শোরগোল পড়ে যায় রাজনৈতিক মহলে।

পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম-সহ দলীয় নেতৃত্ব জিতেন্দ্রর এই বিস্ফোরক চিঠি নিয়ে যারপরনাই ক্ষুব্ধ৷ পুরমন্ত্রী জানিয়েই দেন, এ ভাবে চিঠি পাঠিয়ে অন্যায় করেছেন জিতেন্দ্র৷ বিজেপি তাঁকে ভুল বোঝাচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন পুরমন্ত্রী৷ পাল্টা ফিরহাদ হাকিমকে জবাব দেন জিতেন্দ্রও৷ নিজের দলের শীর্ষ নেতা ফিরহাদ হাকিমকে বেনজির আক্রমণ করে পাণ্ডবেশ্বরের  বিধায়ক তথা পুর প্রশাসক বোর্ডের প্রধান জিতেন্দ্র তিওয়ারি স্পষ্ট জানিয়ে দেন, দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়া কারও নির্দেশ তিনি মানবেন না৷ যদিও জিতেন্দ্রকে  মঙ্গলবার কলকাতায় ডেকে পাঠায় দলীয় নেতৃত্ব৷ সন্ধে ৬টায় ফিরহাদ হাকিম-সহ অন্যান্য রাজ্য নেতৃত্বের উপস্থিতিতে এই বৈঠক হওয়ার কথা থাকলেও শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এই বৈঠক এড়িয়ে যান জিতেন্দ্র।

জিতেন্দ্র এক সাক্ষাৎকারে বলেন, 'আমি দলনেত্রীর সঙ্গে বৈঠকে বসতে চাই। যেহেতু তৃণমূল সুপ্রিমো এখন উত্তরবঙ্গ সফরে রয়েছেন তাই দল নেত্রীকে গোটা বিষয়টি জানিয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক করবে। সাম্প্রতিককালে যে সমস্ত শাসক দলের নেতা মন্ত্রীরা বেসুরো কথা বলেছেন তাঁদের সবাইকে ছাপিয়ে গিয়ে জিতেন্দ্রর একের পর এক বিস্ফোরক বক্তব্য, যা ঘিরে শাসকদলের অস্বস্তি যে চরমে পৌঁছেছে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। সব মিলিয়ে জিতেন্দ্রকে ঘিরে জল্পনা তো ছিলই এবার তাঁর দুই অতি ঘনিষ্ঠের ফেসবুক পোস্টে শুভেন্দু 'বন্দনা'য় সেই জল্পনা নতুন মাত্রা পেল।

VENKATESWAR LAHIRI

Published by:Shubhagata Dey
First published: