• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • একই দিনে তৃণমূলে জোড়া ধাক্কা, মমতার সঙ্গে বৈঠকের আগেই দল ছাড়লেন জিতেন্দ্র

একই দিনে তৃণমূলে জোড়া ধাক্কা, মমতার সঙ্গে বৈঠকের আগেই দল ছাড়লেন জিতেন্দ্র

মমতার প্রতি তিনি শ্রদ্ধাশীল. দাবি জিতেন্দ্রর৷

মমতার প্রতি তিনি শ্রদ্ধাশীল. দাবি জিতেন্দ্রর৷

  • Share this:

    #আসানসোল: আসানসোল পুরসভার প্রশাসক এবং জেলা সভাপতির পদ ছাড়ার পর এবার তৃণমূলও ছেড়ে দিলেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷ এ দিনই দুপুরেই আসানসোল পুরসভার প্রশাসক পদ ছেড়ে দিয়েছিলেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷ তার কিছুক্ষণের মধ্যেই পাণ্ডবেশ্বরে তাঁর বিধায়কের কার্যালয়ে ভাঙচুর করা হয় বলে অভিযোগ৷ এর পরই তৃণমূল ছাড়ার কথা প্রকাশ্যেই জানিয়ে দিলেন জিতেন্দ্র৷ তাঁর অভিযোগ কলকাতার নেতাদের নির্দেশেই তাঁর অফিসে ভাঙচুর হয়েছে৷

    প্রসঙ্গত এ দিনই তৃণমূলের সদস্যপদে ছেড়ে দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী৷ তবে তাঁর ইস্তফা প্রত্যাশিতই ছিল৷ কিন্তু দলনেত্রীর সঙ্গে বৈঠকের আগেই জিতেন্দ্রর ইস্তফা তৃণমূলের কাছে অপ্রত্যাশিত ধাক্কার মতোই৷

    শুক্রবারই জিতেন্দ্র তিওয়ারির মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠক করার কথা ছিল৷ কিন্তু তিনি সেই বৈঠকে যাবেন না বলেই এ দিন স্পষ্ট করে দিয়েছেন জিতেন্দ্রি৷ তাঁর অভিযোগ, দলের মধ্যেই অনেকে চাইছেন না তিনি তৃণমূলে থাকুন৷ দলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সিকে তিনি তাঁর অভিযোগপত্র পাঠিয়ে দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন জিতেন্দ্র৷ বিজেপি-তে যাবেন কি না তা নিয়ে ধোঁয়াশা বজায় রাখলেও জিতেন্দ্র জানিয়েছেন, তৃণমূল ছাড়ার সিদ্ধান্ত তিনি বদলাবেন না৷

    জিতেন্দ্র বলেন, 'কালকে আমার মনের কথা দিদিকে বলার কথা ছিল৷ তার আগে যদি দুষ্কৃতী পাঠিয়ে আমার বিধায়ক কার্যলয়ের দখল নিয়ে নেওয়া হয়, তাহলে তো বুঝিয়েই দেওয়া হচ্ছে যে দল চাইছে না আমি তৃণমূলে থাকি৷ আসানসোলের কথা বললেই যদি আমার কার্যালয়ে হামলা হয়, তাহলে আর একসঙ্গে কাজ করব কী করে৷' তিনি আরও বলেন, 'বুঝিয়ে দেওয়া হল মুখ খুললে তোমার প্রাণনাশেরও চেষ্টা হবে৷ হয়তো আমার অনুগামীদের উপরেও হামলা হবে৷' জিতেন্দ্রর অভিযোগ, এ দিন তাঁর অফিসে হামলার সময় পুলিশ নীরব দর্শকের ভূমিকায় ছিল৷

    তবে তৃণমূল থেকে ইস্তফা দিলেও তিনি বিধায়ক পদ ছাড়বেন কি না, তা স্পষ্ট করেননি জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷ তাঁর দাবি, বিধায়ক পদ ছাড়লে মানুষের অসুবিধে হবে৷ তাই একবার পাণ্ডবেশ্বরের মানুষের সঙ্গে কথা বলেই সিদ্ধান্ত নেবেন বলে জানিয়েছেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷ যদিও তাঁর দাবি, 'দিদিকে আমি এখনও ভালবাসি৷ দিদি আমাকে জীবনে অনেক কিছু দিয়েছেন৷ তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা থাকবে৷'

    জানা গিয়েছে, পাণ্ডবেশ্বরের ব্লক সভাপতি নরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী এবং তাঁর অনুগামীরা এ দিন জিতেন্দ্র তিওয়ারির বিধায়ক কার্যালয় দখল করে নেন৷ সেই অফিসে বিধায়ককে আর বসতে দেওয়া হবে না বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তৃণমূলের ব্লক সভাপতি৷

    মমতা বন্দ্যোুপাধ্যায়ের সঙ্গে কথা বলার পরেও বিক্ষুব্ধ সাংসদ সুনীল মণ্ডলের বাড়িতে গিয়ে বুধবার শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে বৈঠক করেছিলেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷ তার পরেই তাঁর তৃণমূলে থাকা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছিল৷ এমন কি, জিতেন্দ্র তিওয়ারি আগামী শনিবার মেদিনীপুরে অমিত শাহের সভায় জিতেন্দ্র তিওয়ারি বিজেপি-তে যোগ দিতে পারেন বলেও খবর৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: