দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

রাজ্যের জন্যই বঞ্চিত আসানসোল, ফিরহাদকে চিঠিতে বিস্ফোরক জিতেন্দ্র তিওয়ারি

রাজ্যের জন্যই বঞ্চিত আসানসোল, ফিরহাদকে চিঠিতে বিস্ফোরক জিতেন্দ্র তিওয়ারি
ফিরহাদকে চিঠি দিয়ে দলের অস্বস্তি বাড়ালেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷

যদিও এই চিঠি তাঁর ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ কি না, সে বিষয়ে কিছু বলতে চাননি জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷

  • Share this:

#আসানসোল: এবার রাজ্য সরকারের অস্বস্তি বাড়ালেন আসানসোল পুরসভার প্রশাসক বোর্ডের প্রধান এবং পাণ্ডবেশ্বরের বিধায়ক জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷ পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে চিঠি লিখে তিনি অভিযোগ করলেন, রাজনৈতিক কারণে কেন্দ্রীয় প্রকল্পের অর্থ থেকে বঞ্চিত হতে হয়েছে আসানলোল পুরসভাকে৷ রাজ্যের জন্যই আসানসোল স্মার্ট সিটি হওয়ার সুযোগ হারিয়েছে বলেও চিঠিতে অভিযোগ করেছেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷ তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে, আসানসোল এবং রানিগঞ্জের দু'টি পরিচালন কমিটির সভাপতি পদ থেকেও ইস্তফা দিয়েছেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷ যদিও জিতেন্দ্রর অভিযোগ, এই চিঠি পুরোপুরি সরকারি এবং গোপনীয়৷ এ বিষয়ে যা বলার তিনি সরকার এবং দলের মধ্যেই বলবেন৷ জিতেন্দ্র তিওয়ারি পশ্চিম বর্ধমান জেলা তৃণমূলের সভাপতি পদেও রয়েছেন৷

পুরমন্ত্রীকে পাঠানো চিঠিতে একের পর এক চাঞ্চল্যকর অভিযোগ তুলেছেন আসানসোলের বিদায়ী মেয়র এবং প্রশাসক বোর্ডের প্রধান জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷ তিনি অভিযোগ করেছেন, রাজ্যের আপত্তিতেই স্মার্ট সিটি প্রকল্পে কেন্দ্রীয় সরকারের পাঠানো প্রায় ২০০০ কোটি টাকা আসানসোল পুরনিগম৷ আবার বর্জ্য অপসারণের জন্য কেন্দ্রের পাঠানো প্রায় ১৫০০ কোটি টাকাও একই কারণে আসানসোল পুরসভা পায়নি বলে অভিযোগ করেছেন জিতেন্দ্র৷ রাখঢাক না করেই জিতেন্দ্র তিওয়ারি চিঠিতে অভিযোগ করেছেন, রাজনৈতিক কারণেই এই অর্থ নেওয়া থেকে বঞ্চিত হতে হচ্ছে আসানসোলকে৷ জিতেন্দ্র অভিযোগ করেছেন, কেন্দ্রের অর্থ নেওয়ার অনুমোদন না দিলেও সেই অর্থ জোগানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল রাজ্য সরকার৷ কিন্তু সেই প্রতিশ্রুতিও রাখা হয়নি৷ রাজ্যের এই সিদ্ধান্তের কারণেই আসানসোলের সঙ্গে অবিচার হয়েছে বলে চিঠিতে অভিযোগ করেছেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷ গত ১৩ িডসেম্বর এই চিঠি লেখা হয়েছে৷

একই সঙ্গে চিঠিতে তিনি অভিযোগ করেছেন, রানিগঞ্জ এবং জামুড়িয়ায় নতুন টাউনহল তৈরি ও সংস্কার এবং কুলটি, বার্নপুর সহ আসানসোল পুর এলাকায় রাস্তা সংস্কার সহ একাধিক প্রকল্পে পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের অনুমোদন চাইলেও তা দেওয়া হয়নি৷ ফলে হয় রাজ্য সরকার কেন্দ্রীয় প্রকল্পের সুবিধে আসানসোল পুরনিগমকে নিতে দিক, নাহলে বিকল্প অর্থের সংস্থান করুক, চিঠির শেষে পুরমন্ত্রীর কাছে এই আবেদনও করেছেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷

যদিও এই চিঠি তাঁর ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ কি না, সে বিষয়ে কিছু বলতে চাননি জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷ তিনি দাবি করেছেন, এই চিঠি অত্যন্ত গোপনীয়, সংবাদমাধ্যমে তা আসা উচিত নয়৷ তিনি যা বলার দলের মধ্যে এবং সরকারকেই বলবেন৷ প্রয়োজনে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গেও কথা বলবেন৷ একই সঙ্গে তাঁর দাবি, সময় দিতে পারছিলেন না বলেই দু'টি কলেজের পরিচালন সমিতির সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন তিনি৷

জিতেন্দ্র তিওয়ারির এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছেন আসানসোলের সাংসদ এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়৷ তিনি বলেন, 'কেন্দ্রের কোনও প্রকল্পের টাকা রাজ্য নিতে দেয় না বলেই আসানসোল এত পিছিয়ে আছে৷ উনি যে সাহস করে সত্যি কথাটা বলেছেন, তার জন্য ধন্যবাদ জানাই৷' একই সঙ্গে বাবুল অবশ্য জানিয়েছেন, ২০২১ সালের নির্বাচনের আগে এই চিঠি লেখার পিছনে অন্য কোনও রাজনৈতিক উদ্দেশ্য রয়েছে কি না, সে বিষয়ে তাঁর সংশয় রয়েছে৷

Dipak Sharma

Published by: Debamoy Ghosh
First published: December 14, 2020, 1:11 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर