• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • রাজ্যের জন্যই বঞ্চিত আসানসোল, ফিরহাদকে চিঠিতে বিস্ফোরক জিতেন্দ্র তিওয়ারি

রাজ্যের জন্যই বঞ্চিত আসানসোল, ফিরহাদকে চিঠিতে বিস্ফোরক জিতেন্দ্র তিওয়ারি

ফিরহাদকে চিঠি দিয়ে দলের অস্বস্তি বাড়ালেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷

ফিরহাদকে চিঠি দিয়ে দলের অস্বস্তি বাড়ালেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷

যদিও এই চিঠি তাঁর ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ কি না, সে বিষয়ে কিছু বলতে চাননি জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷

  • Share this:

    #আসানসোল: এবার রাজ্য সরকারের অস্বস্তি বাড়ালেন আসানসোল পুরসভার প্রশাসক বোর্ডের প্রধান এবং পাণ্ডবেশ্বরের বিধায়ক জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷ পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে চিঠি লিখে তিনি অভিযোগ করলেন, রাজনৈতিক কারণে কেন্দ্রীয় প্রকল্পের অর্থ থেকে বঞ্চিত হতে হয়েছে আসানলোল পুরসভাকে৷ রাজ্যের জন্যই আসানসোল স্মার্ট সিটি হওয়ার সুযোগ হারিয়েছে বলেও চিঠিতে অভিযোগ করেছেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷ তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে, আসানসোল এবং রানিগঞ্জের দু'টি পরিচালন কমিটির সভাপতি পদ থেকেও ইস্তফা দিয়েছেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷ যদিও জিতেন্দ্রর অভিযোগ, এই চিঠি পুরোপুরি সরকারি এবং গোপনীয়৷ এ বিষয়ে যা বলার তিনি সরকার এবং দলের মধ্যেই বলবেন৷ জিতেন্দ্র তিওয়ারি পশ্চিম বর্ধমান জেলা তৃণমূলের সভাপতি পদেও রয়েছেন৷

    পুরমন্ত্রীকে পাঠানো চিঠিতে একের পর এক চাঞ্চল্যকর অভিযোগ তুলেছেন আসানসোলের বিদায়ী মেয়র এবং প্রশাসক বোর্ডের প্রধান জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷ তিনি অভিযোগ করেছেন, রাজ্যের আপত্তিতেই স্মার্ট সিটি প্রকল্পে কেন্দ্রীয় সরকারের পাঠানো প্রায় ২০০০ কোটি টাকা আসানসোল পুরনিগম৷ আবার বর্জ্য অপসারণের জন্য কেন্দ্রের পাঠানো প্রায় ১৫০০ কোটি টাকাও একই কারণে আসানসোল পুরসভা পায়নি বলে অভিযোগ করেছেন জিতেন্দ্র৷ রাখঢাক না করেই জিতেন্দ্র তিওয়ারি চিঠিতে অভিযোগ করেছেন, রাজনৈতিক কারণেই এই অর্থ নেওয়া থেকে বঞ্চিত হতে হচ্ছে আসানসোলকে৷ জিতেন্দ্র অভিযোগ করেছেন, কেন্দ্রের অর্থ নেওয়ার অনুমোদন না দিলেও সেই অর্থ জোগানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল রাজ্য সরকার৷ কিন্তু সেই প্রতিশ্রুতিও রাখা হয়নি৷ রাজ্যের এই সিদ্ধান্তের কারণেই আসানসোলের সঙ্গে অবিচার হয়েছে বলে চিঠিতে অভিযোগ করেছেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷ গত ১৩ িডসেম্বর এই চিঠি লেখা হয়েছে৷

    একই সঙ্গে চিঠিতে তিনি অভিযোগ করেছেন, রানিগঞ্জ এবং জামুড়িয়ায় নতুন টাউনহল তৈরি ও সংস্কার এবং কুলটি, বার্নপুর সহ আসানসোল পুর এলাকায় রাস্তা সংস্কার সহ একাধিক প্রকল্পে পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের অনুমোদন চাইলেও তা দেওয়া হয়নি৷ ফলে হয় রাজ্য সরকার কেন্দ্রীয় প্রকল্পের সুবিধে আসানসোল পুরনিগমকে নিতে দিক, নাহলে বিকল্প অর্থের সংস্থান করুক, চিঠির শেষে পুরমন্ত্রীর কাছে এই আবেদনও করেছেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷

    যদিও এই চিঠি তাঁর ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ কি না, সে বিষয়ে কিছু বলতে চাননি জিতেন্দ্র তিওয়ারি৷ তিনি দাবি করেছেন, এই চিঠি অত্যন্ত গোপনীয়, সংবাদমাধ্যমে তা আসা উচিত নয়৷ তিনি যা বলার দলের মধ্যে এবং সরকারকেই বলবেন৷ প্রয়োজনে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গেও কথা বলবেন৷ একই সঙ্গে তাঁর দাবি, সময় দিতে পারছিলেন না বলেই দু'টি কলেজের পরিচালন সমিতির সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন তিনি৷

    জিতেন্দ্র তিওয়ারির এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছেন আসানসোলের সাংসদ এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়৷ তিনি বলেন, 'কেন্দ্রের কোনও প্রকল্পের টাকা রাজ্য নিতে দেয় না বলেই আসানসোল এত পিছিয়ে আছে৷ উনি যে সাহস করে সত্যি কথাটা বলেছেন, তার জন্য ধন্যবাদ জানাই৷' একই সঙ্গে বাবুল অবশ্য জানিয়েছেন, ২০২১ সালের নির্বাচনের আগে এই চিঠি লেখার পিছনে অন্য কোনও রাজনৈতিক উদ্দেশ্য রয়েছে কি না, সে বিষয়ে তাঁর সংশয় রয়েছে৷

    Dipak Sharma

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: