খাবার না দিলেই উল্টে দেওয়া হচ্ছে গাড়ি, ঝাড়গ্রামে চরমে হাতির দাদাগিরি

খাবার না দিলেই উল্টে দেওয়া হচ্ছে গাড়ি, ঝাড়গ্রামে চরমে হাতির দাদাগিরি

গাড়ি দাঁড় করিয়ে খাবার আদায় চলছে ৷ টাকা না পেলে ভেঙে উল্টে দিচ্ছে গাড়ি। বলার কেউ নেই। যাদের বলার কথা তাদের কোনো পাত্তা নেই।

  • Share this:

#ঝাড়গ্রাম: গাড়ি দাঁড় করিয়ে খাবার আদায় চলছে ৷ টাকা না পেলে ভেঙে উল্টে দিচ্ছে গাড়ি। বলার কেউ নেই। যাদের বলার কথা তাদের কোনো পাত্তা নেই।

সকাল থেকেই ঝাড়গ্রামে ৫নং রাজ্য সড়ক এর উপর চলছে এরকমই দাদাগিরি।

হাতির দাদাগিরিতে নাজেহাল ঝাড়গ্রামের জারুলিয়া, বিকাশ ভারতী, শিরষি সহ একাধিক গ্রাম। রাতে একাধিক জায়গায় হামলা চালায় হাতি। ঝাড়গ্রাম থেকে লোধাশুলি যাওয়ার রাস্তায় গড়শালবনির কাছে ৫নং জাতীয় সড়কের উপর গাড়ি দাঁড় করিয়ে খাবার খুঁজতে থাকে একটি দাঁতাল। খাবার না পেয়ে বিরক্ত হয়ে উল্টে দেয়৷ মেডিসিন ভর্তি একটি ভ্যানকে। হাতি চলে গেলে ড্রাইভার খালাসি কে উদ্ধার করে গ্রামবাসীরা। এর পড়েই ধান বোঝাই গাড়িকে দাঁড় করিয়ে ধান খায়।

হাতির থেকে বাঁচতে ছুটে পালাতে গিয়ে মুখথুবড়ে পড়ে গুরুতর আহত হন৷ পাশেই জিতুশোল ক্যাম্পের দীপক পাল নামে এক জওয়ান। হাতির তান্ডবে নাজেহাল এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ। অপর দিকে,জারুলিয়ায় এক গ্রামবাসীর দোকান ঘর ভেঙে খাবার লুঠ করে।

একাধিক জমির ধান নষ্ট করে হাতি। তাড়াতে গেলে হাতির আক্রমণে আহত হয়ে হাসপাতালে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ভর্তি দুলাল মাহাত।

রেসিডেন্সিয়াল হাতির সমস্যা তো ছিলই ৷ তার সঙ্গে জুটেছে দলমার পাল। হাতি কে এলাকা থেকে সরাচ্ছে না বনদফতর। অভিযোগ গ্রামবাসীর। ফলে হাতির তান্ডব আর আতঙ্ক দিন দিনই বেড়ে চলেছে। এই মুহূর্তে ঝাড়গ্রাম গ্রমীণ এলাকার প্রায় সব জায়গাতেই ছড়িয়েছিটিয়ে রয়েছে হাতি। দাবি গ্রামবাসীদের। যদিও এই তথ্য মানতে নারাজ বনদফতর ৷

First published: September 6, 2019, 3:28 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर