ঝাড়গ্রামে সরকারি জমি দখল, সরকারি ওয়েবসাইটে অমিল তথ‍্য, নবান্ন থেকে শুরু তদন্ত

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jul 19, 2019 03:55 PM IST
ঝাড়গ্রামে সরকারি জমি দখল, সরকারি ওয়েবসাইটে অমিল তথ‍্য, নবান্ন থেকে শুরু তদন্ত
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jul 19, 2019 03:55 PM IST

#ঝাড়গ্রাম: ঝাড়গ্রামে সরকারি জমি দখল করে তৈরি হচ্ছে বাড়ি। নিউজ 18 বাংলার লাগাতার খবরের জেরে নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। নোটিস দিয়েছেন জেলাশাসক। নবান্ন থেকেও নজর রাখা হচ্ছে। কিন্তু সরকারি ওয়েবসাইটে হঠাৎই উধাও এই জমির রেকর্ড। যদিও বাসিন্দাদের একাংশের দাবি, রেজিস্ট্রি থেকে ব‍্যাঙ্ক লোন সব হয়েছে নিয়ম মেনেই। জমি বিক্রির পিছনে উঠে আসছে বেশ কয়েকজন প্রভাবশালীর নাম।

ঝাড়গ্রামের ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের সত‍্যবান পল্লি। সরকারি জমি জবরদখল করে এখানেই তৈরি হচ্ছে একের পর এক বাড়ি। নিউজ18 বাংলায় এই খবর সম্প্রচারের পর জবরদখলকারীদের নোটিস দিয়েছেন জেলাশাসক। নবান্ন থেকেও চলছে নজরদারি। এসবের পরও বেপরোয়া সত‍্যবানপল্লির কয়েকজন বাসিন্দা।

সত‍্যবান পল্লির একদিকে মাত্র ২০০ মিটার দূরেই জেলাশাসকের বাংলো, অন‍্যদিকে রয়েছে রামকৃষ্ণ মিশনের একলব‍্য আবাসিক বিদ‍্যালয়।

কিন্তু ৪৪৯০ দাগ নম্বরের এই সরকারি জমির কোনও তথ‍্য আর পাওয়া যাচ্ছে না রাজ‍্য সরকারের ওয়েবসাইটেও।যদিও সত‍্যবানপল্লির বাসিন্দাদের একাংশের দাবি, নিয়ম মেনেই জমির রেজিস্ট্রি হয়েছে। ব‍্যাঙ্ক থেকে হয়েছে লোন।

সরকারি জমিতে বেআইনিভাবে তৈরি হচ্ছে বাড়ি। অথচ এই ঝাড়গ্রামেই বেশ কয়েকটি সরকারি অফিস চলছে ভাড়াবাড়িতে। সরকারি জমি বিক্রির পিছনে উঠে আসছে এলাকার বেশ কয়েকজন প্রভাবশালীর নামও।

First published: 03:55:52 PM Jul 19, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर