প্রশাসনের উপর ভরসা নেই, নিজেরাই পুকুর সংস্কারে নামলেন গ্রামবাসীরা

বিভিন্ন কাজ করে অর্থ উপার্জন করে চাঁদা তুলে নিজের গ্রামের পুকুর সংস্কারে নামলেন জঙ্গলমহলের গ্রামবাসীরা।

Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Mar 30, 2017 09:18 AM IST
প্রশাসনের উপর ভরসা নেই, নিজেরাই পুকুর সংস্কারে নামলেন গ্রামবাসীরা
Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Mar 30, 2017 09:18 AM IST

#বাঁকুড়া: গ্রামের উন্নয়নের কাজ হয়নি ৷ বার বার প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়ে মিলেছে শুধু প্রতিশ্রুতি। তাই আর প্রশাসনের উপর ভরসা নয়, বিভিন্ন কাজ করে অর্থ উপার্জন করে চাঁদা তুলে নিজের গ্রামের পুকুর সংস্কারে নামলেন জঙ্গলমহলের গ্রামবাসীরা।

বাঁকুড়ার জঙ্গল মহলের প্রত্যন্ত গ্রাম রানিবাঁধ ব্লকের পুনশা। ২৫০ পরিবারের বসবাস এই গ্রামে। সব সম্প্রদায়ের মানুষের বসবাস এই গ্রামটিতে। জঙ্গলমহলের জঙ্গলঘেরা এই গ্রামে দুটি বড়ো পুকুর রয়েছে। এই দুটো পুকুরের উপর চাষাবাদ থেকে নিত্য নৈমিত্তিক কাজে নির্ভরশীল গ্রামের মানুষগুলি।

ভোট আসে যায়, পরিবর্তন হয় সরকারের ৷ পরিবর্তন হয় গ্রামপঞ্চায়েত , পঞ্চায়েত সমিতির জনপ্রতিনিধিদের। সবাই জানে এই গ্রামের সমস্যার কথা। সব আমলেই পুকুর সংস্কারের দাবি বারে বারে জানিয়েছেন গ্রামবাসীরা কিন্তু বিনিময়ে মিলেছে শুধু প্রতিশ্রুতি ৷ কাজ কিছু হয়নি। তাই প্রতি বছর তীব্র জলসঙ্কটে ভোগেন গ্রামের মানুষজন। সংস্কারের অভাবে এই গ্রামের দুটি বড়ো পুকুরের জল শুকিয়ে যায় চরম সমস্যায় পড়েন গ্রামবাসীরা।

সম্প্রতি রানিবাঁধ ব্লকের বিডিও ও পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন গ্রামে গিয়ে ১০ লক্ষ টাকায় এই দুটি পুকুর সংস্কার করা হবে কিন্তু দীর্ঘ সময় পেরিয়ে গেলেও হয়নি পুকুর সংস্কারের কাজ। তাই গ্রামবাসীরা বৈঠক করে সিন্ধান্ত নেয় আর প্রশাসনিক ভরসা নয় গ্রামে মানুষের কাছে নিজেদের পুকুর বাঁচাতে চাঁদা করে শুরু করেলন পুকুর সংস্কারের কাজ।

First published: 09:18:08 AM Mar 30, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर