জেল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে নানা অছিলায় টাকা তোলার অভিযোগ বন্দিদের, ধুন্ধুমার বারুইপুর সংশোধনাগার

জেল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে নানা অছিলায় টাকা তোলার অভিযোগ বন্দিদের, ধুন্ধুমার বারুইপুর সংশোধনাগার

জেল সুপার ও জেলরের বিরুদ্ধে অভিযোগ, নানা অছিলায় টাকা তোলার অভিযোগ বন্দিদের৷ প্যারোলের জন্য মোটা টাকা নেওয়ার অভিযোগ৷ এমনকি পরিবার দেখা করতে এলেও ঘুষ দিতে হয়৷

  • Share this:

#বারুইপুর: রণক্ষেত্র বারুইপুর সংশোধনাগার। রড, লাঠি নিয়ে হামলা বন্দিদের। জেলকর্মী ও পুলিশের ওপর হামলা চালায় বন্দিরা। গুরুতর আহত সহকারি জেল সুপার। মারমুখী বন্দিদের সামনে পালাতে বাধ্য হয় বারুইপুর থানার পুলিশ। জেলে তোলাবাজি, অত্যাচরের ঘটনায় বহুদিন ধরেই ক্ষোভ জমছিল।

বিকেল থেকে গভীর রাত। বেশ কয়েক ঘণ্টা বন্দিদের দখলে থাকল বারুইপুর সংশোধনাগার। লাঠি,রড নিয়ে নিরাপত্তারক্ষী ও পুলিশের ওপর হামলা জেলবন্দীদের। আক্রান্ত হলেন জেলকর্তা সহ অন্য নিরাপত্তাকর্মীরা। জেলে ঢুকেও বেরিয়ে আসতে বাধ্য হয় বারুইপুর থানার পুলিশ। জেলের ভিতরে ব্যাপক ভাঙচুর চালায় বন্দিরা।

বহুদিন থেকে ক্ষোভ জমছিল জেল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে। সোমবার সেই ক্ষোভেরই বহিঃপ্রকাশ ঘটে বলে মনে করা হয়। জেল সুপার ও জেলরের বিরুদ্ধে নানা অছিলায় টাকা তোলার অভিযোগ বন্দিদের৷ প্যারোলের জন্য মোটা টাকা নেওয়ার অভিযোগ৷ এমনকি পরিবার দেখা করতে এলেও ঘুষ দিতে হয়৷

এইসব অভিযোগ ঘিরে বন্দিদের মধ্যেই বিভাজন তৈরি হয়। আগেও কয়েকবার এনিয়ে বিরোধে জড়িয়েছে বন্দিরা। তবে সোমবার যা ঘটল তা নজিরবিহীন৷ যদিও কারা দফতরের দাবি, দু-দল বন্দির মধ্যে সংঘর্ষেই এই ঘটনা।

পাঁচিল ভেঙে ইঁট ছোড়া হয়। সঙ্গে লাঠি, রড নিয়ে হামলা। মারমুখী বন্দিদের সামনে প্রথমে ফিরে আসতে বাধ্য হয় পুলিশ। পরে পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে বিশাল পুলিশ পুলিশবাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে। বারুইপুর সংশোধনাগারে প্রায় ১২০০ বন্দিকে রাখার ব্যবস্থা আছে। বন্দিদের ক্ষোভ,ও তা থেকেই এই ঘটনা রাজ্য প্রশাসনের কাছে নতুন চ্যালেঞ্জ।

First published: March 2, 2020, 11:41 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर