চোখে মসনদের স্বপ্ন, লাল গোলাপে জনসংযোগ সারলেন জে পি নাড্ডা

চোখে মসনদের স্বপ্ন, লাল গোলাপে জনসংযোগ সারলেন জে পি নাড্ডা

বর্ধমানে জে পি নাড্ডা।

রাজনৈতিক মহলের মতে ভিড় দেখে ভুললে চলবে না। আসল লড়াই ভোট বাক্সে বোঝা যাবে।

  • Share this:

#বর্ধমান: রাস্তা মাত্র ১ কিমি। বর্ধমান শহরের জি টি রোড জুড়ে সকাল থেকেই ছিল সাজো সাজো রব। বর্ধমান শহরের ক্লক টাওয়ার থেকে ঐতিহ্যবাহী কার্জন গেট এই স্বল্প পথ জুড়ে শুধুই কয়েক হাজার নরেন্দ্র মোদী, জে পি নাড্ডা, দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়, অরবিন্দ মেনন, শুভেন্দু অধিকারী, অনুপম হাজরা, লকেট চ্যাটার্জি, সৌমিত্র খাঁ'য়ের পোস্টার, ব্যানার আর ফ্লেক্স। জি টি রোডের দু'ধারে যে সমস্ত বহুতল রয়েছে তা জুড়ে আর নয় অন্যায়ের পোস্টার। যেখানে শোভা পেয়েছে জে পি নাড্ডা আর নরেন্দ্র মোদীর ছবি। ক্লক টাওয়ারের সামনে, বাজার, আবার মিউনিসিপ্যাল স্কুলের সামনে কয়েক ফুট দূরে দূরেই ছিল ওভারহেড গেট। যে গেটে শুধুই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও নাড্ডা।

শুক্রবার গভীর রাত থেকেই রাস্তা সাজানোর কাজ শুরু করে দিয়েছিলেন উৎসাহী বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা। কোথাও গেরুয়া বেলুন দিয়ে সাজানো হয়েছে, বানানো হয়েছে গেট। কোথাও আবার রাস্তার ধারে ধারে মোদী-নাড্ডার কাট আউট দিয়ে ভরিয়ে দেওয়া হয়েছে। লোকসভা ভোটে এই জেলার এক আসনেই জয় ছিনিয়ে নিয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস। যদিও সেই আসন হাতছাড়া হয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসের। কিন্তু এক সময়ের লাল দূর্গে মাত্র ১ কিমি রাস্তা দেখে মনে হচ্ছে যেন অরেঞ্জ সিটি। মস্ত বড় হুডখোলা গাড়িতে এগিয়েছে জে পি নাড্ডার মিছিল। আর সেই মিছিলের প্রায় দুই ঘন্টা আগেই শুরু হয়েছে রাস্তা পরিষ্কারের কাজ৷ বিজেপি কর্মীরা নিজেরাই রাস্তায় নেমে পড়েন ঝাঁটা হাতে। তারা নিজেরাই রাস্তা পরিষ্কার করেন। দুপুর হতেই অবশ্য বর্ধমান শহরের ব্যস্ততম জি টি রোডে কান পাতা দায় হয়েছিল। কোথাও ঢাক তো কোথাও আবার ব্যান্ড বা তাসা পার্টি ছিল গোটা রাস্তা জুড়ে। জি টি রোডের দু'পাশের বাড়ির সমস্ত ছাদ বা বারান্দা ভরে গিয়েছিল মানুষে। ফলে জে পি নাড্ডার মিছিল যতই এগিয়েছে ততই খুশি হয়েছেন তিনি। এর পাশাপাশি একাধিক জায়গায় ছিল জায়েন্ট স্ক্রিন। সেখানেও অনেকে ভিড় করে দেখেছেন নাড্ডার মিছিল।

সব মিলিয়ে মানুষের উৎসাহ দেখে খুশি হয়েছেন বিজেপির কেন্দ্রীয় সভাপতি। তবে এর প্রভাব ভোটে কতটা পড়বে সেটাই দেখার। এদিন অবশ্য খুশি ছিলেন নাড্ডা। রাস্তার দু'ধার থেকে তাকে যখন ছোঁড়া হয়েছে ফুল। পালdটা লাল গোলাপ ছোঁড়া হয়েছে নাড্ডার তরফ থেকে। তাই ১৫ মিনিটের রাস্তা পেরোতে নাড্ডার রোড শো চলল প্রায় দেড় ঘন্টা ধরে। খুশি নাড্ডার তাই বক্তব্য, "এই ভিড় দলের কার্য কর্তাদের নয়, সাধারণ মানুষের ভিড়। যারা আমাদের এই রাজ্যে ক্ষমতায় আনবে।" তবে রাজনৈতিক মহলের মতে ভিড় দেখে ভুললে চলবে না। আসল লড়াই ভোট বাক্সে বোঝা যাবে।

Published by:Arka Deb
First published: