• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • বিশ্বভারতীতে ভাঙচুরের জন্য কী টাকা লাগানো হয়েছিল? পাঁচিলকাণ্ডের তদন্ত করতে চায় ইডি

বিশ্বভারতীতে ভাঙচুরের জন্য কী টাকা লাগানো হয়েছিল? পাঁচিলকাণ্ডের তদন্ত করতে চায় ইডি

ইডি-র আধিকারিকরা মনে করছেন সোমবার বিশ্বভারতীতে যা হয়েছে তা  'সংগঠিত অপরাধ' ৷ সূত্রের দাবি ঘটনার দিন ক্যাম্পাসে অত লোকের জমায়েত, পে লোডার এসবের পিছনে কোনও টাকা দেওয়া হয়েছিল কিনা তা জানতে চায় এই কেন্দ্রীয় সংস্থা ৷

ইডি-র আধিকারিকরা মনে করছেন সোমবার বিশ্বভারতীতে যা হয়েছে তা 'সংগঠিত অপরাধ' ৷ সূত্রের দাবি ঘটনার দিন ক্যাম্পাসে অত লোকের জমায়েত, পে লোডার এসবের পিছনে কোনও টাকা দেওয়া হয়েছিল কিনা তা জানতে চায় এই কেন্দ্রীয় সংস্থা ৷

ইডি-র আধিকারিকরা মনে করছেন সোমবার বিশ্বভারতীতে যা হয়েছে তা 'সংগঠিত অপরাধ' ৷ সূত্রের দাবি ঘটনার দিন ক্যাম্পাসে অত লোকের জমায়েত, পে লোডার এসবের পিছনে কোনও টাকা দেওয়া হয়েছিল কিনা তা জানতে চায় এই কেন্দ্রীয় সংস্থা ৷

  • Share this:

#কলকাতা: বিশ্বভারতীর পৌষ মেলার মাঠে পাঁচিল দেওয়াকে কেন্দ্র করে সোমবার তুলকালাম। বিশ্বভারতীর মেলার মূল প্রবেশদ্বার ভাঙচুর, চুরমার পাঁচিল তৈরির নির্মাণ সামগ্রী- পৌষমেলার মাঠে শান্তিনিকেতনের চরম অশান্তির ঘটনায় এবার তদন্তে নামতে চায় কেন্দ্রীয় সংস্থা ইডি অর্থাৎ এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট ৷ ইডি-র আধিকারিকরা মনে করছেন সোমবার বিশ্বভারতীতে যা হয়েছে তা  'সংগঠিত অপরাধ' ৷ সূত্রের দাবি ঘটনার দিন ক্যাম্পাসে অত লোকের জমায়েত, পে লোডার এসবের পিছনে কোনও টাকা দেওয়া হয়েছিল কিনা তা জানতে চায় এই কেন্দ্রীয় সংস্থা ৷

পাঁচিলকাণ্ডে মামলা রুজু করতে চায় ইডি ৷  সোমবার মেলার মাঝে ট্রাক্টরে চেপে শয়ে শয়ে লোক সেখানে জড়ো হয় ৷ পে লোডার দিয়ে ভেঙে ফেলা হয় মাঠের সীমানায় নিমার্ণ শুরু হওয়া পাঁচিল, মেলার মাঝের প্রবেশ দ্বার ৷ সূত্র মারফত খবর, পে লোডারের ভাড়ার উৎস কী জানতে চায় ইডি, একইসঙ্গে ক্যাম্পাসে ট্রাক্টরে চাপিয়ে আনা বহিরাগত  ক্ষেত্রেও কি দেওয়া হয়েছিল টাকা? জানতে চায় ইডি ৷ সোমবারের এই ভাঙচুর অশান্তির ঘটনায় বীরভূম পুলিশকে চিঠি দিয়েছে ইডি ৷ ভাঙচুরের ঘটনায় বীরভূমের পুলিশ সুপারের থেকে এফআইআরের কপি চায় ইডি ৷ বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষের থেকেও ঘটনার দিনের তথ্য চেয়ে চিঠি পাঠিয়েছে ইডি ৷ বিশ্বভারতীর পৌষমেলার মাঠে পাঁচিল ঘিরে নজিরবিহীন ঘটনা ঘটে শান্তিনিকেতনে। মেলার মাঠ ঘেরার প্রতিবাদের নামে চলে বিক্ষোভ, ভাঙচুর। প্রতিবাদ-বিক্ষোভের নামে কার্যত তাণ্ডব দেখল রবীন্দ্রনাথের হাতে গড়া বিশ্ববিদ্যালয়। সোমবার সকালে মেলার মাঠ ঘাট প্রতিবাদে এলাকার হাজার খানেক মানুষ ভাঙচুর চালান বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী অফিসে। ভাঙা হয় বিশ্বভারতীর একটি গেটও। জেসিবি দিয়ে ভেঙে দেওয়া হয় সদ্য শুরু হওয়া পাঁচিলের ভেতরের অংশ। বিক্ষুব্ধ জনতা বন্ধ করে দেয় নির্মাণ কাজ। কাতারে কাতারে বহিরাগত ঢুকে বিশ্ববিদ্যালয়ের গেট, ক্যাম্প অফিসেও ভাঙচুর চালায়।  সেই ঘটনার জল এখন বাংলার সীমানা ছাড়িয়েছে গড়িয়েছে দিল্লিতেও ৷ সোমবার বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস জুড়ে যে তান্ডবলীলা চলেছে তার জেরেই এবার ক্যাম্পাসে নিরাপত্তা কেন্দ্রীয় বাহিনীর হাতে দেওয়ার জন্যই তোড়জোড় শুরু করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। গোটা ঘটনা সম্পর্কে দৃষ্টি আকর্ষণ করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে পুরো ঘটনা লিখিত আকারে পাঠানো হচ্ছে আচার্য তথা প্রধানমন্ত্রীকে। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে খবর, মঙ্গলবার এর মধ্যেই গোটা ঘটনা লিখিত আকারে আচার্য তথা প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে পাঠানো হবে। চিঠি লিখে জানানো হয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রককেও ৷ বিশ্বভারতীকাণ্ডে কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাতে নয়া সংযোজন ইডির তদন্তে নামতে চাওয়া। আগামীদিনে জল কোন দিকে গড়ায় সেদিকেই এখন নজর।

Somraj Bandopadhyay

Published by:Elina Datta
First published: