• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • গভীর রাতে সরল সেনা, নবান্নেই থেকে গেলেন মুখ্যমন্ত্রী

গভীর রাতে সরল সেনা, নবান্নেই থেকে গেলেন মুখ্যমন্ত্রী

“রাজ্যের ১৮টি জেলায় সেনা ঢুকেছে। মানুষ নিরাপদ নয়। রাতে ঘুমোতে পারব না। তাই বাড়ি যাচ্ছি না।”: মুখ্যমন্ত্রী

“রাজ্যের ১৮টি জেলায় সেনা ঢুকেছে। মানুষ নিরাপদ নয়। রাতে ঘুমোতে পারব না। তাই বাড়ি যাচ্ছি না।”: মুখ্যমন্ত্রী

“রাজ্যের ১৮টি জেলায় সেনা ঢুকেছে। মানুষ নিরাপদ নয়। রাতে ঘুমোতে পারব না। তাই বাড়ি যাচ্ছি না।”: মুখ্যমন্ত্রী

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #হাওড়া:  রাজ্যের জাতীয় সড়কে নজরদারিতে সেনা! পালসিট টোল প্লাজায় সেনাবাহিনীর নজরদারি কেন ? কেনই বা রাজ্যকে অন্ধকারে রেখে নজরদারিতে সেনা? প্রশ্ন তুলে ফের কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরব মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজনৈতিক জরুরি অবস্থার অভিযোগে কেন্দ্রকে চিঠি দিচ্ছে রাজ্য।  সন্ধে থেকে টানাপোড়েনের পর গভীর রাত প্রায় দু’টোর সময় দ্বিতীয় হুগলী সেতুর টোল প্লাজা থেকে সেনাবাহিনীর গাড়ি এবং সেনাকর্মীরা সরে যান। তবে নবান্নেই রয়ে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “রাজ্যের ১৮টি জেলায় সেনা ঢুকেছে। মানুষ নিরাপদ নয়। রাতে ঘুমোতে পারব না। তাই বাড়ি যাচ্ছি না।” রাজ্যের সব জায়গা থেকে সেনাকর্মীরা সরে না গেলে নবান্নেই থাকবেন বলে জানিয়ে দেন।

    বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পালসিট টোল প্লাজায় নেমেছে সেনা। এই অভিযোগ তুলেই মোদি সরকারের বিরুদ্ধে আবারও সরব হন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

    টোল প্লাজায় কি করছিল সেনা?

    -গাড়ির ওপর নজরদারি -গাড়িতে তল্লাশি -নজরদারির ভিডিও রেকর্ডিং -টোলপ্লাজার ধারে বিশ্রাম

    রাজ্যকে না জানিয়ে কিভাবে টোল প্লাজায় সেনা টহলদারি? প্রশ্ন তুলেই জরুরি অবস্থার অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রীর।

    সেনার পক্ষ থেকে অবশ্য দাবি, রুটিন মেনেই মহড়া হয়েছে। ঘটনার খোঁজখবর শুরু করেছে সেনার গোয়েন্দা শাখা। সেনার বাড়াবাড়ি অভিযোগে কৈফেয়ৎ তলব করে কেন্দ্রকে চিঠি দিচ্ছেন রাজ্য প্রশাসন। সেই চিঠির সুরও যথেষ্টই চড়া হবে বলে খবর রাজ্য প্রশাসন সূত্রে।

    First published: