Home /News /south-bengal /
শ্রীচৈতন্য কলেজে সরস্বতী পুজোর নাচের ভিডিও কি সত্যি? প্রশ্ন তুলল রবীন্দ্রভারতীই

শ্রীচৈতন্য কলেজে সরস্বতী পুজোর নাচের ভিডিও কি সত্যি? প্রশ্ন তুলল রবীন্দ্রভারতীই

সেদিনের ওই উত্তাল নাচের দৃশ্য৷ ছবি: ফেসবুক৷

সেদিনের ওই উত্তাল নাচের দৃশ্য৷ ছবি: ফেসবুক৷

রবীন্দ্রনাথের গান বিকৃত করে লাউড স্পিকারে বাজালে স্থানীয়রাই প্রতিবাদ করত সবার আগে মত পড়ুয়াদের৷

  • Share this:

#হাবড়াঃ রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের বসন্ত উৎসব পালন বিতর্কের মাঝেই আরও একটি ভিডিও নিয়ে উত্তল নেট দুনিয়ায়। সেই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে এক দল ছাত্র ও ছাত্রী নাচে গদানে মত্ত এক বিশাল মাঠে।পিছনে রয়েছে বিশাল এক ভবন।আর রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের 'চাঁদ উঠেছে গগনে 'গানকে বিকৃত করা গানের  তালেতালে নাচ চলছে। অভিযোগ, উত্তর ২৪ পরগনার হাবরা শ্রী চৈতন্য কলেজের মাঠের ভিডিও এটি৷ তবে  শ্রীচৈতন্য কলেজের ছাত্রছাত্রীরা দেখে বলছেন কলেজকে বদনাম করতে কেউ বা কারা এটি নেট দুনিয়ায় ছড়িয়ে দিয়েছে। তাঁদের আরও দাবি, ভিডিওগুলিতে নাচের দৃশ্যগুলি বাস্তবিক৷ তবে শব্দের জায়গায় যে গান বাজানো হচ্ছে তা ঠিক নয়।

সোমা দাস এই কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী এদিন বলেন, ‘‘নেট দুনিয়ায় ছড়ানো এই ভিডিওটি এ'বছর স্বরসতী পুজোর বিকালে কলেজে আনন্দ উৎসবের।" সোম জানাচ্ছেন, পুজার পর তাঁরা এই নাচের আসর বসিয়ে ছিলেন।নাচের দৃশ্য দেখে তাঁর মনে হয়েছে ,'ফাগুনের মোহনায়' গানটি যখন বাজছিল সেই সময় এই ভিডিওটি তোলা হয়েছে। পরে এডিট করে গান বদল করে নেটে কেউ ছড়েছে।

সোমাকে সমর্থন করে এগিয়ে আসেন মহিন কুমার দাশগুপ্ত। তাঁর দাবি,  মফস্সল শহরের তাঁদের কলেজ। মূলত গ্রাম থেকে আসা পড়ুয়ারা এখানে আসে।এমন গান কলেজের লাউড স্পিকারে বাজলে আশেপাশের লোক আগে প্রতিবাদে সোচ্চার হতেন।এই কলেজের আর এক ছাত্রী মেঘা সাহাও বলছেন, তাঁদের কলেজকে পরিকল্পিত ভাবে বদনাম করতেই ফেক ভিডিও বানিয়ে নেটে ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।কলেজ পড়ুয়ারা এবার মিলিত ভাবে প্রতিবাদ করতে পথে নামবেন বলে জানান মেঘা সাহা।

সমলোচকরা অবশ্য এ কথায় আমল দিতে নারাজ৷ তাঁদের বক্তব্য, অনেকের ঠোঁটের নাড়াচাড়ার সঙ্গে ওই গানের কলি মিলে যাচ্ছে৷

RAJARSHI ROY

Published by:Arka Deb
First published:

পরবর্তী খবর