• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • INTERNATIONAL WOMENS DAY SNEHONIR THE BREAST FEEDING ROOM STARTS AT BARDHAMAN DISTRICTS MAGISTRATE OFFICE

নারীদিবসে সরকারি উপহার ! জেলাশাসকের অফিসে ‘স্নেহনীড়’, মায়ের দুধ খাওয়ানোর ঘর

  • Share this:

    #বর্ধমান: শিশু হেসে উঠলে যেন লজ্জা পায় সূর্যও । উঁকি দেওয়া দুধের দাঁতে লেগে থাকে আদুরে গন্ধ। খিদে আর ঘুম প্রশ্রয় পায় মায়ের দুধেই। শিশুকে দুধ খাওয়ানো নিয়ে মায়েদের তাই রাখঢাক কীসের? আন্তর্জাতিক নারী দিবসে বর্ধমানের জেলাশাসকের অফিস পেল মাতৃদুগ্ধপান কক্ষ।

    আচ্ছা মায়ের আরেক নাম কী? না, মায়ের কোনও প্রতিশব্দ নেই। যেমন মায়ের দুধের কোনও বিকল্প নেই। মায়ের দুধে প্রশ্রয় আছে... ডুকরে ওঠা কান্না শেষে ঘুমপাড়ানি গান আছে। সারারাত অপেক্ষা জাগা দু’চোখে লেপেটে আছে মায়ের দুধের আদর।

    এবার সেই আদরের ছবিই বর্ধমান জেলাশাসকের অফিসে। নারীদিবসে চালু হল মাতৃদুগ্ধপান কক্ষ। যেখানে মায়ের স্নেহে নীড় খুঁজবে সদ্য ফোটা কয়েকটা আলো। বিতর্কটা শুরু হয়েছিল কলকাতার শপিং মল থেকে। অভিলাষা পল নামে এক মহিলা তাঁর সন্তানকে বুকের দুধ খাওয়াতে গেলে বাধা দেয় মল কর্তৃপক্ষ। এরপরই সোশাল মিডিয়া গর্জে ওঠে প্রতিবাদ। এবার সরকারি অফিসে মায়ের দুধ খাওয়ার আলাদা ঘর পেল শিশুরা। বর্ধমান কোর্ট কম্পাউন্ডে জেলাশাসকের অফিস ছাড়াও আছে বিভিন্ন সরকারি অফিস। সবুজশ্রী-সহ বিভিন্ন প্রকল্পের জন্য প্রতিদিনই আসতে হয় মহিলাদের। কখনও কোলের শিশুকে সঙ্গে নিয়েই। শিশুকে দুধ খাওয়াতে গিয়েই বাঁধত বিপত্তি। এবার স্নেহনীড়ে মুশকিল আসান। মায়েদের সুবিধার জন্য জেলাশাসকের অফিসে ঢোকার মুখেই স্নেহনীড়ের ঘর। বসার জন্য সোফা, খাওয়ার জন্য জল, সবই থাকছে। জোর দেওয়া হচ্ছে পরিচ্ছন্নতায়ও।

    অর্ধেক নয়, সম্পূর্ণ আকাশে যাঁর অধিকার.. যে নারী এখন নিজের ভাগ্য নিজেই জয় করে নেয়। যে নারী শাসন করে... করে সোহাগও। সেই সোহােগর নীড় খুঁজে দিল বর্ধমান।

    First published: