দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

কেশপুরে তুমুল বোমাবাজিতে মৃত কিশোর সহ ২, আহত ৫

কেশপুরে তুমুল বোমাবাজিতে মৃত কিশোর সহ ২, আহত ৫
প্রতীকী ছবি৷

ঘটনায় নিহত তৃণমূল কর্মী মহম্মদ নাসিমের পরিবারের দাবি, কেশপুরের বর্তমান ব্লক সভাপতি উত্তম ত্রিপাঠীর ঘনিষ্টরা বৃহস্পতিবার বিকেলে তাঁদের গ্রামেরই এক তৃণমূল কর্মীকে মারধর করে।

  • Share this:

#পশ্চিম মেদিনীপুর: কেশপুরে বোমার আঘাতে মৃত্যু হল চোদ্দ বছরের এক কিশোর সহ দু' জনের, আহত পাঁচ। আহতদের আশঙ্কাজনক অবস্থায় ভর্তি করা হয়েছে মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। ঘটনায় তীব্র উত্তেজনা পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার কেশপুর থানার অন্তর্গত দামোদরচক এলাকায়।

জানা গিয়েছে, কেশপুরে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল দীর্ঘদিনের। একই ভাবে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নিজেদের মধ্যে বিবাদে জড়িয়ে পড়ে দু' পক্ষ। শুরু হয় বোমাবাজি। বোমার আঘাতে জখম হয় শেখ মাজাহার নামে বছর চোদ্দের এক কিশোর। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে কেশপুর গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। একইভাবে বোমার আঘাতে গুরুতর আহত হয় মহম্মদ নাসিম নামে আরও এক তৃণমূল কর্মী। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে এলে সেখানে মৃত্যু হয় তাঁর। ঘটনায় জখম এক মহিলা সহ দু' জন ভর্তি মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে।

ঘটনায় নিহত তৃণমূল কর্মী মহম্মদ নাসিমের পরিবারের দাবি, কেশপুরের বর্তমান ব্লক সভাপতি উত্তম ত্রিপাঠীর ঘনিষ্টরা বৃহস্পতিবার বিকেলে তাঁদের গ্রামেরই এক তৃণমূল কর্মীকে মারধর করে। এই নিয়েই গন্ডগোলের সূত্রপাত। এরপর তাঁদের চার দিক থেকে ঘিরে মুহুর্মুহু বোমাবাজি করা হয় বলে অভিযোগ মৃতের পরিবারের। মৃত নাসিমের দাদা শেখ তানসুর আহমেদের দাবি, কেশপুরে তৃণমূলের পূর্বতন ব্লক সভাপতি সঞ্জয় পানের সঙ্গে বর্তমান ব্লক সভাপতি উত্তম ত্রিপাঠীর গোষ্ঠী কোন্দলের কথা বারবার দলকে জানালেও কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি দলের তরফে।

বিবাদমান দু' পক্ষই যে তৃণমূলের একথা স্বীকার করে নিয়েছেন জেলা তৃণমূল সভাপতি অজিত মাইতি। তাঁর যদিও তাঁর দাবি, এটি একটি পারিবারিক বিবাদ এবং তা থেকেই গন্ডগোলের সূত্রপাত। পুলিশকে নিরপেক্ষ তদন্ত করে অভিযুক্তদের গ্রেফতারের আবেদন জানানো হয়েছে বলেও জানিয়েছেন জেলা তৃণমূল সভাপতি। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছেয় কেশপুর থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। তবে বিষয়টিকে তৃনমুলের গোষ্ঠী কোন্দল বলেই দাবি করেছেন বিজেপি নেতৃত্ব।

Suhit Bhowmik

Published by: Debamoy Ghosh
First published: September 18, 2020, 9:11 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर