নকল টিকিট জমা দিয়ে লটারির মোটা টাকা হাতানোর চেষ্টা, গ্রেফতার দুই

নাগাল্যান্ড রাজ্য লটারি টিকিটে তারা দু লক্ষ পঁচিশ হাজার টাকা পেয়েছে বলে ওই লটারির দোকানে জানায় দুই যুবক। দোকানের মালিক টিকিট মিলিয়ে দেখেন,ওই দুই যুবকের দাবি সঠিক

নাগাল্যান্ড রাজ্য লটারি টিকিটে তারা দু লক্ষ পঁচিশ হাজার টাকা পেয়েছে বলে ওই লটারির দোকানে জানায় দুই যুবক। দোকানের মালিক টিকিট মিলিয়ে দেখেন,ওই দুই যুবকের দাবি সঠিক

  • Share this:

#বর্ধমান: নকল টিকিট দেখিয়ে এর আগেও মোটা টাকা হাতিয়ে নিয়েছিল তারা।কিন্তু এবার আরও বড় অঙ্কের টাকা হাতাতে গিয়ে ধরা পড়ে গেল দুই দুষ্কৃতী। বর্ধমান রেল স্টেশন লাগোয়া একটি লটারির দোকানে এই ঘটনা ঘটনা ঘটেছে। ওই দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে বর্ধমান থানার পুলিশ। তারা এর আগে কোথায় কোথায় এমন ঘটনা ঘটিয়েছে তা জানতে ধৃতদের দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ চালাচ্ছে পুলিশ।

ধৃত দু’জনের নাম তপন দাস ও ছোট্টু সিং। হুগলির মগরা থানার তালতলা এলাকায় তপন দাসের বাড়ি। ছোট্টু সিংয়ের বাড়ি মগরা থানার কাঁটাপুকুর এলাকায়। বর্ধমান রেল স্টেশন সংলগ্ন স্পন্দন কমপ্লেক্সের একটি লটারির দোকানে ভুয়ো লটারি টিকিট দেখিয়ে টাকা নিতে গিয়ে ধরা পড়ে যায় তারা। লটারি দোকানের মালিক ও অন্যান্য কর্মীরা তাদের আটকে রেখে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

নাগাল্যান্ড রাজ্য লটারি টিকিটে তারা দু লক্ষ পঁচিশ হাজার টাকা পেয়েছে বলে ওই লটারির দোকানে জানায় দুই যুবক। দোকানের মালিক টিকিট মিলিয়ে দেখেন,ওই দুই যুবকের দাবি সঠিক। প্রথমে তিনি টাকা দিয়ে দেওয়ার মনস্থির করেন। কিন্তু টিকিটগুলো দেখে তাঁর মনে খটকা লাগে। এরপর তিনি লটারি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। সেখান থেকে জানানো হয়, ওই নম্বরের টিকিট জমা নিয়ে ইতিমধ্যেই টাকা দিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এরপরই ওই দুই যুবককে কর্মীদের নিয়ে আটক করে ফেলেন লটারি দোকানের মালিক। বর্ধমান থানার পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ এলে তাদের হাতে তুলে দেওয়া হয় দুই যুবককে। লটারি টিকিট কালার জেরক্স করে তারা ওই টাকাটা চেয়েছিল বলে দুই যুবক স্বীকার করেছে বলে দাবি পুলিশের। এর আগেও তারা এভাবে টাকা নিয়েছে বলে তদন্তে নেমে জানতে পেরেছে পুলিশ।

Published by:Pooja Basu
First published: