• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • Father Killed Daughter: নৃশংস এক বাবা! ১৬ দিনের মেয়ের সঙ্গে যা করলেন এই ব্যক্তি, ফুঁসছে ছাতনা

Father Killed Daughter: নৃশংস এক বাবা! ১৬ দিনের মেয়ের সঙ্গে যা করলেন এই ব্যক্তি, ফুঁসছে ছাতনা

ঘৃণ্য এক বাবা!

ঘৃণ্য এক বাবা!

Father Killed Daughter: হেফাজতের মেয়াদ শেষ হওয়ার এক দিন আগেই নিজের কন্যা সন্তানকে খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত বাবা আশ্বিনাথ সোরেনকে আদালতে পেশ করল পুলিশ।

  • Share this:

    #বাঁকুড়া: পুলিশ হেফাজতের মেয়াদ শেষের আগেই নিজের কন্যা সন্তান হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত বাবাকে আদালতে পেশ করল পুলিশ। পুলিশ হেফাজতের মেয়াদ শেষ হওয়ার এক দিন আগেই নিজের কন্যা সন্তানকে খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত বাবা আশ্বিনাথ সোরেনকে আদালতে পেশ করল পুলিশ। আজ তাকে বাঁকুড়া জেলা আদালতে পেশ করে ছাতনা থানার পুলিশ। নিজের কন্যাসন্তানকে খুনের কথা আশ্বিনাথের স্বীকার করে নেওয়া ও খুন হওয়া কন্যাসন্তানের দেহ উদ্ধার হয়ে যাওয়ায় আর অভিযুক্তকে নিজেদের হেফাজতে রাখার প্রয়োজন নেই মনে করছে পুলিশ। সেই কারণেই পুলিশ হেফাজতের মেয়াদ শেষের একদিন আগেই তাকে আদালতে পেশ করে ছাতনা থানার পুলিশ।

    বাঁকুড়ার ছাতনা থানার তুলসা গ্রামের বাসিন্দা আশ্বিনাথ সোরেন ও সোহাগি সোরেনের শিশু কন্যা নিখোঁজের ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ দফায় দফায় জেরা করে আশ্বিনাথ সোরেনকে। জেরায় পুলিশ জানতে পারে প্রথম কন্যা সন্তানের পর সোহাগি দ্বিতীয় কন্যা সন্তানের জন্ম দেওয়ায় স্বামী আশ্বিনাথ সোহাগির উপর অত্যাচার শুরু করে। দ্বিতীয় কন্যা সন্তানের জন্মের পর তাকে মেরে ফেলার জন্য স্ত্রী সোহাগিকে চাপও দিতে থাকে আশ্বিনাথ। কিন্তু সোহাগি স্বামীর কথায় রাজি না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত নিজেই দ্বিতীয় কন্যা সন্তানকে খুনের ছক কষে আশ্বিনাথ।

    আরও পড়ুন: ফের ধস নামল দার্জিলিংয়ে! আটকে বহু পর্যটক, ট্যুর অপারেটরদের চরম সাবধানবাণী...

    এরপর সোহাগি নিজের দ্বিতীয় কন্যা সন্তানকে বাড়িতে শুইয়ে রেখে গৃহস্থালির কাজে বাড়ির বাইরে গেলে আশ্বিনাথ সুযোগ বুঝে নিজের ১৬ দিনের কন্যা সন্তানকে খুন করে প্লাস্টিকে মুড়ে গ্রাম থেকে দু কিলোমিটার দূরের একটি ধানজমিতে পুঁতে দিয়ে আসে। সোহাগি বাড়িতে ফিরে এসে দ্বিতীয় সন্তানের খোঁজ শুরু করলে ব্যাপারটিতে প্রথমে আমল দেয়নি আশ্বিনাথ। পরে স্ত্রী সোহাগি থানার দ্বারস্থ হতে চাইলে তাঁকে আশ্বিনাথ বেশ কয়েকদিন ঘরবন্দী করে রাখে বলে অভিযোগ। গত ১৭ অক্টোবর সুযোগ বুঝে সোহাগি নিজের প্রথম কন্যা সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে পুরুলিয়া জেলায় নিজের বাপের বাড়িতে চলে যান।

    আরও পড়ুন: মা কাজে, হঠাৎ নিখোঁজ ১৬ দিনের মেয়ে! ধানজমি দেখিয়ে বাবা বলল...

    ১৮ অক্টোবর বাপের বাড়ির অন্যান্যদের সহযোগিতায় ছাতনা থানায় হাজির হয়ে স্বামী আশ্বিনাথ সোরেনের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় কন্যা সন্তানকে খুনের মামলা রুজু করে। অভিযোগ পেতেই পুলিশ আশ্বিনাথকে গ্রেফতাত করে। ১৯ অক্টোবর আশ্বিনাথকে বাঁকুড়া জেলা আদালতে পেশ করে ৬ দিনের পুলিশ হেফাজতের আবেদন জানায় তদন্তকারীরা। আদালত চারদিন পুলিশ হেফাজত মঞ্জুর করে। গতকাল পুলিশ হেফাজতে থাকা আশ্বিনাথকে সঙ্গে নিয়ে তুলসা গ্রামের অদূরে একটি ধানজমি থেকে কন্যা শিশুর প্লাস্টিকে মোড়া নিথর দেহ উদ্ধার করে। তদন্তে পুলিশ জানতে পেরেছে নিজের কন্যা সন্তানকে খুনের পরিকল্পনা একক ভাবেই করেছিল বাবা আশ্বিনাথ। এই ঘটনায় অন্য কোনো ব্যাক্তির যোগসূত্র মেলেনি বলেই দাবি পুলিশের।

    -----মৃত্যুঞ্জয় দাস

    Published by:Suman Biswas
    First published: